বাংলাদেশ নয় : আরব আমিরাত!

0
121

78 (4)সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: এপ্রিল মাসে পাকিস্তানের সফরে আসাটাও একরকম চূড়ান্তই ছিল। কিন্তু আবার শুরু হওয়া টানাপোড়েনে একরকম অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে তাদের খেলতে আসা। আর পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের সাবেক সভাপতি নাজাম শেঠীর নয়া বক্তব্যে সেই টানাপোড়েনে নিলো নতুন মোড়। নাজাম শেঠী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, মূলত আয় বাড়ানোর দিকেই নজরি দিচ্ছেন তিনি। আর এর জন্য, হোম সিরিজই আয়োজন করতে হবে। না হয় বাংলাদেশকে দিতে হবে আয়ের পঞ্চাশ ভাগ। ক্ষমতাশালী নির্বাহী কমিটির এই প্রধান বলেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে ২০১২ সালে বাংলাদেশের পাকিস্তান সফরে আসার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে তারা আসেনি। সেই সেই সিরিজের ক্ষতি আমাদের পুষিয়ে দিতে হবে। একই সাথে ২০১১ সালেই আমরা ওদের ওখানে খেলে এসেছি। তাই সব মিলিয়ে এবার আমাদের পালা। হয় বাংলাদেশ রেভিনিউয়ের ৫০ ভাগ আমাদের দিয়ে দেবে, না হয় সফরটা সরে আসবে আরব আমিরাতে। এমনটাই আমরা তাদের প্রস্তাব দিয়েছি। আমাদের মনে রাখতে হবে ২০১২ সালে বাংলাদেশের পাকিস্তান সফরে আসার কথা থাকলেও শেষ মুহূর্তে তারা আসেনি। সেই সেই সিরিজের ক্ষতি আমাদের পুষিয়ে দিতে হবে। একই সাথে ২০১১ সালেই আমরা ওদের ওখানে খেলে এসেছি। তাই সব মিলিয়ে এবার আমাদের পালা। হয় বাংলাদেশ রেভিনিউয়ের ৫০ ভাগ আমাদের দিয়ে দেবে, না হয় সফরটা সরে আসবে আরব আমিরাতে। এমনটাই আমরা তাদের প্রস্তাব দিয়েছি। বাংলাদেশের ‘কথিত’ পাকিস্তান সফরের প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ নিয়ে এর আগে অনেক জল ঘোলা হয়েছে। এমন প্রতিশ্রুতি পেয়ে আইসিসির সভাপতি পদে বাংলাদেশের প্রতিনিধি আ হ ম মোস্তফা কামালকে পিসিবি সমর্থন দিয়েছিল বলেও তারা দাবি করেছিল। সেই ‘প্রতিশ্রুতি’ দুই দফা বাংলাদেশ রাখতে পারেনি; এর মধ্যে একবার উচ্চ আদালতের নির্দেশে সফর বাতিল হয়। এসব কারণে পাকিস্তান দ্বিতীয় বিপিএল ও ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে তাদের খেলোয়াড় না পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়। জাকা আশরাফের সময়ে চরমে ওঠা এই পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে সর্বশেষ গত অক্টোবরে ঢাকা সফর করেন নতুন করে দায়িত্ব পাওয়া পিসিবি প্রধান শাহরিয়ার খান। আর এই সময়েই শুরু হওয়া আলোচনা থেকে ‘ভবিষ্যত্ সফরসূচী’তে (এফটিপি) সংযুক্ত হয় যে, পাকিস্তান এপ্রিল মাসে একটি পূর্ণাঙ্গ সফরে ঢাকায় আসবে। গত অক্টোবরে নতুন করে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) দায়িত্ব পাওয়া শাহরিয়ার খানের বাংলাদেশ সফরের ভেতর দিয়ে বরফ গলতে শুরু করেছিল। সেই অনুযায়ী এপ্রিল-মেতে পাকিস্তানের সফরে আসাটাও একরকম চূড়ান্তই ছিল। এরপর গত ক’দিনের মধ্যে বার্তা সংস্থা পিটিআইকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পিসিবি কর্মকর্তা সাফ জানিয়ে দেন প্রয়োজনে সফরে বাতিল করা হবে। আর এই বিতর্কে নতুন ঘিঁ ঢাললেন নাজাম শেঠী। তার কথায়, একটা ব্যাপার স্পষ্ট যে, ক্রিকেটীয় দৃষ্টিকোণ নয়; বরং আর্থিক আয় বিবেচনা করেই বাংলাদেশের সাথে হাত মেলাতে চাইছে পাকিস্তান। আশাবাদী নাজাম শেঠী বলেন, ‘এখনই এই সফরের শেষ দেখে ফেলার কোন কারণ নেই। সিরিজ আয়োজনের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী। একই সাথে এই সিরিজটা থেকে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের অনেক আয় হবে বলেও মনে করছি আমরা।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here