সুনামগঞ্জের টেংরাটিলা গ্যাসফিল্ড বিস্ফোরণের ১০ বছর আজ

0
588

02সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সুনামগঞ্জের টেংরা টিলা গ্যাস ফিল্ড বিস্ফোরণের ১০ বছর আজ। সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার টেংরাটিলা গ্যাস ফিল্ডে ২০০৫ সালের ২৪ জুন রাত ২ টায় গ্যাস ফিল্ডে দ্বিতীয় দফার ভয়াবহ বিষ্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তবে বিষ্ফোরণের ১০বছর পরও ফিল্ডের আশ-পাশে বুদ বুদ করে গ্যাস বের হচ্ছে।

পুকুরের পানি, ফসলের জমি, ঘরের চুলো, টিউবয়েলের পাইপ, নরম মাটি দিয়ে বের হচ্ছে গ্যাস। গাছ-গাছালি এখনো পুড়ছে। প্রশাসনের লোকজন বলছেন, ‘গ্যাস উত্তোলন করে সরবরাহ না করা পর্যন্ত চাপ কমবে না’। কিন্তু কবে এই ফিল্ডে গ্যাস উত্তোলন হবে এই তথ্য জানা নেই স্থানীয় প্রশাসনের। যদিও প্রশাসনের পক্ষ থেকে গ্যাস ফিল্ড এলাকায় কোন দুর্ঘটনা না ঘটার আশ্বাস দেওয়া হচ্ছে তারপরও এলাকাবাসী এখনও বিষ্ফোরণ আতঙ্কে আছেন।

২০০৫ সালের সাত জানুয়ারী রাত ১০ টায় টেংরাটিলা গ্যাসফিল্ডে প্রথম দুর্ঘটনা ঘটেছিল। আগুনের তাপে ওই দিন গভীর রাতেই গ্যাসফিল্ডের প্রডাকশন কূপের রিগ ভেঙ্গে আগুন ২০০ থেকে ৩০০ ফুট ওঠানামা করছিল। পরে এক মাসেরও বেশী সময় জ্বলার পর আপনা-আপনি নিভে আগুন। দ্বিতীয় দফা বিস্ফোরণ ঘটেছিল একই বছরের ২৪ জুন রাত ২ টায়। মধ্য রাতে নাইকো’র তরফ থেকে প্রথমে বিপদ সংকেত বাজানো হয়।

পরে রাত তিনটায় নাইকো’র প থেকে লোকজনকে এলাকা ছেড়ে তিন কিলোমিটার দূরে চলে যাবার পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল। রাত সাড়ে তিনটায় দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠা আগুন ১০ কিলোমিটা এলাকাজুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়েছিল। কূপ এলাকার তিন কিলোমিটার দূরেও ভূ-কম্পন অনুভূত হয়েছিল। দু’দফা অগ্নিকান্ডে গ্যাসফিল্ডের তিন বিসিক গ্যাস পুড়ে এবং ৫.৮৯ থেকে কমপে ৫২ বিসিক গ্যাসের রিজার্ভ ধ্বংস হওয়াসহ আশপাশের টেংরাটিলা, আজবপুর, গিরিশনগর, কৈয়াজুরি, টেংরাবাজার এবং শান্তিপুরের মানুষের ঘরবাড়ী, গাছগাছালি ও হাওরের ফসলি জমি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলাম বলেছেন, ‘টেংরাটিলায় যে ব্লো-আউট হচ্ছে, এটি বিপদের কিছু নয়, গ্যাস উত্তোলন করে সরবরাহ্ না করা পর্যন্ত গ্যাসের চাপ থাকবেই। কানাডিয়ান কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে মামলা চলছে, এই মামলা নিস্পত্তির অপেক্ষা করা হচ্ছে’।

(Visited 35 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here