Daily Archives: Mar 8, 2017

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আফগানিস্তানে রাজধানী কাবুলের সর্ববৃহৎ সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসকের পোশাক পরিহিত ইসলামিক স্টেট ( আইএস) সদস্যদের হামলায় ৩০ জনেরও বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে।

আফগান কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বিবিসি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। বিবিসি বলছে, হাসপাতালের প্রবেশ পথে বিস্ফোরণ ঘটিয়ে বন্দুক ও গ্রেনেড নিয়ে সশস্ত্র জঙ্গিরা ভেতরে ঢুকে পড়ে।

পরে হাসপাতালের কর্মী ও রোগীদের ওপর গুলি ছোড়ে। সেনাবাহিনীর সঙ্গে কয়েক ঘণ্টার লড়াইয়ে কাবুলের সর্দার দাউদ হাসপাতালে হামলা চালানো জঙ্গিরা নিহত হয়। মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক তথাকথিত জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেট (আইএস) ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে। তবে জঙ্গিগোষ্ঠী তালেবান ওই হামলার সঙ্গে তাদের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই বলে দাবি করেছে।

দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, জঙ্গি হামলায় হাসপাতালের ৫০ জনেরও বেশি মানুষ আহত হয়েছে। আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি বলেছেন, ৪০০ শয্যার ওই হাসপাতালে হামলা ‘সব মানবিক মূল্যবোধ’ পদদলিত করেছে। তিনি বলেন, সব ধর্মেই হাসপাতালকে নিরাপদ হিসেবে মনে করা হয়। এই আক্রমণ পুরো আফগানিস্তানের ওপর।

স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে কাবুলের ওই হাসপাতালে হামলা চালিয়েছে আইএস। হাসপাতালের এক কর্মী আইএসের এক সদস্যকে সাদা কোট পরিহিত অবস্থায় কালাশনিকোভ রাইফেল নিয়ে বেরিয়ে যেতে দেখেছেন। ওই কর্মী বলেন, বন্দুকধারী হাসপাতালের নিরাপত্তারক্ষী, চিকিৎসক ও রোগীদের ওপর নির্বিচারে গুলি চালিয়েছেন।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলের একটি কূটনৈতিক এলাকার সামরিক হাসপাতালে হামলা চালানো হয়েছে। ওই হামলাকে কেন্দ্র করে বিস্ফোরণ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় কর্মকর্তারা।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র দৌলত ওয়াজিরি এএফপিকে জানিয়েছেন, সরদার দাউদ খান হাসপাতালে ওই হামলা চালানো হয়েছে। হামলাকারীরা হাসপাতালের ভেতরে প্রবেশ করেছিল। এর বেশি আর কিছু জানা যায়নি।

হাসপাতালের এক স্টাফ ফেসবুকে একটি পোস্টে লিখেছেন, ‘হামলাকারীরা হাসপাতালের ভেতরে। আমাদের জন্য প্রার্থনা করুন। এখনো পর্যন্ত কোনো জঙ্গী গোষ্ঠী ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে তালেবান জঙ্গিরা প্রায়ই আফগানিস্তানে এ ধরনের হামলা চালায়। মাত্র এক সপ্তাহ আগেই কাবুলের দু’টি নিরাপত্তা কম্পাউন্ডে তালেবানের আত্মঘাতী হামলায় ১৬ জন নিহত হয়।

0 65

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বাংলাদেশি নাগরিকদের জন্য ভিসা ব্যবস্থা সহজ করতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকার্তায় আমিরাতের প্রতিমন্ত্রী ড. মাইথা সালেম আল-শামসির সঙ্গে বৈঠকের সময় তিনি এ আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রীর ওই বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব এম শহীদুল হক বলেন, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর ওই আহ্বানের বিষয়ে মন্ত্রিসভায় সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে জানিয়েছেন আরব আমিরাতের প্রতিমন্ত্রী।

বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় স্বার্থ-সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন তারা। ইন্ডিয়ান ওশেন রিম এসোসিয়েশনে (আইওআরএ) সংযুক্ত আরব আমিরাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, সংস্থাটির পরবর্তী চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করবে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশ। আমিরাতের মেয়াদ শেষে বাংলাদেশ আইওআরএ’র চেয়ারম্যানের দায়িত্ব গ্রহণ করবে।

এর মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্কে নতুন গতি সঞ্চার হবে। আমিরাতের প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর জাপানের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নবু কিশিও শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন। এসময় জাপানের প্রতিমন্ত্রী সন্ত্রাস দমন ইস্যুতে বাংলাদেশের প্রশংসা করে জানান, আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে বাংলাদেশে অনুষ্ঠেয় ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়নের (আইপিইউ) সম্মেলনে জাপান প্রতিনিধিদল পাঠাবে।

জাকার্তা কনভেনশন সেন্টারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ভারতের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ভি কে সিংও সাক্ষাত করেছেন। এ সময় আগামী মাসে শেখ হাসিনার ভারত সফর নিয়ে আলোচনা করেন। পররাষ্ট্র সচিব প্রত্যাশা করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর সফল হবে।

এর আগে মঙ্গলবার আইওআরএ সামিটের সাধারণ বিতর্ক সেশনে প্রধানমন্ত্রী শান্তিপূর্ণ ও সমৃদ্ধ ভারত মহাসাগরের জন্য সামুদ্রিক সহযোগিতা জোরদার করতে নিবেদিত হয়ে কাজ করার জন্য এ অঞ্চলের নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি এ অঞ্চলের জন্য দক্ষ নাবিক পুল তৈরীতে বাংলাদেশে ভারত মহাসাগর কারিগরি ও বৃত্তিমূলক একটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনেরও প্রস্তাব করেন।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: মার্কিন হাউস অব রিপ্রেসেনটেটিভসে রিপাবলিকানরা বহু প্রতীক্ষিত স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচির একটি খসড়া প্রকাশ করেছেন। ওবামা কেয়ার বাতিলের জন্য এটি একটি বিকল্প বিল। সোমবার বহু প্রতীক্ষিত ওই খসড়া প্রকাশ করা হয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারণাকালীন প্রতিশ্রুতিগুলোর মধ্যে ওবামাকেয়ার বাতিল করার পরিকল্পনা ছিল। শপথ নেয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ওবামাকেয়ার বাতিল করেছিলেন ট্রাম্প।

ওবামাকেয়ার বাতিলের পর এর বিকল্প নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। অবশেষে বিকল্প স্বাস্থ্যসেবা প্রকাশ করেছে রিপাবলিকান দল। ওবামা কেয়ারের প্রস্তাবিত আইনে যারা স্বাস্থ্যসেবা কিনতে অপারগতা দেখাবেন তাদের জরিমানার বিধান ছিলো। কিন্তু সেই আইন এখন বাতিল করা হচ্ছে। ডেমোক্রেট সদস্যরা এই বিলের বিপক্ষে কঠোর অবস্থান নিলেও তা কোনো কাজে আসেনি।

তাদের মতে এই পরিকল্পনা স্বাস্থ্যসেবা খরচকে আরও বাড়িয়ে দেবে। ওবামাকেয়ার প্রায় ২০ মিলিয়ন মার্কিন নাগরিককে স্বাস্থ্যসেবা দিয়েছিলেন। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এই বিলটি আইনে কার্যকর করার জন্য কংগ্রেসের কাছে তুলে ধরবেন। এদিকে নতুন প্রস্তাবিত আইনটি নিয়ে খোদ রিপাবলিকানদের মধ্যেই বিভেদ দেখা দিয়েছে।

0 30

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, যারা বিনা অপরাধে কারাগারে আটক রয়েছেন তারা সংশ্লিষ্ট আটককারী কর্তৃপক্ষের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইতে পারেন। তাছাড়া যদি কেউ রাষ্ট্রের কাছে ক্ষতিপূরণ চাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেন তবে আইনে সে বিধানও রয়েছে।

দীর্ঘদিন ধরে আটক অপরাধীদের পরিসংখ্যান নিয়ে তাদের বিষয়ে সরকার ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিচ্ছে। বুধবার জাতীয় সংসদে প্রধানমন্ত্রীর জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে নূরুল ইসলাম মিলনের (কুমিল্লা-৮) প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা এসব কথা জানান।

পরে প্রশ্নোত্তর পর্ব টেবিলে উত্থাপন করা হয়। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বিকেল ৩টা ২২ মিনিটে সংসদের কার্যক্রম শুরু হয়। প্রধানমন্ত্রী সংসদকে জানান, যারা কারাগারে আটক রয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে মামলা চলমান। এসব মামলা তদন্তাধীন পর্যায়ে থাকতে পারে বা বিচারিক পর্যায়েও থাকতে পারে।

বিচারিক পর্যায়ে দীর্ঘসূত্রতা থাকলে এসব মামলায় কারাগারে আটক ব্যক্তিদের জামিনে মুক্তি প্রদানের বিষয়টি বিবেচনা করা সংশ্লিষ্ট বিচারকের এখতিয়ারাধীন। সরকার এসব মামলা দ্রুত বিচারের লক্ষ্যে বিভিন্ন ব্যবস্থা নিচ্ছে। এসবের মধ্যে রয়েছে দ্রুত বিচার আদালত ও ট্রাইব্যুনাল গঠনসহ মামলার বিচার কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার জন্য বিভিন্ন অবকাঠামোগত এবং সংস্কারমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ।

এছাড়া অপরাধীরা যাতে বিনা বিচারে দীর্ঘদিন আটক না থাকেন সে লক্ষ্যে বর্তমান সরকার তাদের দ্রুত বিচার সম্পন্ন করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বর্তমান সরকার দীর্ঘদিন ধরে আটক অপরাধীদের সংখ্যা জানার জন্য পরিসংখ্যান নিয়ে তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের উদ্যোগ নিচ্ছে।

সংসদ নেতা জানান, আমি জেলে থাকার সময় জানতে পারি যে, অনেক মানুষ বিনা অপরাধে জেলে আটক অবস্থায় আছে। এসব ব্যক্তিকে অবিলম্বে জেল থেকে মুক্ত করা প্রয়োজন। কিছু এনজিও এবং সরকারি জাতীয় আইনগত সহায়তা প্রদান সংস্থার মাধ্যমে আটক ব্যক্তিদের কারাগার থেকে মুক্ত করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে এবং এ প্রক্রিয়া চলমান। 

সিলেটের সংবাদ ডটকম: বিশ্বনাথ উপজেলার উত্তর বিশ্বনাথ দ্বিপাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক প্রভাংশু শেখর তালুকদারকে বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতি সহ প্রশ্ন পত্র ফাঁসের বিষয়ে অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে প্রমাণিত হওয়ায় কারণ দর্শানোর নোটিশ জারী করা হয়েছে।

সিলেট জেলা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে গত ৬ মার্চ এ কারণ দর্শানোর নোটিশ জারী করা হয়। শিক্ষা কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম স্বাক্ষরিত নোটিশে বলা হয়, বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও শিক্ষকগণ কর্তৃক দাখিলকৃত অভিযোগ গত ২২ জানুয়ারি জেলা শিক্ষা অফিসের গবেষণা কর্মকর্তা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা ও একজন সহকারী পরিদর্শক সরেজমিনে তদন্তকালে আনিত অভিযোগ প্রাথমিক ভাবে প্রমাণিত হয়।

তাতে বলা হয় ২০১৬ সালের ১০ম শ্রেণির টেষ্ট পরীক্ষার খাতায় অনৈতিক ভাবে নম্বর প্রদান, ২০১৬ সালের ৮ম ও ১০ম শ্রেণির প্রি-টেষ্ট পরীক্ষার প্রশ্ন পত্র ফাঁসে সংশ্লিষ্টতা, বিদ্যালয়ের শিক্ষকগণের সাথে দুর্ব্যবহার, অনৈতিক ভাবে প্রভাব বিস্তার, প্রধান শিক্ষকের যোগসাজসে বিভিন্ন পন্থায় অবৈধ ও অনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে শিক্ষকগণকে দমিয়ে রাখা, লেখাপড়ার সুষ্ট পরিবেশ বজায় রাখতে বিঘœ সৃষ্টি সহ অনৈতিক অশিক্ষক সুলভ আচরণের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

তাই পত্র প্রাপ্তির ৭ দিনের মধ্যে সশরীরে হাজির হয়ে জবাব দিতে বলা হয়েছে। নোটিশের একটি কপি বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষককে দেয়া হয়েছে। ২০১৩ সালে উক্ত সহকারী প্রধান শিক্ষক মসজিদকে গুদামঘর, ছাত্রীদের বোরকা পরা নিয়ে কটুক্তি করলে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী প্রতিবাদ মিছিল মিটিং সহ আন্দোলন করে।

একটি তদন্ত কমিটি গঠনের পর একজন শিক্ষক হিসাবে তাকে প্রথমবারের মতো ক্ষমা করে দেয়া হয়। কিন্তু উক্ত শিক্ষক কতিপয় লোকের প্ররোচনায় বেপরোয়া হয়ে ওঠে এবং বিদ্যালয়ের সুনাম নষ্ট সহ নানা অপকর্ম করছে। প্রায় ৬ মাস পূর্বে নানা অভিযোগ লিখিতভাবে দাখিল করা হলে অবশেষে এ কারণ দর্শানোর নোটিশ জারী করা হয়।

বিদ্যালয়ের পরিচালনা কমিটির সভাপতি তাজ উদ্দিন খান বলেন, প্রধান শিক্ষক ও সহকারী প্রধান শিক্ষক এলাকার অনেক কষ্টে প্রতিষ্ঠিত প্রাচীন এই বিদ্যালয়টিকে ধ্বংসের চেষ্টা করছেন। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নিতে হবে।

সিলেটের জালালাবাদ থানাথীন কালীরগাঁওয়ে গ্রামে ডাকাতি শেষে পলায়নকালে গণপিটুনিতে কালা মিয়া (৪০) নামের এক ডাকাত নিহত হয়েছে। নিহত ডাকাত কালা মিয়া কানাইগাটের তালবাড়ী পূর্ব দাওয়াদারী মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে।

পুলিশের সুরতহাল ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, বুধবার রাত আনুমানিক ২টা ৩০ মিনিটের সময় জালালাবাদ থানাথীন কালীরগাঁও এর সুরুজ মিয়ার বাড়িতে ডাকাতি শেষে সঙ্গ-পাঙ্গ নিয়ে পলায়নকালে সুরুজমিয়ার বাড়ীর লোকজন চিৎকার করায় এলাকাবাসী এগিয়ে আসে।

এসময় এলাকাবাসীর ধাওয়া খেয়ে জোরকুড়ির হাওরে আসলে এলাকাবাসীর সাথে ডাকাতদের সংঘর্ষ হয়। ডাকাতদের হামলায় এলাকার ৪জন লোক আহত হয়। আহতরা হলেন, কালীরগাঁও গ্রামের আলী আহমদ (১৬), দুদু মিয়া (২৬), রমজান আলী (২০), সালেহ আহমদ (১৩)। সংঘর্ষের এক পর্যায়ে ডাকাত কালা মিয়া ধরা পড়লেও তার সঙ্গীরা পালিয়ে যায়। এসময় এলাকাবাসীর গণপিটুনিতে গুরুতর আহত হয় ডাকাত কালা মিয়া।

পরে বুধবার সকালে পুলিশ এসে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।এদিকে কালামিয়ার মৃত্যুর খবর শুনে তার মরদেহ নিতে ওসমানী মেডিকেলে এসেছেন তার স্বজনরা। জালালাবাদ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আখতার হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন অন্যান্য ডাকাতদের গ্রেফতারে থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সিলেটের সংবাদ ডটকম: ফের সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলংয়ের মন্দিরের জুম এলাকায় পাথর উত্তোলনের গর্তে মাটি চাপা পড়ে এক শ্রমিক নিহত হয়েছে। নিহত শ্রমিক হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার ইছবপুর গ্রামের বাতির মিয়ার ছেলে মোস্তাকিন মিয়া (২০)।

সে সপ্তাহ খানেক ধরে জাফলংয়ের মোহাম্মদপুর এলাকায় কলোনীতে বসবাস করে আসছিল। স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায় গতকাল বুধবার সকালে মন্দিরের জুম এলাকায় পাথর উত্তোলনের একটি গর্তে শ্রমিকের কাজ করছিল মোস্তাকিন।

এসময় হঠাৎ করে গর্তটির পাড় ধসে পড়লে মাটি চাপা পরে ঘটনাস্থলেই নিহত হয় সে। খবর পেয়ে গোয়াইনঘাট থানার ওসি (তদন্ত) জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেন। এঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন ব্যক্তিকে আটক করেছে থানা পুলিশ।

আটক ব্যক্তিরা হলেন হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ইছবপুর গ্রামের আয়ুব উল্ল¬াহর ছেলে জারন আলী ও আব্দুল হামিদের ছেলে লেবু মিয়া। অন্যজন হলেন সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার রনারচর গ্রামের যতীন্দ্র দাশের ছেলে যতীশ দাশ। এব্যাপারে গোয়াইনঘাট থানার ওসি (তদন্ত) জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান পাথর উত্তোলনের ওই গর্তের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

0 14

সিলেটের সংবাদ ডটকম: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার কেরামতনগর চা-বাগানসহ বিভিন্ন জনের নিকট থেকে প্রায় কোটি টাকার অধিক হাতিয়ে গ্রেফতার হওয়া হিসাবরক্ষক মারুফের গতকাল সোমবার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

এর আগে সকালে কারাগার থেকে চা-বাগানের জেনারেল ম্যানেজারের দায়ের করা মামলায় মারুফকে বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মৌলভীবাজার সিআইডি পুলিশের এসআই আরিফুল ইসলাম আসামি মারুফের ৫ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেন।

দীর্ঘ শুনানি শেষে সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট হাসান জামানের আদালত আসামির ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মারুফ কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের আব্দুল হাই মাস্টারের ছেলে। জানা গেছে, মারুফ আহমদ (৪৫) বড়লেখার কেরামতনগর ও কুমারসাইল চা-বাগানের হিসাবরক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

চা-বাগানের দু’টি ব্যাংকের পৃথক ৫ অ্যাকাউন্টের চেকবই, হিসাবনিকাশ ছাড়াও ভূসম্পত্তির যাবতীয় কাগজপত্র তাঁর কাছে সংরক্ষিত ছিল। গত ১২ জানুয়ারি বাগান কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে হঠাৎ তিনি উধাও হয়ে যান। তাঁর ব্যবহৃত মোবাইলফোনও বন্ধ পাওয়ায় বাগানের জেনারেল ম্যানেজার মিজানুর রহমান গত ১৬ জানুয়ারি বড়লেখা থানায় জিডি করেন।

পরদিন ৫টি ব্যাংক হিসাবের স্টেটমেন্ট সংগ্রহের পর ১ কোটি ১ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনা ধরা পড়ে। এছাড়া বাগানের আরও ২০-২৫ লাখ টাকা গরমিল থাকার বিষয় নিশ্চিত হয়ে ১৮ জানুয়ারি জেনারেল ম্যানেজার মিজানুর রহমান মারুফসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি সিআইডি পুলিশে স্থানান্তরিত হয়।

এরপর সিআইডি পুলিশের নির্দেশে ডিএমপির শাহবাগ থানার এএসআই হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে গত সোমবার রাতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এদিকে চা-বাগানে দীর্ঘদিন চাকুরির সুবাদে মারুফ স্থানীয় বিভিন্ন পেশাজীবীর সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলেন। ব্যবসা-বাণিজ্য ও বাগানের সমস্যা তুলে ধরে বিভিন্নজনের নিকট থেকে তিনি আরো প্রায় অর্ধকোটি টাকা ঋণ নেন।

নিখোঁজ হওয়ায় তাঁর প্রতারণার ঘটনাগুলো ফাঁস হতে থাকে। বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জিআরও এএসআই বকুল হোসেন অর্থ প্রতারণা মামলায় মারুফ আহমদের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সিলেটের সংবাদ ডটকম এক্সক্লুসিভ: একটি বাসা, দুটি চুরি, একটি মামলা, ঐ মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ধর্ষন মামলা, পরে আপোষ, ফের ধর্ষন মামলা। এই মামলা মামলা খেলার নৈপথ্যে কি তা জানতে আমাদের অনুসন্ধানী টিম কাজ করে যা বের করেছে তা আজ আমরা পাঠকদের কাছে তুলে ধরলাম।

ঘটনাটি চলতি বছরের ৩১ জানুয়ারীর। সিলেট সদর উপজেলার ৫ নং টুলটিকর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের মৃত সৈয়দ আলী আহমদের ছেলে সৈয়দ শাহজাহান আহমেদের কথিত বাসায়। ঐ দিন রাতে সৈয়দ শাহজাহান আহমেদের (নিচতলা) দখলকৃত বাসা এবং ঐ বাসার মালিকের (২য় তলায়) একটি চুরির ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ২ ফেব্রুয়ারি সৈয়দ শাহজাহান আহমদ বাদী হয়ে সিলেট শাহপরান থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। যার নং-০১। মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, ঘটনার রাতে কিছু অজ্ঞাতনামা চোর তার এবং ঐ বাসার মালিক ফারুক উদ্দিনের বাসা চুরি করে। আর এ ঘটনায় বাসার মালিক ছাড়া তিনি বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা চোরদের বিরোদ্ধে মামলা করেন।

মামলার শেষে তিনি মিড়াপাড়ার মৃত তাহির আলীর ছেলে পুকন, একই এলাকার আজির, কালি, এরশাদসহ অজ্ঞাতনামাদের নাম উল্লেখ করে বলেন, তার সন্দেহ এরাই চুরি করেছে। এদিকে ২ ফেব্রুয়ারি পুলিশ পুকনকে আটক করে। ঐ সময় পুকন পুলিশকে জানায়, সে চুরি করে টাকার অর্ধেক ভাগ রাজিয়া বেগম কালির নিকট জমা রাখে। এ খবর জানাজানি হয়ে পড়লে কালি এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায়।

কিন্তু কেন এই চুরি আর কেনইবা মালিক ছাড়া দখলবাজদের মামলা তা অনুসন্ধানে একে একে সব তথ্য বের হয়ে আসে। স্হানীয় কয়েকজনের সাথে আলাপ করে জানা যায়, ঐ দিন সৈয়দ শাহজাহানের বাসায় যে চুরির ঘটনা ঘটে সেটি ছিল সাজানো নাটক! কারন ১২ ইঞ্চি গ্রিল কেটে কোনভাবে চোর ঘরে ঢুকতে পারেনা।

তাহলে প্রশ্ন কি ঘটেছিল সেদিন? আর সেই প্রশ্নের উত্তর খুজতে গিয়ে বের হয়ে আসে থলের বিড়াল। সুত্র থেকে জানা যায়, সৈয়দ শাহজাহান আহমদ ও জিয়ার রহমান সুমন মিলে বাসার মালিক ফারুক উদ্দিনের বাসা থেকে জায়গার ফর্সা ও দলিল চুরি করে সেই বাসা সৈয়দ শাহজাহানের নামে রেজিস্ট্রি করতেই এই চুরির নাটক। আর সেজন্য পুকনকে সুমন ও শাহজাহান ব্যবহার করে।

অপরদিকে পুকনকে ম্যানেজ করেন রাজিয়া বেগম কালি। কথা ছিল চুরি করতে গিয়ে যদি কোন সমস্যা সৃষ্টি হয় তাহলে সেটা দেখবেন কালি, সুমন ও শাহজাহান। কিন্তু পরদিন এলাকাবাসীর হাতে গনধোলাই খেযে পুকন আহত হয়ে ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি হন। আর সেখান থেকে পুলিশ পুকনকে আটক করে। আর এতে ক্ষেপে যান পুকনের স্ত্রী তাহেরা বেগম রত্না।

এদিকে আরেকটি সুত্র জানায়, এই মিথ্যে চুরির নাটক যখন এলাকাবাসী জানতে পারে তখন তড়িঘড়ি করে সুমনের পরামর্শে সৈয়দ শাগজাহান আহমেদ ৫ নং টুলটিকর ইউনিয়নের ২ নং ওয়ার্ডের আল-মোবারক হাউজিং এলাকার রাজিয় বেগম উরফে কালি, এরশাদ, আব্দুস সাত্তারের ছেলে (রাজিয়া বেগমের ভাই) আজিরকে আসামী করেন।

এদিকে কালি ও তার ভাইকে আসামী করার কারনে কালির প্রচোনায় পুকনের স্ত্রী তাহেরা বেগম রত্না গত ১৩ ফেব্রুয়ারি সৈয়দ শাহজাহন, জিয়াউর রহমান সুমন, আরিফসহ আরো কয়েকজনকে আসামী করে মাননীয় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল সিলেট আদালতে একটি ধর্ষনের অভিযোগ করেন। যার নং-১৬৫/২০১৭। অভিযোগে রত্না উল্লেখ করেন, তাকে সৈয়দ শাহজাহানের সহযোগীরা মিথ্যে কথা বলে একটি অজ্ঞাত স্হানে নিয়ে ধর্ষন করে।

পরে তিনি ঘটনাটি তার আত্বীয়-স্বজনদের জানালে ৪ ফেব্রুয়ারি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস (ওসিসি)তে ভর্তি করেন। এবং পর দিন ৫ ফেব্রুয়ারি রত্না বেগমকে ওসিসি থেকে রিলিজ দেয়া হয়। এই অভিযোগের তদন্ত করেন সিলেট শাহপরান থানার এসআই এনামুল হক। তিনি তার তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন জমা দেয়ার প্রাক্কালে শাহজাহান তড়িঘড়ি করে ভিকটিম রত্নার সাথে বিষয়টির আপোষ মিমাংসা করে ফেলেন। এবং তার স্বামীকেও ছাড়িয়ে আনবেন বলে জানান।

শাহজাহানের সাথে আপোষ মিমাংসা হওয়ার ফলে এবার তাহেরা বেগম রত্না একি তারিখের ঘটনার বর্ননা দিয়ে ছালাই, কালি ও আজিরসহ অজ্ঞাত ২/৩ জনের নামে গত ৫ ফেব্রুয়ারি মাননীয় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল সিলেট আদালতে ধর্ষনের অভিযোগ দায়ের করেন। যার নং-মামলা-২২২/২০১৭।

রত্না তার অভিযোগে উল্লেখ করেন, আসামীরা তাকে ধর্ষন করে। তিনি উল্লেখ করেন, গত ৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ২০ ফেব্রুয়ারি তাকে বিভিন্ন জায়গায় আটক করে ছালাই, আজিরসহ অন্যান্য অজ্ঞাতরা তাকে সৈয়দ শাহজাহান, সুমন, আরিফসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এবং তাকে টাকা দেয়া ও তার স্বামীকে জেল থেকে বের করে আনা হবে জানানো হয়।

পরে তার ইচ্ছার বিরোদ্ধে তাকে ধর্ষন করা হয়। এবং তাকে দিয়ে সৈয়দ শাহজাহান, সুমন, আরিফসহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে একটি মিথ্যে মামলা করায়। পরে ঐ আসামীরা রত্নাকে ৪ ফেব্রুয়ারি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজের ওসিসিতে ভর্তি করান বলেও তিনি অভিযোগে উল্লেখ করেন।

এখানে প্রশ্ন হলো একি ঘটনা এবং একি তারিখে রত্না বেগম কিভাবে দুটি ধর্ষন মামলা করেন? আর কি কারনে তিনি তার স্বামীর বিরুদ্ধে চুরির মামলার বাদী এবং তাকে যে ধর্ষন করেছে সে শাহজাহানের সাথে আপোষ করেন? তাহলে কি রত্নার দায়ের করা এসব মামলা মিথ্যে, বানোয়াট এমন প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

অপরদিকে সৈয়দ শাহজাহান তার মামলায় উল্লেখ করেন পুকন দীর্ঘ ১৮ বছর বিভিন্ন মামলায় জেল খেটেছে। পুকন বের হয়ে আসলে এলাকায় চুরি-ডাকাতি বৃদ্ধি পায়। তাহলে কি কারনে তিনি পুকনের স্ত্রীর সাথে আপোষ করলেন? পুকন যদি চুর/ডাকাত হয়ে থাকে তাহলে তার সাথে তিনি কেন আপোষ করবেন? আর কেনইবা পুকনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনলেন এ নিয়ে এলাকায় চলছে আলোচনা। অনেকে বলছেন, তাহলে পুকনের গডফাদার কি এরাই?

কে এই কালি:- জগন্নাথপুর থানার হবিপুর গ্রামের একটি দরিদ্র পরিবারের মেয়ে রাজিয়া বেগম উরফে কালি। একই গ্রামের জৈনক এক ব্যাক্তির সাথে তার বিয়ে হয়। পরে স্বামীর সাথে বনিবনা না হলে স্বামী তাকে তালাক দেয়। এরপর তিনি চলে আসেন সিলেটে। সিলেট এসে প্রতারনার মাধম্যে বিয়ে করেন টিলাগড় কল্যানপুরের মৃত মলই মিয়ার ছেলে সহজ সরল ছালাইকে।

বিয়ের পর কালি ও ছালাই মিয়ার সংসারে নেমে আসে অশান্তি। এ নিয়ে প্রতিদিন তাদের মধ্যে জগড়া হতো। এক পর্যায়ে কালি র‌্যাব-৯ এর সোর্স হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতে থাকেন। এমনকি তিনি এলাকার বিভিন্ন জনকে এই বলে হুমকি দিতে থাকেন, আমি র‌্যাবের লোক।

যে কাউকে মিথ্যে মামলায় র‌্যাব দিয়ে আটক করাতে পারি। অপরদিকে কালির ভাই আজিরের বিরুদ্ধে এলাকায় রয়েছে প্রচুর অবিযোগ। চুরি, ছিনতাই, ডাকাতিসহ নানা অপরাধের সাথে সে জড়িত বলে মিড়াপাড়ার কয়েকজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান।

0 21
আমাদের সম্মানিত পাঠক বৃন্দ, আপনাদের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে, আগামী ৩১ জুলাই থেকে প্রতি সোমবার প্রিন্ট আকারে বের হবে অনলাইন সিলেটের সংবাদ ডটকম এর...

0 1
সলিম আহমদ সলু: হারিয়ে যাচ্ছে এক সময়ের জনপ্রিয় এবং অতি গুরুত্বপূর্ণ ডাক বিভাগটি। আধুনিকতা আর ডিজিটালে চোয়ায় প্রায় মৃত্যুপথযাত্রী এই বিভাগটি। এই ডাক বিভাগটি...