গোবিন্দগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় আটক ৩ : ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে অস্ত্র উদ্ধার

0
170

23সিলেটের সংবাদ ডটকম: ছাতকে ছাত্রলীগের দু’গ্রপের সংঘর্ষের ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রহিমের পিতা গোবিন্দগঞ্জ লেগুনা স্ট্যান্ডের ম্যানেজার হাজী আমির আলী (৫৫)সহ ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়। সন্ধ্যায় গোবিন্দগঞ্জ পয়েন্টস্থ আব্দুর রহিম মালিকানাধীন ইতি টেলিকম সেন্টারে তল্লাশী চালিয়ে একটি শর্টগানসহ বিপুল পরিমাণ দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। আমির আলী গোবিন্দগঞ্জ-সৈদেরগাঁও ইউনিয়নের দিঘলী-চাকলপাড়া গ্রামের মৃত ওয়াহিদ আলীর পুত্র।

এ সময় একই গ্রামের মৃত ছমির উদ্দিনের পুত্র নুর উদ্দিন(২৫) ও দিঘলী গ্রামের সেলিম আহমদ (২৭) কে গ্রেফতার করে পুলিশ। গত বৃহস্পতিবার বাস ভাড়া নিয়ে ছাত্রলীগের দু’গ্র“পের সংঘর্ষে ছাত্র-পথচারীসহ ১০ব্যক্তি আহত হয়। এ ঘটনায় আহত তজম্মুল হক রিপন বাদী হয়ে শুক্রবার ছাতক থানায় হাজী আমীর আলীকে প্রধান আসামী করে দ্রুত বিচার আইনে একটি মামলা দায়ের করে। মামলার প্রেক্ষিতে পুলিশ শনিবার বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে হাজী আমির আলীসহ তাদের গ্রেফতার করে।

এ সময় ছাত্রলীগ নেতা আব্দুর রহিমের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ইতি টেলিকম সেন্টারে তালা ঝুলিয়ে দেয় পুলিশ। সন্ধ্যায় সহকারী কমিশনার(ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাছুম বিল্লাহর নেতৃত্বে ইতি টেলিকম সেন্টারে তল্লাশী চালিয়ে একটি শর্টগান, ৫টি রামদা, ১০টি লোহার পাইপ ও ১৪টি কাঠের রোল উদ্ধার করা হয়।

অভিযান চলাকালে উপজেলা চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, ইউপি চেয়ারম্যান হাজী সুন্দর আলীসহ এলাকার ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। ছাতক থানার অফিসার্স ইনচার্জ হারুনুর রশীদ চৌধুরী অস্ত্র উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here