জকিগঞ্জে ভাইকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা ধামাচাপার চেষ্টা !

0
110

সিলেটের সংবাদ ডট কম: সিলেটের জকিগঞ্জে পারিবারিক বিরোধে আপন ভাইয়েরা শাবল দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছেন তাদের ভাই আব্দুল করিমকে। আব্দুল করিম উপজেলার সুলতানপুর ইউনিয়নের গেচুয়া গ্রামের মৃত মুজম্মীল আলীর ছেলে ও সুনামগঞ্জের জগন্নাৎপুর স্বরুপচন্দ্র সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক। হত্যার ঘটনা ধামাচাপা দিতে আব্দুল করিম হৃদরোগে মারা গেছেন প্রচার কওে তাকে দাফন করেছে। আর এসবই করা হয়েছে থানা পুলিশকে ম্যানেজ করে। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় চলছে। বৃহস্পতিবার জোহরের নামাজের পর গেচুয়া জামে মসজিদের শতাধিক মুসল্লী করিম হত্যার বিচারের দাবিতে মিছিল করে ঐ বাড়ি ঘেরাও করেছেন। নিহতের ভাগিনা একই গ্রামের নোমানুর রশিদ, ইসমাইল আলী ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বুরহান উদ্দিন জানান, নিহত আব্দুল করিমের ভাই আব্দুর রহিমের স্ত্রী শেফা বেগম ও অপর ভাই ফাহিম আহমদের স্ত্রী রুজি বেগম কয়েকদিন আগে ঝগড়া করেন। বুধবার সন্ধ্যায় পারিবারিক এক সালিশে যৌথ পরিবারের সদস্য আব্দুল করিম তার ছোট ভাইর স্ত্রী শেফা বেগমকে বকুনি দিয়ে শাসন করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তার স্বামী আব্দুর রহিম ওইদিন রাত অনুমান দুইটার সময় ঘুমন্ত অবস্থায় শাবল দিয়ে বুকের মধ্যে উপর্যপুরি আঘাত করেন। এতে ঘটনাস্থলেই করিমের মৃত্যু ঘটে। নিহত আব্দুল করিমের রক্তমাখা জামা কাপড় তার ভাগিনা একই গ্রামের ইসমাইল আলীর মায়ের কাছে রক্ষিত আছে বলে তারা জানিয়েছেন। স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন, ঘটনার পর নিহতের ভাই এএসআই শাকুর আহমদ জকিগঞ্জ থানা পুলিশের সাথে যোগাযোগ করে ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ দাফন করেন। অভিযুক্ত আব্দুর রহিম অসুস্থতার ভান করে কথা বলতে রাজি হননি। এদিকে জোবেদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়, গঙ্গাজল সিনিয়ংর মাদ্রাসা, জকিগঞ্জ সরকারি বালক ও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক আব্দুল করিমের হত্যাকারীদের বিচারের দাবীতে মানববন্ধনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে একাধিক শিক্ষার্থী জানিয়েছেন। জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জামসেদ আলম বলেন আব্দুল করিমের মৃত্যুর ব্যাপাওে কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ ব্যবস্থা  ব্যবস্থা নেবে।

(Visited 4 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here