কারিগরি খাতের ৫৮১ জনকে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে চীন

0
90

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বাংলাদেশের কারিগরি খাতের ৫৮১ জন শিক্ষক-কর্মকর্তাকে পর্যায়ক্রমে প্রশিক্ষণ প্রদান করবে চীন। শুক্রবার থেকে চীনের গুয়াংজো ইন্ড্রাস্টি ও ট্রেড টেকনিশিয়ান কলেজে প্রথম ব্যাচের ১০ দিনব্যাপী বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ শুক্রবার সকালে এ প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন। শিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, শিক্ষা বাংলাদেশের অগ্রাধিকার খাত, কারিগরি শিক্ষা হলো অগ্রাধিকারের অগ্রাধিকার।

সরকার ইতোমধ্যে কারিগরি শিক্ষায় শিক্ষার্থী ভর্তির হার ১৪ শতাংশের উপরে উন্নীত করেছে। এ হার ২০২০ সালের মধ্যে ২০ এবং ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ শতায়শে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে জোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এ খাতের অগ্রগতি তরান্বিত করার লক্ষ্যে সরকার শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে ভাগ করে কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগ করেছে বলেও জানান তিনি।

চীন বাংলাদেশের পরীক্ষিত বন্ধু উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, চীন বাংলাদেশের শিক্ষা, যোগাযোগসহ বিভিন্ন খাতে উল্লেখযোগ্য অবদান রেখে চলেছে। কারিগরি খাতে এ প্রশিক্ষণ সহযোগিতা বাংলাদেশের প্রযুক্তিগত উন্নয়নে মূল্যবান ভূমিকা রাখবে। তিনি আরও বলেন, সিঙ্গাপুর সরকার ইতোমধ্যে বাংলাদেশের কারিগরি খাতের ৪২০ জন শিক্ষক-কর্মকর্তার প্রশিক্ষণ প্রদান করেছে এবং ২০১৯ সালের মধ্যে আরও ১ হাজার ১৫০ জনের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম সমাপ্ত করবে।

ভারতের সঙ্গেও এ ধরণের প্রশিক্ষণের বিষয় নিয়ে তৎপরতা চলছে। কারিগরি শিক্ষায় ৫৮১ জন শিক্ষক ও কর্মকর্তাকে প্রশিক্ষণ প্রদানের লক্ষ্যে গত নভেম্বর মাসে স্কিলস অ্যান্ড ট্রেনিং অ্যানহ্যান্সমেন্ট প্রজেক্ট ও চীনের গুয়াংজো ইন্ড্রাস্টি ও ট্রেড টেকনিশিয়ান কলেজের সঙ্গে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। এ চুক্তির আওতায় ২০ জন করে বিভিন্ন ব্যাচে শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের ১০ দিন ও ২১ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ প্রদান করা হবে।

প্রশিক্ষণ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ও কারিগরি শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অশোক কুমার বিশ্বাস, স্টেপ প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক সচিব (অতিরিক্ত সচিব) মো. ইমরান, এনএসডিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) এ.বি.এম. খোরশেদ আলম, স্টেপ প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক জয়দেব চন্দ্র সাহা ও প্রকৌশলী মো. নুরুজ্জামান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here