পেঁপে ও তরমুজে হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে

0
327

01

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সুস্বাদু গ্রীষ্মকালীন ফল পেঁপে ও তরমুজে হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় ও ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখে। বিষয়টি নিয়ে গবেষণার পর করাচি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী এমনটাই দাবি করেছেন।

পেঁপে:- করাচি বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাগ্রিকালচার অ্যান্ড অ্যাগ্রিবিজিনেস বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী মরিয়ম নাসিম ও মুহাম্মদ কামরান নাসিমের গবেষণায় পেঁপে বীজের উপকারিতার বিষয়টিও উঠে আসে।

নাসিম বলেন, “অকার্যকর কিডনিকে সচল করতে পেঁপে বীজের রস একটি অপরিহার্য উপাদান। পেঁপের বীজে ফ্লাভোনোইডস ও ফিনোটিক নামক যে উপাদান রয়েছে তা কিডনি রোগের জীবাণুর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলে। এই পেঁপের বীজ দেহকে যেকোনো ধরনের জীবাণুর সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে ও পাকস্থলীকে সংক্রামক মুক্ত রাখে। বিষয়টি নিয়ে তিনি নাইজেরিয়ার কিছু শিশুর ওপর পরীক্ষা চালান।

এ সময় দেখা যায়, নাইজেরিয়ার প্রায় ৭৬.৭ শতাংশ শিশু সাত দিন একনাগাড়ে পেঁপে বীজের রস পান করে পাকস্থলীর সংক্রামক রোগ থেকে সম্পূর্ণ মুক্তি পায়। নাসিম বলেন, “জাপানের জনগণ বিশ্বাস করে, প্রতিদিন এক চা চামচ পেঁপে বীজের রস খেলে যকৃতের রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায় ও কাঁচা পেঁপে কাটার পর যে সাদা রস বের হয় শরীরের ক্ষতস্থানে তা লাগালে প্রাকৃতিকভাবে ক্ষত সেরে যায়।

পেঁপে বীজের রস প্রতিদিন খেলে চোখের জ্যোতি বৃদ্ধি পায়, ওজন কমে, উচ্চরক্তচাপ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়, শরীরের অভ্যন্তরীণ অবস্থাকে স্বাভাবিক রাখে ও কোষ্ঠকাঠিন্য দূর হয়। এছাড়া ধূমপায়ীদের শরীরে এমফিসেমা রোধে পেঁপে রক্ষা করে বলে নাসিম জানান।

তরমুজ:- প্রতিদিন এক টুকরো তরমুজ খেলে শরীরে ক্ষতিকারক কোলেস্টেরল বা চর্বি গঠনে বাধাগ্রস্ত হয়। ফলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে। এছাড়া ওজন নিয়ন্ত্রণেও তরমুজ বিশেষভাবে সাহায্য করে। আমেরিকার একদল গবেষক এমনটাই দাবি করেছেন। এক রিপোর্টে জানা যায়, বিষয়টি নিয়ে গবেষকরা কিছু ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা চালান।

এ সময় ইঁদুরগুলোকে অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার ও তরমুজ খেতে দেয়া হয়। পরে দেখা যায়, অতিরিক্ত চর্বিযুক্ত খাবার গ্রহণের পরও ইঁদুরগুলোর রক্তে ক্ষতিকারক লিপোপ্রোটিন বা এলডিএলের পরিমাণ কম হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। রক্তে এলডিএল চর্বির ফলে ধমনিতে পানি জমে। ফলে মানুষ হূদরোগে আক্রান্ত হয়।

আমেরিকার পারডু বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানান, পর্যবেক্ষণ করে দেখা যায়, নিয়মিত তরমুজ খেলে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং রক্তে ক্ষতিকারক চর্বি রোধে তা বিশেষ ভূমিকা পালন করে। তরমুজের রসের মধ্যে যে রাসায়নিক উপাদান রয়েছে তার সাহায্যে এটি সম্ভব বলে তারা জানান।

(Visited 4 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here