কোম্পানীগঞ্জে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত শতাধিক

0
109

সিলেটের সংবাদ ডট কম: ছাতক সুরমা নদীর পূর্বপাড় কোম্পানীগঞ্জের ইছাকলস গ্রামে দু’পক্ষের এক রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে মহিলাসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছে। গুরুতর আহত জমসেদ আলম (২০)কে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পুলিশের আসামী ধরাকে কেন্দ্র করে  সোমবার ভোরে গ্রামের আয়না মিয়ার পুত্র রফিক মিয়া ও আব্দুল আহাদের পুত্র নজরুল ইসলাম পক্ষদ্বয়ের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, একাধিক মামলার পলাতক আসামী রফিক মিয়াকে সেহরির পূর্বে পুলিশ গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের ঘটনা নিয়ে রফিক মিয়া পক্ষ নজরুল ইসলামকে দায়ী করলে উভয়পক্ষের মধ্যে কথা কাটাকাটি ও হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে নজরুল ইসলাম পক্ষের লোকজন খেয়াঘাটে থাকা রফিক মিয়ার ৩টি দোকানকোঠায় হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর করলে উভয়পক্ষ তুমুল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় দু’ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের লোকজন ব্যাপক ইটপাটকেল নিক্ষেপ করলে মহিলাসহ শতাধিক লোক আহত হয়। সমিরুন নেছা (৪৫), মালেকজান (২৫), নিজাম উদ্দিন (৩০), তাসলিমা (২৫), আমিনুল (২৫), নজরুল (৩২), মইন উদ্দিন (২৫), নাছির (২৩), বাবুল (৩৫), আবুল (২০), তেরা মিয়া (৫০), হোসেন আহমদ (২৩), সুরুজ মিয়া (৬০), লুৎফুর রহমান (২৬), হাফিজ আলী (২৫), আছির আলী (২৫), আলিম উদ্দিন (২২), আকবর আলী (৫৩), আজিজুর রহমান (৪৫), জাবেদ মিয়া (২০), সাইদ মিয়া (৩৮), রুহুল আমীন (২৫), আলকাছ আলী (৪৫), আনিছ আলী (৪০), আলীম উদ্দিন (২৫), ইকবাল হোসেন (৩০), এরশাদ আলী (৫৫), মোহাম্মদ আলী (২০), জাকারিয়া (৩৫), সাইদুর রহমান (২০), মিজানুর রহমান (২০), আবুল হাসনাত (১৭), সুলেমান মিয়া (৫০), সুলন মিয়া (২৫), রজব আলী (৫০), জাহাঙ্গীর (২০), আব্দুল হান্নান (৩৮), জোবায়ের (৩০), জামাল (৩০), রুয়েল মিয়া (৩৫), মাহাদি হাসনা (২৪), রহমান মিয়া (৪৫), মিলন মিয়া (১৬), আজিজুর রহমান (৩২), আব্দুস শহিদ (৪৫), মুজিবুর রহমান (৩৮), হাবিব (২০), জসিম (২২), সফর আলী (৫৫), শুকুর মিয়া (১৯), ইরেশ (২১), ওসমান আলী (৫৫), শরীফুল মিয়া (২১), তানভির হোসেন (২১), সুহেল (৩৩), করিম উদ্দিন (২৫), ইব্রাহিম (৩২), তোফায়েল (১৫), ফারুক মিয়া (৪৫), সায়েদ মিয়া (২০), মহন (২০), রুবেল (২০), বিরাম (২৪), জুনায়েদ হোসেন (২১), আবুল কালাম (২২), আরব আলী (৩৬), লায়েক মিয়া (২২), আবু বক্কর (২৫), মনিরুল ইসলাম (৩০), সুয়েদ মিয়া (১৮), আব্দুল বাছিত (২৩), আব্দুল হান্নান (৩৫), কবির আহমদ (২২), শ্যামল (২৩), সাজিদ মিয়া (১৯), রুবেল মিয়া (১৮), ময়না মিয়া (৫৫), সাজারুন নেছা (৫৫), বারিক (৩০), শামসুল ইসলাম (২৫), আমির উদ্দিন (৩৫), হাজী কুটি মিয়া (৫৮)সহ আহতদের ছাতক হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা দায়ের করা হয়নি।

(Visited 2 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here