পানি পানে মেদ কমে

0
223

32

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বাড়তি মেদ নিয়ে অনেকেই থাকেন টেনশনে। কত চেষ্টাই না করেন অতিরিক্ত ভুরি কমাতে। তাদের জন্য সুখর আছে! হ্যাঁ, সুখবরই বটে। গবেষকরা বলছেন, যাদের ওজন বাড়ছে চড়চড় করে, তারা শুধু পানীয় পান করেই কমিয়ে নিতে পারেন বাড়তি ওজন বা মেদ৷

তবে কোনো সাধারণ পানি নয়। তাহলে? জেনে নিন নিচের রেসিপি থেকে। ড্রিঙ্ক ১: উপকরণ- শসা, পাতিলেবুর চাকা চাকা করে কাটা, আদা কুচি এবং দারচিনির টুকরো, পুদিনা পাতা।

যা করবেন- এক বোতল পানির মধ্যে এই সব জিনিস একসঙ্গে ভিজিয়ে রাখুন। সারা রাত রেখে দিন। পরের দিন সকালে উঠে পানিটা ছেঁকে বের করে নিন। সারাদিন ধরে যখন ইচ্ছে হবে এই পানিটা খেতে পারেন। কিছুদিনের মধ্যেই দেখবেন ওজন ঝরছে ঝরঝর করে!

ড্রিঙ্ক ২: উপকরণ- আনারস টুকরো করে কাটা, আদা কুচি, মধু, পাতিলেবুর রস এবং পুদিনা পাতা। যা করবেন- পাতিলেবুর রস ছাড়া সব উপকরণ পানির মধ্যে দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। বেশ অনেকক্ষণ পরে পানি ছেঁকে বের করে নিয়ে এক চামচ পাতিলেবুর রস তার সঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে খেতে পারেন। ড্রিঙ্ক ৩: উপকরণ- ১/৪ চামচ গোলমরিচ গুঁড়ো, তিন টেব্ল চামচ পাতিলেবুর রস আর এক টেব্ল চামচ মধু।

যা করবেন- সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ড্রিঙ্কটা তৈরি করে রেখে দিন। এক থেকে দু’মাস দিনে দু’বার করে নিয়মিত এই ড্রিঙ্ক খেলে ওজন কমতে বাধ্য। বিশেষ করে আপনার প্রধান শত্রু যদি হয় পেটের মেদ। ড্রিঙ্ক ৪: টমেটোটা মিক্সারে হালকা গরম জলের সঙ্গে ব্লেন্ড করুন। তারপর ছেঁকে নিয়ে মধু মিশিয়ে নিন বা গোলমরিচ গুঁড়ো মেশাতে পারেন।

সকালে উঠে খালি পেটে এই ডিটক্স ড্রিঙ্কটি ঢকঢক করে খেয়ে নেওয়ার অভ্যেস করলে সুফল পাবেন এক থেকে দু’মাসের মধ্যেই! ড্রিঙ্ক ৫: উপকরণ- আধ টেব্ল চামচ কারি পাতা বাটা, আধ টেব্ল চামচ পাতিলেবুর রস, আধ টেব্ল চামচ মধু। যা করবেন- সব উপকরণ হালকা গরম জলের সঙ্গে মিশিয়ে রোজ সকালে খালি পেটে খেতে হবে।

টানা তিনমাস এই অভ্যেস করলে আপনি ফ্যাট টু ফিট হবেন নিশ্চিত! স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা বলছেন, এসব ড্রিঙ্কগুলো শরীরকে ডিটক্স করতে সাহায্য করে। তাই ওজন কমানোর পাশাপাশি কোনও ড্রিঙ্ক ব্লাড সুগার লেভেল কমায় তো আবার কোনওটা কোলেস্ট্রল। তাই ফিট চেহারার সঙ্গে পেয়ে যাবেন ফিটম ফিট স্বাস্থ্য একদম ফ্রি! -ইন্টারনেট

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here