সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: নিজের স্ত্রীকে তার পরকীয়া প্রেমিকের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার ঘটনা ঘটেছে শরীয়তপুরে। ফেসবুকের মাধ্যমে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠলে বিয়ে দিয়ে ইতি টেনেছেন স্বামী রুস্তম চৌকিদার।

গত শনিবার গভীরাতে সদর উপজেলার রুদ্রকর ইউনিয়নের মধ্যসোনামূখী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জানা যায়, গত বছরের ২৮ জুলাই মধ্য সোনামূখী গ্রামের হানিফ চৌকিদারের ছেলে রুস্তম চৌকিদাদের সঙ্গে তার চাচাতো বোন জাকিয়া আক্তারের বিয়ে হয়।

বিয়ের পর থেকে স্ত্রী জাকিয়া পাশের গ্রামের আসিফ চৌকিদারের সঙ্গে ফেসবুকে বন্ধুত্ব করেন।  ফেসবুকের বন্ধুত্ব থেকে তাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। গত শনিবার রাতে জাকিয়া তার ফেসবুক বন্ধু আসিফকে তার বাড়িতে আসতে বলে। বাড়িতে এলে স্বামী রুস্তম টের পেয়ে ফেসবুক বন্ধুকেসহ নিজের স্ত্রীকে গভীর রাতে একই কক্ষে তালাবদ্ধ করে লোকজন ডেকে জড়ো করে।

পরে রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যসহ স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে রুস্তম জাকিয়াকে খোলা তালাক দেয় এবং তার সঙ্গে প্রেমিক আসিফের বিয়ের ব্যবস্থা করেন। প্রতিবেশী রেহানা, তাসলিমাসহ অন্যরা বলেন, ২০১৬ সালে দুর্ঘটনা ঘটলে চাচাতো ভাই রুস্তমের সঙ্গে জাকিয়ার কোর্টে গিয়ে বিয়ে হয়।

কিছুদিন পর শুনি জাকিয়ার সঙ্গে আসিফ নামে একটি ছেলের ফেসবুকে সম্পর্ক গড়ে উঠেছে। গত শনিবার আবার দুর্ঘটনা। জাকিয়ার মা খোরশেদা বেগম বলেন, গত বছরের জুলাই মাসে রুস্তম চৌকিদারের সঙ্গে আমার মেয়ে জাকিয়ার বিয়ে হয়। এ সময়ের মধ্যে রুস্তম আমার মেয়েকে কোনো ভরণ পোষণ করে না। এ বিষয়ে কোর্টে একটি মামলাও করেছি।

সেই মামলা শেষ হলে আমার মেয়েকে রুস্তমের বাড়িতে নিয়ে যায়। রুদ্রকর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান হাবিবুর রহামন ঢালী বলেন, আমি শুনেছি লোকজন ওদের ধরে বিয়ে পড়িয়েছে। পালং মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. খলিলুর রহমান বলেন, আমি এ বিষয়ে কিছু জানিনা।

NO COMMENTS

Leave a Reply