সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগে চলছে গ্রুপ পরিবর্তনের হিড়িক

0
721

0 (18)সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে পদ পাওয়ার আশায় চলছে গ্রুপ পরিবর্তনের হিড়িক। এক গ্রুপ থেকে অন্য গ্রুপে ভাল পদে স্হান করে নেয়াটাই পরিবর্তনের মুল উদ্দেশ্য বলে জানা গেছে। সিলেট ছাত্রলীগে গ্রুপিং নতুন কোন বিষয় নয়। অতিথ ইতিহাস ঘাটলে তা বুঝা খুবই সহজ।

কমিটিতে পদ বাগিয়ে নিতে সিলেট ছাত্রলীগের রাজনীতিতে এটা পুরনো বিষয়। কমিটি ঘোষনার আগে পদ প্রত্যাশীরা মিছিল, মিটিং শোডাউন করে শক্তির পরিচয় দিয়ে থাকেন। এ শক্তিতে যার অবস্হান বেশী তিনিই হন পদের অধিকারী। এরি ধারাবাহিকতায় এবারও তার ব্যতিক্রম হচ্ছেনা। গ্

রুপ ভারী করতে গ্রুপে ঢুকানো হচ্ছে পরিচিত মুখদের। অপরদিকে নেতাদের আশির্বাদে পদ প্রত্যাশীরা গ্রুপ পরিবর্তন করছেন। তাই আওয়ামীলীগ নেতারাও এ সুযোগে বিভিন্ন পদের লোভ দেখিয়ে নেতাকর্মীদের নিজেদের দলে ভেড়ানোর চেষ্টা করছেন। ২০১৪ সালের ৮ সেপ্টেম্বর সিলেট জেলা ছাত্রলীগের ১০ সদস্যের কমিটি ঘোষনা করা হয়।

২০১৫ সালের ২০ জুলাই মহানগর ছাত্রলীগের ৪ সদস্যের কমিটি অনুমোদন দেয় কেন্দ্রিয় কমিটি। এ দুটি কমিটির শিগগিরই পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন হতে যাচ্ছে বলে ছাত্রলীগের একাধিক সুত্র জানিয়েছে। সিলেট ছাত্রলীগের রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করে আসছেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল (দর্শন দেউড়ি গ্রুপ), উপ-দফতর সম্পাদক বিধান কুমার সাহা (কাশ্মীর গ্রুপ), শিক্ষাবিষয়ক সম্পাদক আজাদুর রহমান আজাদ (টিলাগড় গ্রুপ), ও জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন খান (তেলিহাওর গ্রুপ)।

গতবার জেলা ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি গঠনের সময়ও এ চারটি গ্রুপ শীর্ষপদগুলো ভাগ-বাটোয়ারা করে নেয়। এ চারটি গ্রুপের পর এবার নতুন আরেকটি গ্রুপ তৈরী হয়েছে। সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ গ্রুপ। এছাড়া মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক পিযুষ কান্তি দে’ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদ বাগিয়ে নেন তার গ্রুপে।

পুরনো গ্রুপের মধ্যে নাসির উদ্দিন খান ও আজাদুর রহমান আজাদ জেলা কমিটিতে এবং শফিউল আলম নাদেল ও বিধান কুমার সাহা মহানগর ছাত্রলীগের শীর্ষপদগুলো ধরে রেখেছিলেন নিজেদের অনুসারীদের মাঝে। এবার এ ধারা ভেঙে মহানগর ছাত্রলীগের শীর্ষপদে ভাগ বসিয়েছেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ।

নিজের নিয়ন্ত্রণে ছাত্রলীগের নতুন গ্রুপ সৃষ্টি করে বাগিয়ে নিয়েছেন মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক পদ। ছাত্রলীগে নতুন করে দুইটি গ্রুপ সৃষ্টি হওয়ায় হিসেব কষতে শুরু করেছেন নেতাকর্মীরা। পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে কাঙ্খিত পদ পেতে তারা শুরু করেছেন গ্রুপ বদল। তবে প্রথমবারের মতো ছাত্রলীগের একটি গ্রুপের দায়িত্ব নিয়ে মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক পদ বাগিয়ে নেয়ায় এখন আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আসাদ উদ্দিন আহমদ গ্রুপ।

পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদের প্রভাব থাকতে পারে এমন সম্ভাবনা থেকে অনেক নেতাকর্মী তার নিয়ন্ত্রণাধীন ছাত্রলীগের গ্রুপে যোগ দিতে শুরু করেছেন।

 

(Visited 27 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here