ভারতের পররাষ্ট্র সচিব ঢাকায় এসেছেন

0
146

74 (2)সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ভারতের নতুন পররাষ্ট্রসচিব সুব্রামানিয়াম জয়শঙ্কর আজ ঢাকায় এসেছেন। বিশেষ বিমানে সকাল সাড়ে দশটার দিকে তিনি ঢাকায় পৌঁছান। গতকাল ভুটানের রাজধানী থিম্পু থেকে সার্ক দেশগুলোতে তাঁর প্রথম পর্যায়ের সফর শুরু করেছেন আর এরই অংশ হিসেবে তিনি সোমবার ঢাকায় আসলেন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীর সাথে সাক্ষাত করবেন। এছাড়া বৈঠকে বসবেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিবের সাথে। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্দেশেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই বিশেষ সফর, যার নামকরণ করা হয়েছে ‘সার্ক যাত্রা’। বাংলাদেশে দায়িত্বপালন করা ভারতের সাবেক হাইকমিশনার দেব মুর্খাজী বিবিসি বাংলাকে মূলত প্রতিবেশীদের কথা জানতে ও ব্যক্তিগতভাবে পরিচিত হতেই নতুন পররাষ্ট্রসচিব এ প্রতিবেশী দেশগুলো সফর করছেন বলেই মনে করেন তিনি। তাই আমি এ সফরকে সার্কের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখছিনা, আমি মনে করি এটি একটি ভারতীয় প্রচেষ্টা।দেব মূখার্জী, বাংলাদেশে ভারতের সাবেক হাই কমিশনার এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “সার্কের চেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ হলো ভারত প্রতিবেশীদের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে চায়। তাই আমি এটা সার্কের দৃষ্টিকোণ থেকে দেখছিনা, আমি মনে করি ভারতীয় প্রচেষ্টা”। মি. মূখার্জী বলেন ভারতে নতুন সরকার দায়িত্ব গ্রহণের পরে প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদী পরিষ্কার জানিয়েছেন যে এ অঞ্চলের প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে সুসম্পর্ক রাখা বা গড়ে তোলা তার একটি প্রধান লক্ষ্য। দায়িত্ব গ্রহণের সময় প্রতিবেশীদের আমন্ত্রণ করেছিলেন এবং অনেকেই গিয়েছিলেন। “ভারতের নতুন সরকার বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে প্রতিবেশীদের সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলার, নতুন পররাষ্ট্র সচিবকে তিনি পাঠাচ্ছেন যাদের সাথে আগামী দিনে কাজ করতে হবে। যাতে করে একটি পরিচয় গড়ে উঠে”। তিনি আরও বলেন ভারতের পররাষ্ট্রসচিব বিভিন্ন দেশে যাচ্ছেন তাদের কি বলার আছে সেটা জানতে ও ব্যক্তিগতভাবে পরিচিতি হতে। এতে বিশেষ কোন দেশের লাভ হবে বিষয়টা সেভাবে দেখা উচিত হবেনা। বাংলাদেশে বেশ কিছুদিন ধরে রাজনৈতিক অস্থিরতা চলছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের সমর্থন বিশেষ করে ভারতের সমর্থনের বিষয়টি বেশ গুরুত্বপূর্ণ হয় উঠেছে এ বিষয়ে দেব মূখার্জী বলেন ভারতের সমর্থনের প্রশ্ন নয় তিনি যাচ্ছেন পররাষ্ট্রসচিব হিসেবে। এটা রাজনৈতিক সফর নয়। “তিনি শুধু বাংলাদেশ নয় পাকিস্তানেও যাচ্ছেন। কোন সমর্থন জানাতে নয়, ব্যক্তিগত পরিচিতির জন্যই তিনি যাচ্ছেন”। দ্বিপাক্ষিক বিষয় গুলোর বিষয়ে তিনি বলেন সীমান্ত চুক্তি ও তিস্তার পানি বণ্টনের বিষয় ভারত সরকার তো প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। নিশ্চয়ই এসব বিষয় সফরে আলোচিত হবে।

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here