জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইদ্রিস আলী ঢাকায় নেয়া হয়েছে

0
181

2 (6)সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট নগরীতে আলোচিত ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ (৩১) খুনের ঘটনায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত থাকার সন্দেহে ফটোগ্রাফার ইদ্রিস আলীকে গ্রেফতার করেছে অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি) পুলিশ। ইদ্রিসকে ৭ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। তার দেওয়া তথ্যমতে, ঘাতক গ্রেফতার, অস্ত্র উদ্ধারে অভিযান চলছে। গত রবিবার রাত ২ টার দিকে নিজ বাড়ী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ধৃত উদ্রিস আলী এয়ারপোর্ট থানার ফতেগড় গ্রামের মোহাম্মদ ইলিয়াছ আলীর পুত্র। সে স্থানীয় একটি পত্রিকার ফটোগ্রাফার বলে জানা গেছে। সোমবার সিআইডি পুলিশ গ্রেফতারকৃত ইন্দ্রিস আলীকে সিলেটের মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (আমলী-২ আদালত) ফারহানা ইয়াসমিনের আদালতে হাজির করে। তার বিরুদ্ধে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়। এ সময় আদালত রিমান্ড শুনানী শেষে তার ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর পর সিআইডি দল ধৃত ইদ্রিসকে নিয়ে সাদা মাইক্রোবাসে ঢাকায় রওয়ানা হয়। রিমান্ড আবেদনে ঢাকা সিআইডি অর্গানাইজ্ড ক্রাইমের পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) আরমান আলী উল্লেখ করেন, ‘গত ১২ মে অনন্ত বিজয় দাশ খুনের ঘটনার পরপর সকাল ১০ টা ২৬ মিনিটে জঙ্গী সংগঠন আনসারউল্লাহ বাংলা টিম অত্র হত্যার দায় স্বীকার করে টুইটারে মৃত ভিকটিম অনন্ত বিজয় দাশের কফিনে মোড়ানো দেহের ছবিসহ বিবৃতি প্রদান করে। তিনি বলেন, মামলার তদন্তকালে প্রাপ্ত তথ্য-উপাত্ত মতে ও বিভিন্ন সোর্সের ভিত্তিতে জানা গেছে, গ্রেফতারকৃত সন্ধিগ্ধ আসামী মোঃ ইদ্রিস আলী এ ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িত রয়েছে।

প্রাথমিকভাবে সে জঙ্গী অপরাধী চক্রের সক্রিয় সদস্য বলে জানা গেছে। রিমান্ড আবেদনে পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) আরমান আলী এ ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন,জড়িত ঘাতকদের সনাক্ত ও ঘটনায় ব্যবহৃত অস্ত্রপাতি উদ্ধারের জন্য ধৃত ইন্দ্রিস আলীর বিরুদ্ধে সোমবার সিলেট মুখ্য বিচারিক হাকিম আদালতে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানান। এ সময় আদালত রিমান্ড শুনানী শেষে তার ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। পুলিশ পরিদর্শক (নিঃ) আরমান আলী বলেন, তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। মামলা সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্রে জানা গেছে, পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে গত শুক্রবার মামলার নথিপত্র বুঝে নিয়েছে সিআইডি।

এয়ারপোর্ট থানার ওসি (তদন্ত) ও মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা নূরুল আলম জানান, তারা সকল কাগজপত্র সিআইডি পুলিশকে বুঝিয়ে দিয়েছেন। এর আগে গত ২৫ মে পুলিশ সদর দপ্তর মামলাটি সিআইডি’র কাছে হস্তান্তরের তাগাদা দেয়। এদিকে, অনন্ত হত্যার এক মাসকে সামনে রেখে আগামী ১৩ জুন সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্টে সমাবেশ করবে সিলেটের প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল সমূহ।

উল্লেখ্য,গত ১২ মে ব্যাংকে যাওয়ার পথে নগরীর সুবিদবাজার এলাকায় নৃশংসভাবে খুন হন মুক্তমনা ব্লগার ও সিলেট গণজাগরণ মঞ্চের সংগঠক অনন্ত বিজয় দাস। এ ঘটনায় তার ভাই রতেœশ্বর দাস বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ৪ ব্যক্তিকে আসামী করে এয়ারপোর্ট থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। নং-১২ (১২-০৫-১৫)।

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here