হারিয়ে যাচ্ছে হালের লাঙ্গল বলদ

0
1342

6সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: একসময় লাঙল আর হালের বলদ ছাড়া চাষের কথা ছিল অকল্পনীয়। কিন্ত কালের আবর্তে হারাতে বসেছে সেই লাঙল আর হালের বলদ। বর্তমান যান্ত্রিক সভ্যতার যুগে তার বদলে জায়গা করে নিয়েছে আধুনিক পাওয়ার টিলার বা ট্রাক্ট্রর।

আধুনিক যন্ত্রের সাহায্যে চাষাবাদের কারণে সময়, শ্রম ও অর্থ সাশ্রয় হওয়ায় এর ব্যবহারে কৃষকের আগ্রহ বেড়েছে। এর ফলে প্রয়োজন ফুরিয়ে এসেছে সেই ঐতিহ্যবাহী কৃষি সমঞ্জামের। এদিকে লাঙল-মইসহ কৃষি সরঞ্জাম তৈরির সাথে সংশ্লিষ্টরা দিন দিন বেকার হয়ে যাচ্ছেন।

তবে পুরনো সেই ঐহিত্য ধরে রাখার নিরন্তর চেষ্টায় এখনো জেলার কিছু কিছু হাট-বাজারে ওই সকল কৃষি সরঞ্জামের পসরা সাজিয়ে বসেন ব্যবসায়িরা। তবে সেগুলোর চাহিদা কম থাকায় সেই কারিগররা বাধ্য হয়েই চলে যাচ্ছেন ভিন্ন পেশায়। অথচ এমন একদিন ছিল প্রতিটি ফসল লাগানোর মৌসুমে এসব কৃষি সরঞ্জাম তৈরির কারিগরের ব্যাপক চাহিদা ছিল গ্রাম-বাংলার ঘরে ঘরে।

তারা পেত সম্মান আর কুড়াত গ্রামজুড়ে সুনাম। আর তাদের কদর ছিল আকাশ-ছোঁয়া। আজ সেই অতীত হারিয়ে হাজার বছর ধরে ব্যবহার হয়ে আসা লাঙলসহ অন্যান্য কৃষি সরঞ্জামের স্থান হবে জাদুঘরে। মানিকগঞ্জ সদর উপজেলার বেতিলা গ্রামের কৃষক আবুল কাশেম বলেন, এক সময় লাঙল, জোয়াল, মই ও বলদ ছাড়া চাষাবাদ কল্পনা করা যেত না।

কিন্তু এখন কালের বিবর্তনে যান্ত্রিকতার এ যুগে সব হারিয়ে যাচ্ছে। দৌলতপুর উপজেলার হাটাইল গ্রামের কৃষক মফিজুল ইসলাম বলেন, লাঙ্গল বলদ দিয়ে চাষাবাদে প্রচুর সময় লাগার কারণে কৃষকরা ট্রাক্টর দিয়ে হাল চাষ করে। ট্রাক্টর দিয়ে এক বিঘা জমি চাষ করতে খরচ হয় ৮‘শ থেকে ১ হাজার টাকা। এক বিঘা জমি চাষে সময় লাগে ৩/৪ ঘন্টা।

এদিকে বদল দিয়ে সেই পরিমান জমি চাষ করতে খরচও অনেক বেশি লাগতো। সময় লাগতো প্রায় পুরো দিন। একই গ্রামের কৃষক আয়নাল মিয়া বলেন, আগে তিনি মাসে অন্তত ২০/২৫টি হাল বিক্রি করতাম। এখন মাসে পাঁচটি হালও বিক্রি করতে পারি না। মানুষ এখন হাল না কিনে ট্রাক্ট্রর দিয়ে জমি চাষ করায়।

এব্যাপারে জেলা কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মো: আলীমুজ্জামান মিয়া জানান, বর্তমান যুগ বিজ্ঞানের যুগ। এই যান্ত্রিক সভ্যতার যুগে মানুষ সময় ও অর্থ বাঁচানোর জন্যই ট্রাক্টর দিয়ে হাল চাষসহ আধুনিক যন্ত্রপাতি ব্যবহার করছেন।

(Visited 45 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here