গর্ভাবস্হায় শরীরচর্চা

0
208

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আমি যদি দুষ্টুমি করে চাঁপার গাছে চাঁপা হয়ে ফুটি, ভোরের বেলা, মা গো, ডালের ’পরে কচি পাতায় করি লুটোপুটিই তবে, তুমি আমার কাছে হারও”- আপনার ছোট্ট সোনামণি আপনার সামনে বসে আদুরে গলায় যখন এই ছড়াটা বলবে, তখন তা শুনে মন প্রাণ ভরে যাবে আপনারই। মা হওয়ার আগে নানান চিন্তার পাশাপাশি, অনেক স্বপ্নও থাকে। সঠিক খাওয়া-দাওয়ার সঙ্গে শরীরের যত্ন নিতেও ভোলেন না ভাবী মা। এই ন’টা মাস পরম যত্নে, ভাবী মা আর তার ভাবী সন্তান অপেক্ষায় থাকে নতুন পরিচয়ের জন্য। কিন্তু, শুধুই তো আর নতুন পরিচয় না, দরকার সুস্থ মা ও সুস্থ সন্তানের। সুস্থ মাকে পেতে গেলে প্রয়োজন সঠিক খাদ্য-পরিকল্পনার পাশাপাশি কিছু ব্যায়াম। প্রেগনেন্সির সময় সুস্থ ও ফিট থাকতে সবচেয়ে ভাল অপশন হাঁটা। কারণ, হাঁটলে আপনার মাসল টোনড হবে৷ শরীর সচল থাকবে৷ শরীরে অক্সিজেন বেশি করে ঢুকবে। শুধু তাই নয়, ভাল ঘুমও হবে। প্রেগনেন্সির সময় অনেক মহিলারাই মর্নিং সিকনেক, লোয়ার ব্যাকে ব্যথা, পেটের সমস্যা, শরীরে অস্বস্তি, ঠিকমতো ঘুম না হওয়ার মতো নানা সমস্যা দেখা দেয়। প্রেগনেন্সির সময় যদি নিয়মিত হাঁটতে পারেন, দেখবেন এই সমস্যাগুলি আপনা থেকেই অনেক কমে যাবে। সকাল বা বিকেল যখন সময় পাবেন, কিছুটা করে হাঁটুন। সারাদিনে ২০-৩০ মিনিট হাঁটুন। তবে, একটানা অনেকক্ষণ হাঁটবেন না। মাঝে মাঝে একটু বিশ্রাম নিন, জল খান৷ তারপর আবার হাঁটুন। খুব জোরে হাঁটবেন না। আস্তে আস্তে হাঁটুন। হাঁটার সময় খেয়াল রাখবেন, আপনার হার্টবিট যেন নর্মাল  হার্টবিটের  চেয়ে খুব বেশি বেড়ে না যায়। এই সময় একদম হাই হিল পড়বেন না। রাতে পায়ে ক্রাম্প হলে দু’’পা সামনের দিকে ছড়িয়ে দিন।এবার পায়ের আঙুলগুলি নিজের দিকে করুন।এভাবে কয়েক মিনিট থাকুন। তারপর প্রথম অবস্থায় ফিরে যান। নিয়মিত শরীরচর্চা ভাবী মা ও  সন্তানকে সুস্থ রাখার জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। তবে, যদি আপনার গাইনোকলজিস্ট সম্পূর্ণ রেস্ট নিতে বলেন, তাহলে শরীরচর্চার প্রয়োজন নেই। নচেৎ প্রেগনেন্সিতেও এক্সারসাইজ করুন।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here