চাঞ্চল্যকর সোহেল হত্যা মামলায় দুই জনের ফাঁসি : বেকসুর খালাস সাত জন

0
149

সিলেটের সংবাদ ডটকম: দক্ষিণ সুরমার গোটাটিকর এলাকার লন্ড্রি কর্মচারি সোহেল হত্যা মামলায় দু’জনের মৃত্যুদন্ডাদেশ দিয়েছেন আদালত। বুধবার আসামীদের উপস্থিতিতে সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ (জননিরাপত্তা বিঘ্নকারী অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনাল) আদালতের বিচারক মো: মফিজুর রহমান ভূঞা এ রায় ঘোষণা করেন।

দন্ডপ্রাপ্তরা হচ্ছে- সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়নের বানাগাঁও গ্রামের আব্দুল মন্নানের ছেলে কাজল (২৩) ও একই গ্রামের মনফর আলী ওরফে মনু মিয়ার ছেলে ইসলাম উদ্দিন (২২)। একই সাথে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানার আদেশ দেয়া হয়েছে।

এছাড়া ওই মামলায় আরো সাত আসামীকে বেকসুর খালাস প্রদান করা হয়েছে। তারা হচ্ছেন সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার বাওনপুরের বদরুল (২৫), সিলেট সদর উপজেলার মোগলগাঁও ইউনিয়নের বানাগাঁওয়ের কয়েছ (২২), একই গ্রামের ছমরু মিয়া ওরফে আবু তাহের (২২), ময়না মিয়া (২২), হোসাইন ওরফে হোছন (২১), ছাইম উদ্দিন (২২) ও মানিক ওরফে আব্দুল মালিক (২৩)।

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে জানা যায়, ২০১১ সালের ১৭ এপ্রিল রাতে লন্ড্রি কর্মচারি সোহেলকে বানাগাঁও এলাকার ঢালুয়াবন্দ হাওরে নিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেন ইসলাম উদ্দিন ও তার বন্ধু কাজল। এ ঘটনার পর তাদেরসহ ৯ জনকে আসামি করে কোতোয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন নিহত সুহেলের পিতা জয়নাল আবেদীন।

২০১১ সালের ২৬ জুন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো: আবদুর রহিম মামলার চার্জশিট (অভিযোগপত্র) আদালতে দাখিল করেন। পরের বছর ১৩ জুন থেকে বিচারকার্য শুরু হয়। ৩০ সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আদালত বুধবার রায় ঘোষণা করেন। আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে স্পেশাল পিপি এডভোকেট নওসাদ আহমদ চৌধুরী ও আসামীপক্ষে এডভোকেট নাহিদা চৌধুরী, এডভোকেট অশেষ কর ও এডভোকেট ফখরুল ইসলাম মামলা পরিচালনা করেন।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here