Daily Archives: Mar 18, 2017

সিলেটের সংবাদ ডটকম এক্সক্লুসিভ: ফাঁস হলো সিলেট নগরীর টিলাগড়ে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা রাজনের উপর হামলার তথ্য। টিলাগড় যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও স্হানীয় বিশ্বস্হ কয়েকটি সুত্র থেকে জানা যায়, ঘটনার দিন হামলার টার্গেট ছিলেন সিলেট মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মুশফিক জায়গীরদার।

কিন্তু হামলার শিকার হন গোলাম রহমান চৌধুরী রাজন। তিনি ঐ সময় এগিয়ে আসলে হামলাকারিরা তাকে ও অন্য দুজনকে কুপিয়ে আহত করে চলে যায়। কেন এই হামলা আর কেনইবা টিলাগড়ের মতো ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগের মতো শক্তিশালী জায়গায় হামলাকারিরা হামলা করে সহজেই পালিয়ে গেল।

এমন প্রশ্নের উত্তর খুজতে গিয়ে বেরিয়ে এসেছে রাজনীতি নামক নোংরা খেলার কয়েকজন খেলোয়াড়দের নাম। আমাদের সুত্রের অনুসন্ধানে সেসব তথ্য পাওয়া গেছে। আমরা ধারাবাহিকভাবে তা পাঠকদের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করব। সুত্রমতে মুশফিক জায়গীরদারকে সরিয়ে দিতে পারলে টিলাগড় যুবলীগের আধিপত্য ধরে রাখার মুল উদ্দেশ্য নিয়েই মুলত হামলা চালানো হয়।

এখন প্রশ্ন কে সেই নাটের গুরু? আমাদের দীর্ঘ কয়েকদিনের অনুসন্ধান ও বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা যায়, এক সময়কার অস্ত্র ব্যবসায়ী, ছাত্রীশবির ও ছাত্রদলের গুপ্তচর বর্তমান যুবলীগের সিনিয়র সদস্য সুবেদুর রহমান মুন্নাই হলেন মুশফিক হঠাও চক্রান্তের মুল কারিগর। তার টার্গেট ছিল মুশফিককে সরাতে পারলে তিনিই হবেন যুবলীগের কান্ডারী। আর সে কারনে ভাড়াটে সন্ত্রাসীদের দিয়ে তিনি এ কাজ করিয়েছেন বলে কয়েকটি সুত্র থেকে জানা যায়।

এদিকে এই হামলার পর তেমন জোরালো কোন আন্দোলন না হওয়ারও তথ্য জানা গেছে। তথ্য মতে যারা হামলা করিয়েছিল, তাদেরকে কর্তা ব্যাক্তিরা ছিনেন। আর সেজন্য ‘কুল রাখি না শ্যাম রাখি ছেড়ে দে মা কেদে বাচিঁ’ এমন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। পরে অনেক ভেবে চিন্তে লোক দেখানোর জন্য প্রথমে শাপলা সংঘকে দিয়ে এবং তার কয়েকদিন পরে দায়সারা মনোভাব নিয়ে মানববন্ধন করা হয়।

শুধু তাইনা, রাজনের বাসা থেকে মাত্র কয়েকশ হাত দুরে থাকা নিরীহ একজনকে রাজনের উপর হামলার আসামী করা হয়। অপরদিকে আজলা নামক মুল আসামীকে মামলা থেকে বাচানোর লক্ষে বিদেশ পাঠিয়ে দেয়া হয়। তাহলে এখানে প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে ঐ আজলাটা কে?

এক সময়কার ছাত্রলীগের কান্ডারী রাজনকে সোহাগ নামক ঐ যুবক হামলা চালিয়ে আহত করেছে এটা নিয়েও দেখা দিয়েছে ধ্রুমজাল। মুলত যে বা যারা হামলা চালিয়েছে তাদেরকে টিলাগড়ের কর্তা ব্যাক্তিরাই অবশ্যই ছিনেন এমন মন্তব্যও করছেন অনেকে। অথচ এই ঘৃন্য কাজের শিকার হলেন গোলাম রহমান চৌধুরী রাজন। যে আজ প্রায় পঙ্গুঁত্ব জীবন যাপন করছেন। বর্তমানে রাজনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কলকাতা পাঠানো হয়েছে।

কে এই মুন্না: পুরো নাম সুবেদুর রহমান মুন্না। গ্রামের বাড়ি জগন্নাথপুর উপজেলায়। ১৯৯২ সালের শেষের দিকে তার এক আত্বীয়র মাধ্যমে সিলেট আসেন তিনি। এসে প্রথমে উঠেন পিরেরর বাজারে এক বাসায়। ওখান থেকেই শুরু তার পথ চলা। একসময় তিনি কাশ্মীর গ্রুপের সাথে নিজেকে জড়িয়ে নেন। তখন থেকে তিনি জড়িয়ে পড়েন অস্ত্র ব্যবসার সাথে।

আর সে কারনে ১৯৯৫ সালে মুন্নার সহযোগী টুলটিকরের আলাউদ্দিনের ছেলে সুমন, জকিগঞ্জের বর্তমান (চেয়ারম্যান) পিচ্চি সুমন ও কল্যানপুরের আফতাব মিয়ার ছেলে বাবুলসহ মুন্নাকে ১টি পাইপগান, ৪টি থ্রি নট থ্রি রাইফেলের গুলি, ৪টি কার্তুজ ও ৪টি রামদাসহ আটক করে পুলিশ। পরে প্রায় ৫ মাস জেল খেটে সে বের হয়ে এসে ফের অস্ত্রের ব্যবসা শুরু করে।

একসময় মুন্নাকে গুপ্তচরের অভিযোগে মেজরটিলা এলাকায় আটকিয়ে মারধর করেন তৎকালীন কয়েকজন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের কয়েকজন নেতা। এরপর তিনি চলে আসেন টিলাগড়ে। এখানে এসেও নিজের স্বভাব পাল্টাতে পারেননি তিনি। টিলাগড় গ্রুপের সকল খবরা খবর তিনি পাচার করতে থাকেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের কাছে। চলবে………………………………….   

0 868

সিলেটের সংবাদ ডটকম: নানা সমালোচনা ও বিভিন্ন অভিযোগে অভিযুক্ত সিলেট কোতয়ালী মডেল থানা ওসি সোহেল কয়েকদিন হলো বদলী হয়েছেন। কিন্তু এখনও তিনি তদবীর করে যাচ্ছেন ঐ থানাতেই থাকার। কোন কিছুতেই কাজ হচ্ছেনা। এদিকে তিনি বিদায় বেলা চমক দেখালেন।

এক মহিলা ইয়াবা ব্যবসায়ীকে আটক করার পর ৩ লক্ষ টাকার বিনিময়ে ইয়াবা গায়েব করে ঐ মহিলাকে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে।

কোতয়ালী থানা ও স্হানীয় সুত্রে জানা যায়, ১৭ মার্চ সিলেট নগরীর আম্বরখানা পেট্রোল পাম্পের সামন থেকে ২২শ পিছ ইয়াবাসহ পারুল নামের এক মহিলাকে আটক করেন সিলেট কোতয়ালী মডেল থানার এসআই খুরশেদ ও দুজন মহিলা পুলিশ।

এরপর থানায় নিয়ে আসেন ইয়াবা ব্যবসায়ী পারুলকে। থানায় নেওয়ার পর শুরু ধরদাম। এক পর্যায়ে ওসি সোহেল ৩ লক্ষ টাকার বিনিময়ে ইয়াবা ব্যবসায়ী পারুলকে ছেড়ে দেন এবং উদ্ধার হওয়া ইয়াবাগুলো গায়েব করে ফেলেন।

সুত্র থেকে জানা যায়, সোর্স শাহেদের মাধ্যেমে ইয়াবা উদ্ধারের দফারফা হয়।গ্রেফতারকৃত পারুল এসএমপি এলাকার চিহিৃত ফেনসিডিল ব্যবসায়ী সেলিমের স্ত্রী।এক সময় পারুল দেহ ব্যবসা করে তাহার জীবিকা নির্বাহ করতো।

পরে সে ফেনসিডিল ব্যবসা শুরু করে এবং বর্তমানে নগরীতে মহিলাদের দিয়ে ইয়াবা ব্যবসা করায় এবং নিজে ব্যবসা করে। এ নিয়ে সিলেট নগরী জুড়ে চলছে আলোচনা। কেউ কেউ বলছেন কোথায় ইয়াবা আর পারুল, কেনইবা ছেড়ে দিল পুলিশ। অনেকে বলছেন ইয়াবাও নাই পারুল ও নাই।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: দক্ষিণ সুরমা উপজেলার পিরোজপুরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মহিলা সহ দুইজন গুরুতর আহত হয়েছেন।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে। আহতরা হলেন পিরোজপুরের বাসিন্দা আকাশ মিয়ার স্ত্রী মোছাঃ ললি বেগম (৪৫) ও দক্ষিণ সুরমা ডিগ্রী কলেজের ছাত্র রেদুওয়ান আহমদ রাসেল (২২)।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ মার্চ বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে বিবাদী মালেক মিয়া (৩৫), পিতা-অজ্ঞাত সাং-উপশহর, থানা-শাহপরাণ ও কালাম (২০), পিতা-অজ্ঞাত, কদমতলী দক্ষিণ সুরমা, সিলেট সহ অজ্ঞাত আরো ৭/৮ জন ব্যক্তি আমার বাসার বাহিরে আসিয়া নাম ধরিয়া অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে।

আমি ঘরের দরজা খুলে উক্ত গালিগালাজের কারণ জিজ্ঞাসা করলে ১নং বিবাদী মালেক মিয়া আমাকে ধাক্কা দিয়া বিছানায় ফেলে প্রাণে মারার উদ্দেশ্যে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে রাখে এবং ২নং বিবাদী কালাম ঘরের দরজা বন্ধ করে দেয়। বালিশ চাপায় আমার শ্বাস বন্ধ হওয়ার উপক্রম হলে আমি ১নং বিবাদীকে পেটে লাথি মেরে ফেলে দিলে আমি প্রাণে রক্ষা পাই।

পরে ১নং বিবাদী ক্ষিপ্ত হয়ে তাহার কোমর হতে ধারালো ছুরি বের করে আমার পেটে ও বুকে ঘাই মারিলে পেটের ভুড়ি বের হয়ে আসে। এমতাবস্থায় আমি অজ্ঞান হয়ে পড়লে বিবাদী গংরা আমার ঘরে রক্ষিত সুকেশের ড্রয়ারে থাকা নগদ ২ লাখ ৫০ হাজার টাকা ও ৫ ভরি স্বর্ণালংকার লুট করে নেয় এবং ঘরের মূল্যবান জিনিসপত্র ভাংচুর করে ও আমাকে একটি কম্বলে পেচিয়ে বিছানায় ফেলে রাখে।

ঘরে ভাংচুরের শব্দ পেয়ে পাশের বাসার কলেজ ছাত্র রেদুয়ান আহমদ রাসেল এগিয়ে আসলে ১নং বিবাদী তার হাতে থাকা ছুরি দ্বারা তার বাম হাতের বাহুতে ঘাই মারিয়া রক্তাক্ত জখম করে এবং বিবাদীরা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। পরে রেদুয়ান আহমদ রাসেলের চিৎকার শুনিয়া প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে আমাকে ও রাসেলকে গুরুতর জখম অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে প্রেরণ করে।

বর্তমানে আমি হাসপাতালের ৪র্থ তলার ৬নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছি। শনিবার দুপুর থেকে আমার অবস্থার অবনতি ঘটলে আমাকে হাসপাতালের আই.সি ইউ’তে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। এ ঘটনায় গত ১৭ মার্চ শুক্রবার দক্ষিণ সুরমা থানায় ললি বেগম বাদী হয়ে মালেক মিয়া ও কালামের নাম উল্লেখ করে এবং ৭/৮ জনকে অজ্ঞাত রেখে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং-৮, তারিখ ১৭/০৩/ ২০১৭ইং।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ইথিওপিয়ান্স এয়ারলাইন্সের একটি বিমান লাহোরে জরুরি অবতরণ করেছে। তবে ইঞ্জিনের ত্রুটি বা বড় কোনো ধরনের ঘটনার জেরে বিমানটি জরুরি অবতরণ করেনি।

সামান্য একটি ঘটনার জের ধরেই শনিবার ওই বিমানটি জরুরি অবতরণ করেছে। বোয়িং-৭৭৭ বিমানটি আদ্দিস আবাবা থেকে বেইজিংয়ের উদ্দেশে যাত্রা করে। কিন্তু মাঝ আকাশে বিমানের দুই আরোহী ঝগড়া শুরু করে।

সে সময় বিমানটিতে ৩শ আরোহী ছিলেন। দুই যাত্রীর ঝগড়ার জেরে অতিষ্ঠ হয়ে শেষ পর্যন্ত স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৪০ মিনিটে লাহোরের আল্লামা ইকবাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিমানটি জরুরি অবতরণ করে। বিমান অবতরণের পর পরই বিমানবন্দরের নিরাপত্তা বাহিনী ওই দুই যাত্রীকে আটক করেছে।

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেটের বিয়ানীবাজারের আছিরগঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজের প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। তার অনিয়মের কারণে বিদ্যালয়টি ধবংেসর দ্বারপ্রান্তে। অবিলম্বে তাকে বিদ্যালয় থেকে প্রত্যাহার করা না হলে গ্রামে এনিয়ে ঘটে যেতে পারে অনাকাংঙ্খিত ঘটনা।

শনিবার সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে আয়োজিত সাংবাদিক সম্মেলনে গ্রামবাসীর পক্ষে এমন অভিযোগ করেন উপজেলার ১০নং উত্তর বাদেপাশা ইউনিয়নের আমকোনা গ্রামের মুক্তদির আলী লাল মিয়া।

সংবাদ সম্মেলনে অর্ধশতাধিক লোক উপস্থিত ছিলেন। লাল মিয়ার পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন আবুল কাসেম। বক্তব্যে বলা হয় হয়, প্রধান শিক্ষক হয়ে শিক্ষা অধিদপ্তরের কোন সার্কুলার ছাড়াই সাইনবোর্ড লাগিয়ে নিজে নিজে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন মো. শফিউল আলম। তিনি নিজের মত করে বিদ্যালয় পরিচালনা করছেন।

কলেজ শাখা থেকে সরকার নির্ধারিত ২৮’শ টাকা রেজিস্ট্রেশন ফি নেওয়ার কথা অথচ নেওয়া হয় ৪২‘শ টাকা করে। একইভাবে স্কুল শাখা থেকে নেওয়ার কথা ৮‘শ টাকা। নেওয়া হয় ১২’শ ৪০ টাকা। বর্তমানে বিদ্যালয়ের মাসিক ফি বাড়ানোর পায়তারা করছেন প্রধান শিক্ষক। সংবাদ সম্মেলনে উল্লেখ করা হয়, সঠিক সময়ে শিক্ষার্থী ও অনান্য শিক্ষকরা বিদ্যালয়ে আসলেও শফিউল আলম সিলেট নগরী থেকে গিয়ে হাজির হন সকাল সাড়ে ১১ টায়।

বিদ্যালয়ে নিয়মিত পাঠদান না করিয়ে এইচএসসি, এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোচিং ফি হিসাবে প্রতিমাসে এক হাজার টাকা করে নেন। এছাড়া খন্ডকালীন শিক্ষক নিয়োগের কথা বলে ম্যানেজিং কমিটির কাছ থেকে ৪০ হাজার টাকা নিয়েও ওই পদ সৃষ্টি করা হয়নি। এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রশংসাপত্র এবং মূল সনদপত্র নিতে ৫‘শ টাকা করে মোট ১‘হাজার টাকা নেওয়া হয়।

একইভাবে উপবৃত্তির টাকাও ব্যাংকে জমা করা হয়না। বিভিন্ন অভিযোগ এনে বলা হয়, ২০১২ সালের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে ৭ প্রার্থীর কাছ থেকে মনোনয়ন ফি বাবদ ৩৫ হাজার, ২০১৪ সালের নির্বাচনে ৬ প্রার্থীর কাছ থেকে ৩০ হাজার এবং ২০১৬ সালের নির্বাচনে ৬ প্রার্থীর কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা নেওয়া হয়। এখনো ওই টাকাগুলোর কোন হদিস মিলেনি।

বছর তিনেক আগে বিদ্যালয়ের আঙ্গিনায় রোপিত রেইন ট্রি গাছ নিলামে দুই লাখ টাকা বিক্রি করা হয়। সেই টাকারও কোন হদিস নেই। ২০০১ সালে বিদ্যালয়ের পাশেই মসজিদ নির্মাণের জন্য কিছু ভ’মি বরাদ্দ দেওয়া হয়। মসজিদ নির্মাণের জন্য দেশে বিদেশে টাকা উত্তোলন করা হয়। ৪০ জন দাতা সদস্যের মধ্যে তিনজন দাতা সদস্যের নাম রয়েছে সেখানে নতুন করে ২০ জনকে দাতাসদস্য করার জন্য নাম প্রস্তাব করে তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে ১০ হাজার টাকা করে নেওয়া হয়েছে।

অথচ এখনো সেই টাকা বিদ্যালয়ের একাউন্টে জমা হয়নি। প্রধান শিক্ষকের অদক্ষতার কারণে বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মামলার আসামী হতে হয়েছে উল্লেখ করে বলা হয়, অনেক শিক্ষার্থী মামলার অসামী হয়ে লেখাপড়ার পাঠ চুকিয়ে দিয়েছে। অনেকেই পাশ্ববর্তী বিদ্যালয়ে ভর্তি হয়। ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিয়ে প্রধান শিক্ষক জালিয়াতির আশ্রয় নেন।

বোর্ডে রেজুলেশন কপি সংযুক্ত না করে তার মনোনীত প্রার্থীকে সভাপতি বানিয়ে কমিটি অনুমোদন করিয়ে নেন। কমিটির নির্বাচিত দুই সদস্য বোর্ডে গিয়ে বিষয়টি জানতে পেরে আপত্তি জানিয়ে লিখিত অভিযোগ দেন। প্রধান শিক্ষক ২৩ আগষ্টের রেজুলেশনসহ বোর্ডে হাজির হওয়ার জন্য নির্দেশ দেয়। বোর্ডে প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম ধরা পড়লে তিনি ক্ষমা চেয়ে লিখিত মুচলেকা দিয়ে সভাপতি মনোনয়নের জন্য প্রবিধানমালা ২০০৯ এর ৫ (৩) ধারা অনুযায়ী আগের কমিটি বাতিল করার জন্য আবেদন জানান।

পাশাপাশি প্রধান শিক্ষক তার আবেদনে সভাপতি মনোনয়ন সংক্রান্ত ‘স্মারক নং সিশিবো/ক:শা:/গভ:বডি/২০১৬/৩৪৮ পত্র বাতিল করার আবেদন জানান। তার আবেদনে বোর্ড কর্তৃপক্ষ আগের দেওয়া কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করে। অথচ কমিটি গঠনের পূর্বে যুক্তরাজ্যে ছিলেন মুহিবুর রহমান। পরে গত বছরের ৪ অক্টোবর বিদ্যালয়ের কমিটি নিয়ে দুটি পক্ষ তৈরী হলে বিরোধ মীমাংসার জন্য এগিয়ে আসেন উত্তর বাদেপাশা ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাক আহমদ।

তার সভাপতিত্বে বৈঠকে রেজুলেশন অনুযায়ী সিরাজ উদ্দিনকে সভাপতি করে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়। এরপর বোর্ড কতৃপক্ষ ২৩ আগষ্ট এবং ৪ অক্টোবরের রেজুলেশন অনুযায়ী সিরাজ উদ্দিনকে সভাপতি করে কমিটি অনুমোদন দিলে সেটি আজো বাস্তবায়ন করেননি প্রধান শিক্ষক। বিদ্যালয়ের কাজ তিনি ম্যানেজিং কমিটির অনুমোদন ছাড়াই করিয়ে ভ’য়া ভাউচার বানিয়ে টাকা আদায় করে নেন।

প্রধান প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগ দেওয়ার পর থেকে বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি শুন্যের কোঠায় এসে নেমেছে দাবি করে বক্তব্যে বলা হয়, লেখাপড়ার মান অনেকটা নীচে নেমে গেছে। ২০১৪ সালের এইচএসসি পরীক্ষায় পরীক্ষার্থী ছিল ৮৭ জন। তার অদক্ষতার কারনে পাশ করে মাত্র ১৭ জন। একইভাবে প্রধান শিক্ষক বিদ্যালয়ে যোগ দেওয়ার পর থেকেই এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় খারাপ ফলাফল করছে শিক্ষার্থীরা।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, আলীম উদ্দিন বাবলু, জুনেদ আহমদ, সোহেল আহমদ, আব্দুল মালিক হারুন, আবুল কাসেম, আব্দুল লতিব আবুল, আব্দুল করিম, রাজিব আহমদ, কাওসার আহমদ, সাইফুর রহমান জাবেদ, ছমির উদ্দিন প্রমুখ।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী রেক্স টিলারসন তার পূর্ব এশিয়া সফরে বর্তমানে চীনে রয়েছেন। এই সফরে তিনি চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ইর সঙ্গে বৈঠক করবেন।

তাদের এই বৈঠককে ঘিরে উত্তর কোরিয়ায় নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে। খবর বিবিসির। এর আগে শুক্রবার পিয়ংইয়ংকে হুশিয়ারি দিয়ে টিলারসন বলেছিলেন, যদি দেশটির তরফ থেকে দক্ষিণ কোরিয়া বা মার্কিন বাহিনীর বিরুদ্ধে কোনো হুমকি দেয়া হয় তবে সামরিক অভিযান চালিয়ে তার সমুচিত জবাব দেয়া হবে।

এদিকে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, উত্তর কোরিয়া খুব খারাপ আচরণ করছে। তিনি আরো বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ে হামলা চালানো হলে দেশটির প্রধান মিত্র চীনেরও খুব বেশি কিছু করার থাকবেনা।

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়া একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। এতে কোরীয় দ্বীপে সঙ্কট সৃষ্টি হচ্ছে। এ নিয়ে বরাবরই উত্তর কোরিয়াকে সতর্ক করেছে যুক্তরাষ্ট্র। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর চীন সফর এই সতর্কতাকে আরো এক ধাপ বাড়িয়ে দিয়েছে।

0 3

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: নতুন প্রজন্ম জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে নিজেদের সুনাগরিক হিসেবে গড়ে তুলবে, এমন আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী।

শনিবার রাজধানীর আজিমপুর কলোনি মাঠে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আজিমপুর কলোনি মাঠে বঙ্গবন্ধুর ৯৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে সাত দিনব্যাপী বঙ্গবন্ধু উৎসবের আয়োজন করে ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসব উদযাপন পরিষদ। স্পিকার বলেন, অন্যায়ের প্রতি বঙ্গবন্ধু ছিলেন প্রতিবাদী।

অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গেলে তা অনুধাবন করতে হবে। বঙ্গবন্ধুর দর্শন ছিল মানুষকে ভালোবাসা। দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটানোই ছিল বঙ্গবন্ধুর বড় প্রত্যয়। বাঙালির অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক মুক্তির জন্য তিনি সংগ্রাম করেছেন। রাজনৈতিক মুক্তি তিনি দিয়ে গেছেন। অর্থনৈতিক মুক্তির কাজ তিনি শুরু করেছিলেন। কিন্তু সে কাজ শেষ করার সময় দেয়া হয়নি।

পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট তাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। স্পিকার বলেন, তার দর্শন ছিল মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করা। বঙ্গবন্ধু প্রচণ্ড সাহসী ও আপসহীন নেতা ছিলেন। অন্যায়ের কাছে তিনি কখনও মাথা নত করেননি। শিরীন শারমিন বলেন, তিনি বলেছিলেন, সারা বিশ্ব আজ দুই ভাগে বিভক্ত; শোষক আর শোষিত। আমি শোষিতের পক্ষে।

বঙ্গবন্ধু শুধু বাংলাদেশের নেতা ছিলেন না, সারা বিশ্বের দরিদ্র, বঞ্চিত মানুষের পক্ষে তিনি একজন বলিষ্ঠ কণ্ঠস্বর। নির্যাতিত-বঞ্চিত মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বের যেখানেই যখন কোনো সংগ্রাম হবে, তখন বঙ্গবন্ধুর মতো একটি বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কথা তারা স্মরণ করবেন। ‘ইহাই হয়তো আমার শেষ ভাষণ, আজ থেকে বাংলাদেশ স্বাধীন’ ২৫ মার্চ রাতে বঙ্গবন্ধু এই স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন বলে সংবিধানের উদ্ধৃতি তুলে ধরেন স্পিকার।

এ ধরনের উৎসবের আয়োজন করায় আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান তিনি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব উৎসব উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক হাসিবুর রহমান মানিকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন, উদযাপন পরিষদের সদস্য সচিব শেখ রানা প্রমুখ।

0 11

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে চলতি মাসে উরুগুয়ে ও প্যারাগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে ব্রাজিল। তবে চোটের কারণে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে এ দুই ম্যাচে ব্রাজিলের হয়ে খেলতে পারবেন না বায়ার্ন মিউনিক তারকা ডগলাস কস্তা।

শুক্রবার ক্লাবের হয়ে অনুশীলনের সময় বাঁ-হাঁটুতে চোট পান এ তারকা। চোটের কারণে এর আগেও চারটি বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে খেলতে পারেননি চলতি মৌসুমে জার্মান ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের হয়ে দারুণ খেলছেন কস্তা।

গত বছর হওয়া কোপা আমেরিকার শতবর্ষী আসরেও ইনজুরির কারণে দলে ছিলেন না। আগামী ২৩ মার্চ উরুগুয়ের রাজধানী মন্তেভিডিওতে সুয়ারেজ-কাভানিদের বিপক্ষে খেলবে ব্রাজিল। আর ২৮ মার্চ সাও পাওলোয় প্যারাগুয়েকে স্বাগত জানাবে নেইমাররা।

এদিকে ১২ ম্যাচে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে আছে ব্রাজিল। দ্বিতীয় স্থানে থাকা উরুগুয়ের পয়েন্ট ২৩। ২০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ইকুয়েডর। সমান পয়েন্ট নিয়ে চিলি রয়েছে চতুর্থ স্থানে। আর ১৯ পয়েন্ট নিয়ে পঞ্চম স্থানে রয়েছে মেসির আর্জেন্টিনা।

0 8

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বিশ্বব্যাপী আজ একটি নতুন উপসর্গ দেখা দিয়েছে, সেটা হলো জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস এবং মাদকাসক্তি। তিনি বলেন, বাংলাদেশে কোনো জঙ্গি থাকবে না।

জঙ্গিরা রেহাই পাবে না। জঙ্গিরা কে কোথায় বাস করে সবাই তা খেয়াল রাখবেন। জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের ছেলে-মেয়েরা অত্যন্ত মেধাবী। শুধু দেশে নয়, যারা বিদেশে লেখাপড়া করছে তারাও মেধার দৃষ্টান্ত রাখছে।

কাজেই এরা যেন কেউ বিপথে না যায়। কারও ছেলে-মেয়ে যেন জঙ্গি না হয়। এজন্য প্রতিটি পরিবারের মা-বাবাকে সাবধান থাকতে হবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৮তম জন্মদিন উপলক্ষে শনিবার বিকেলে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও জাতীয় সংসদের উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ প্রমুখ। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশ স্বাধীন করেই বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, বাংলাদেশ হবে প্রাচ্যের সুইজারল্যান্ড।

যে দেশে কোনো দারিদ্র্যতা থাকবে না, মানুষ খাদ্যে কষ্ট পাবে না। ভাত-কাপড়ের অভাব হবে না। তিনি বলেন, আজ আমরা অনেক দূর এগিয়ে গেছি। ২০২০ সালে আমরা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন করব। আর ২০২১ সালে যখন আমরা স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তি পালন করব, তখন এই বাংলাদেশ হবে সমৃদ্ধ ও মধ্যম আয়ের বাংলাদেশ। এভাবেই আমরা বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়ে তুলব।

শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বের বহু স্বাধীন দেশ আছে যেখান থেকে শত বছরেও মিত্র বাহিনী ফেরত যায়নি। বাংলাদেশ পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যেখান থেকে বঙ্গবন্ধুর অনুরোধে তিন মাসের মধ্যে ইন্দিরা গান্ধী মিত্র বাহিনীকে ফেরত নিয়েছিলেন। এ ধরনের নজির বিশ্বের কোনো দেশে নেই। বঙ্গবন্ধুর মতো নেতৃত্ব ছিল বিধায় এ কাজ এত সহজে সম্ভব হয়েছে। এজন্য প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের আঁড়িপাতার শিকার হয়েছিলেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেলও। এমনটাই দাবি করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

শুক্রবার হোয়াইট হাউসে মের্কেলের সঙ্গে প্রথম বৈঠকে এ দাবি করেন তিনি। বৈঠকের পর যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, অভিবাসন, নিরাপত্তাসহ নানা ইস্যুতে তার ও মের্কেলের মধ্যে বেশ মতবিরোধ রয়েছে।

তবে একটা বিষয়ে মিল আছে। তা হলো তাদের দু’জনের পেছনেই লেগেছিলেন ওবামা। বৈঠকে ন্যাটো, ইউক্রেন, বাণিজ্যসহ নানা গুরুত্বপূর্ণ ইস্যুতে আলোচনা করেন দু’নেতা। ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞার কড়া সমালোচকদের মধ্যে অন্যতম মের্কেল।

দু’সপ্তাহ আগে ট্রাম্প অভিযোগ করেন, নির্বাচনের আগে-পরে তার ফোনে আড়ি পেতেছিল বিদায়ী প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রশাসন। কিছু গণমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, একই প্রশাসন মের্কেলের ফোনেও আড়ি পেতেছিল। যদিও ট্রাম্প টাওয়ারে আড়িপাতা নিয়ে করা ট্রাম্পের অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে মন্তব্য করেছেন সিনেট গোয়েন্দা কমিটির প্রধান রিচার্ড বার।

0 449
গত ১০ এপ্রিল ২০১৭ইং তারিখে সিলেটের সংবাদ ডটকমে ‘সিলেট নগরীতে সেনা কর্মকর্তা লাঞ্ছিত : গ্রেফতার চার ছাত্রলীগ নেতাকে রিমান্ডের আবেদন’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত...

0 1469
সিলেটের সংবাদ ডটকম এক্সক্লুসিভ: বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন সিলেট মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তির। তাকে নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না...