চাচা হত্যার দায়ে ভাতিজার ১০ বছরের কারাদন্ড

0
55

সিলেটের সংবাদ ডট কম: সিলেট শহরতলীতে চাচাকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে ভাতিজার ১০ বছরের সশ্রম কারাদন্ড হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ (জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল) আদালতের বিচারক মোঃ মঈদুল ইসলাম এ রায় দেয়। সাজাপ্রাপ্ত আসামীর না সোহেল মিয়া (২২)। সে জালালাবাদ থানার মৌলভিরগাঁও এলাকার মোবারকপুর গ্রামের বাসিন্দা। আদালত সোহেল মিয়াকে আরো এক লাখ টাকা জরিমানাও করেছেন। অনাদায়ে তাকে আরো দুই বছরের সাজা ভোগ করতে হবে। এছাড়া, তার পিতা সিরাজ মিয়া (৫৫) ও মা মনোয়ারা বেগমকে (৪৫) খালাস দিয়েছেন। মামলার বিবরণীতে জানা গেছে, ২০১২ সালের ৮ জুলাই সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে জালালাবাদ থানার মৌলভিরগাঁও এলাকার মোবারকপুর গ্রামের মৃত মামন্দ আলীর পুত্র সরকুম আলী (৫০) বাড়ি নির্মাণ সামগ্রীর মালামাল বসত বাড়ির রাস্তার দক্ষিণ-পূর্ব পাশে রাখেন। এ সময় সিরাজ মিয়ার জায়গায় লাগানো ছোট একটি জাম গাছ নির্মাণ সামগ্রীর নিচে পড়ে নষ্ট হয়ে যায়। এ নিয়ে সরকুম আলী ও সিরাজ মিয়ার মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এর জের ধরে ওইদিন রাত সোয়া ৭ টার দিকে সোহেল মিয়া ধারালো চাকু দিয়ে তার চাচা সরকুম আলীর বুকে উপর্যুপরি আঘাত করলে তিনি গুরুতর আহত হন। স্থানীয় লোকজন সরকুম আলীকে উদ্ধার করে মুমূর্ষু অবস্থায় দ্রুত সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী বেদেনা বেগম বাদী হয়ে সোহেল মিয়া, ভাসুর সিরাজ আলী ও ভাসুরের স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে আসামী করে জালালাবাদ থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ ঘটনার দিন রাতেই সিরাজ আলী ও তার স্ত্রী মনোয়ারা বেগমকে গ্রেফতার করে কারাগারে প্রেরণ করে। কিন্তু, মূল আসামী সোহেল মিয়া এখনও পলাতক রয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষে স্পেশাল পিপি এডভোকেট মোঃ নওসাদ আহমদ চৌধুরী ও আসামীপক্ষে এডভোকেট মোঃ আজরাফ মিয়া তালুকদার মামলাটি পরিচালনা করেন।

(Visited 2 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here