সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: জন্মদিনে এর চেয়ে বড় পুরস্কার আর কি হতে পারে তামিমের জন্য। ব্যাট হাতে দুর্দান্ত পারফরমেন্স করে বাংলাদেশের শততম টেস্টের ঐতিহাসিক জয়ের সবচেয়ে বড় অবদান রেখেছেন।

এবার জন্মদিনের আনন্দ পরিবারের সঙ্গে ভাগ করে নিতে ছুটি নিয়ে মুম্বাই উড়ে গেছেন তামিম। তামিমের ছুটির বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন।

এদিকে তামিম মুম্বাই পৌঁছানোর আগে থেকে সেখানে ছিলেন তার স্ত্রী ও ছেলে। পরিবাবের সঙ্গে নিজের জন্মদিনের আনন্দ ভাগাভগি করে প্রস্তুতি ম্যাচের আগেই দলের সঙ্গে যোগ দিবেন দেশসেরা এই ওপেনার। এদিকে তামিমের জন্মদিনে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন দলের সতীর্থরা। ১৯৮৯ সালে চট্টগ্রামে জন্ম নেওয়া এ ড্যাশিং ব্যাটসম্যান আজ ২৮ বছরে পা রাখলেন।

২০০৮ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ডানেডিনে অভিষেকের পর থেকে ৪৯ টেস্টে খেলে ৩,৬৭৭ রান এসেছে তামিমের ব্যাট থেকে। যেখানে রয়েছে সেঞ্চুরি ৮টি এবং হাফ সেঞ্চুরি ২২টি। ১৬২টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ৭টি সেঞ্চুরি ও ৩৪টি হাফ সেঞ্চুরির সুবাদে ৫১২০ রান সংগ্রহ করেছেন। ২০১০ সালে লর্ডস ও ম্যানচেস্টারে ১০৩ ও ১০৮ রানের ইনিংস খেলে হইচই ফেলে দেন তামিম।

২০১৫ সালে ২০৬ রান করে মুশফিকের আগের করা ২০০ রানের রেকর্ডটি ভেঙে দেন তিনি। এছাড়া ২০১১ সালে তামিম উইজডেন ক্রিকেটার্স অ্যালমেনাক ম্যাগাজিন কর্তৃক বছরের সেরা পাঁচ ক্রিকেটারের একজন হিসেবে নির্বাচিত হন। দক্ষিণ আফ্রিকার গ্রায়েম সোয়ান ও ভারতের বিরেন্দর শেওয়াগকে পেছনে ফেলে তামিম এ খেতাব জিতেছিলেন।

NO COMMENTS

Leave a Reply