কমলগঞ্জে স্বামীকে বেঁধে স্ত্রীকে মারপিটের অভিযোগ

0
110

201 (48)সিলেটৈর সংবাদ ডটকম: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে স্বামীকে গাছের সাথে বেঁধে রেখে স্বামীর সামনেই স্ত্রীকে বিবস্ত্র করে বেদড়ক মারপিট করে উল্টো নির্যাতিত গৃহবধূর উপর নির্যাতনকারীরা থানায় অভিযোগ করেন।

আহত গৃহবধু কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গত (৩০ জুলাই) শনিবার উপজেলার পতনঊষার ইউনিয়নের নোয়াগাঁও গ্রামে রাত ৮টায় এ ঘটনা ঘটে।

কমলগঞ্জ থানায় দায়ের করা নির্যাতিতার লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পূর্ব বিরোধের জের ধরে গত শনিবার রাতে একই এলাকার গনি মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া ও সেলিম মিয়ার নেতৃত্বে একদল লোক তাকে (গৃহবধু নাসিমা বেগম-৩৫) কে কথা আছে বলে ঘর থেকে ডেকে বের করে টানা হেচড়া শুরু করে।

গৃহবধুর হাল্লা চিৎকারে তাঁর স্বামী আব্দুল আহাদ ভূঁইয়া ঘর থেকে বের হলে অভিযুক্ত সুমন ও সঙ্গীরা তাকে (আহাদ) গাছের সাথে বেঁধে রাখে। পরে স্বামীর সামনে গৃহবধুকে বিবস্ত্র করে লাঠি ও লোহার রড দিয়ে বেদড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহতাবস্থায় গৃহবধুকে উদ্ধার করে শনিবার রাতেই কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় নির্যাতিতা গৃহবধু পরদিন ৩১ জুলাই রোববার সুমন মিয়া, সেলিম মিয়াসহ চারজনের নাম উল্লেখ করে কমলগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন। নির্যাতিতা গৃহবধু অভিযোগ করে বলেন, আসামী সুমন মিয়া এলাকার চিহ্নিত নারী নির্যাতনকারী, চোর ও সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। ইতিপূর্বে নারী নির্যাতন মামলায় সে কারাভোগ করেছে।

এছাড়াও চুরিসহ নানা অপরাধের সাথে যুক্ত। তিনি আরও বলেন, শনিবার ঘটনার পরপরই আসামী সুমন তড়িঘড়ি করে উল্টো কমলগঞ্জ থানায় একটি মিথ্যে অভিযোগ দায়ের করেছে। নাম প্রকাশে অনচ্ছিুক সাবেক জনপ্রতিনিধিসহ এলাকার কয়েকজন লোক বলেন, অভিযুক্ত সুমন এলাকায় নানা অপরাধমুলক কার্যক্রমের সাথে সম্পৃক্ত।

স্থানীয় প্রভাবশালী এক জনপ্রতিনিধির নিজস্ব লোক বলে গ্রামবাসী সুমনের বিরুদ্ধে অভিযোগ করতে কেউ সাহস পাননা। নির্যাতিতা স্বামী আব্দুল আহাদ ভূঁইয়া বলেন, স্ত্রীর অবস্থা গুরুতর বলে সোমবার বিকালে তাকে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।

অভিযোগ বিষয়ে সোমবার দুপুরে মুঠোফোনে অভিযুক্ত সুমন মিয়া বলেন, তার উপর আরোপিত অভিযোগ ভিত্তিহীন। তিনি নাসিমার বাড়িতে গিয়ে হামলা করেননি। উল্টো নাসিমা তার স্বামীকে নিয়ে তাদের (সুমন) বাড়িতে হামলা করায় তিনি থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু সায়েম মোঃ আব্দুর রহমান বলেন, নাসিমার অভিযোগের তদন্ত চলছে। অভিযুক্তের করা অভিযোগ সম্পর্কে উপ পরিদর্শক আবু সায়েম মো: আব্দুর রহমান বলেন, তার কাছে এ ধরনের কোন অভিযোগ এখনও আসেনি। আসলে সেটিও তদন্ত করে দেখা হবে। মৌলভীবাজারের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মোল্লা মোঃ শাহীন বলেন, বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(Visited 1 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here