সিলেটে ছাত্রদলের দুই গ্রুপ ফের মুখোমুখি

0
185

0 (7)সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: প্রায় বছরখানেক আগে কেন্দ্র থেকে ঘোষণা করা হয়েছিল সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের কমিটি। এরপর থেকেই কমিটির পক্ষে-বিপক্ষে দুটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়েন দলের নেতাকর্মীরা।

এ নিয়ে নিজেদের মধ্যে সংঘাত-সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটে। কমিটি ঘোষণার জের ধরে সিলেট ছাত্রদলের সেই বিরোধ এখনো বিদ্যমান। বিএনপি নেতারা উদ্যোগ নিয়েও ছাত্রদলের বিরোধ নিষ্পত্তি করতে ব্যর্থ হন।

এমতাবস্থায় আগামী ৩১ আগস্ট সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের কর্মীসভাকে ঘিরে ছাত্রসংগঠনটির অভ্যন্তরীণ বিরোধ মাথাচাড়া দিয়ে ওঠেছে। এ নিয়ে ফের সংঘাতের আশঙ্কা করছেন নেতাকর্মীরা। উভয় গ্রুপই একই স্থানে কর্মীসভা আহ্বান করায় শেষ পর্যন্ত প্রশাসন কর্তৃক ১৪৪ ধারা জারির আশঙ্কা করছেন দলের নেতাকর্মীরা।

কমিটি পক্ষের অভিযোগ ছাত্রদলের পূর্ব নির্ধারিত কর্মীসভা বানচাল করতে দলের মধ্যে ঘাপটি মেরে বসে থাকা ক্ষমতাসীন দলের দালালরা উঠেপড়ে লেগেছে। তারা আওয়ামী লীগ নেতাদের মাধ্যমে প্রশাসন ম্যানেজ করে কর্মীসভা বানচালের চেষ্টা করছে। দলীয় সূত্রে জানা যায় রাজপথে ছাত্রদলের উভয়পক্ষ মারামারিতে লিপ্ত থাকলেও বিরোধ নিষ্পত্তির কোন উদ্যোগ নেননি সিলেট বিএনপির নেতারা।

বরঞ্চ অনেক নেতাই নেপথ্যে থেকে কমিটির পক্ষে-বিপক্ষে কলকাঠি নেড়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে সরকারবিরোধী বিগত আন্দোলনেও। শেষ পর্যন্ত গত রমজানে বিএনপি নেতারা ছাত্রদলের বিবদমান দুটি পক্ষের সাথে আলাদভাবে বসে বিরোধ নিষ্পত্তির চেষ্টা করেন। ছাত্রদল নেতৃবৃন্দকে শান্তিপূর্ণভাবে কর্মসূচী পালনের নির্দেশ দেন তারা। কিন্তু ব্যর্থ হয় বিএনপি নেতাদের এই চেষ্টা।

এমতাবস্থায় আগামী ৩১ আগস্ট জেলার গোলাপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের কর্মীসভা নিয়ে আবারও উভয়পক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়েছেন। উপজেলা সভাপতি মনিরুজ্জামান উজ্জ্বলকে ওইদিন কর্মীসভা আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছেন জেলা ছাত্রদলের কমিটি পক্ষ। অন্যদিকে একইদিন পাল্টা কর্মীসভার ডাক দিয়েছেন ছাত্রদলের বিদ্রোহী পক্ষের অনুসারী উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ। এ ফের সংঘাত-সংঘর্ষের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে গোলাপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল বলেন, ‘যারা পাল্টা কর্মীসভা ডেকেছে, তারা আওয়ামী লীগের দালাল। যে কোন মূল্যে কর্মীসভা সফল করা হবে। উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমদ বলেন, ‘দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদের না জানিয়ে কর্মীসভা ডাকা হয়েছে। এজন্য তৃণমূল নেতাকর্মীদের নিয়ে আমরাও পাল্টা কর্মীসভা ডেকেছি।

সিলেট ছাত্রদলের বিদ্রোহী পক্ষের নেতা, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুল হক চৌধুরী বলেন, ‘গোলাপগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক সেলিম কর্মীসভার আয়োজন করেছেন। সেখানে জেলা ছাত্রদলের সাবেক কমিটির নেতারা অংশ নেয়ার কথা রয়েছে।

জেলা ছাত্রদলের সভাপতি সাঈদ আহমদ বলেন, ‘দলের দুঃসময়ে যারা বিভেদ সৃষ্টির চেষ্টা করবে তারা দালাল হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক আবদুর রাজ্জাক বলেন, ‘ছাত্রদলকে এক কাতারে নিয়ে আসতে গত রমজানে আমরা বসেছিলাম। তাদেরকে সহাবস্থানের মাধ্যমে শান্তিপূর্ণভাবে কাজ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। প্রয়োজনে ছাত্রদল নেতৃবৃন্দকে নিয়ে আমরা আবারও বসবো।

(Visited 2 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here