সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনায় শাবি উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি

0
206
ছবি: ছাত্রীকে মারধর করে মাহমুদুল হাসান রুদ্র (লাল বৃত্তের মধ্যে)

সিলেটের সংবাদ ডটকম: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকদের উপর হামলার নির্দেশদাতা শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, হামলায় জড়িতদের বহিষ্কার এবং দ্রুত বিচারের দাবিতে শাবি উপাচার্য বরাবর স্মারকলিপি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রেসক্লাব।

সোমবার বিকালে ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ^াসের সাথে দেখা করে চার দফা দাবিতে স্মারকলিপি দেন শাবি প্রেসক্লাবের সভাপতি জাবেদ ইকবাল সহ ক্যাম্পাসে কর্মরত অন্যান্য সাংবাদিকরা।

দাবীগুলো হলো: ক্যাম্পাসে কর্মরত দুই সাংবাদিকের উপর হামলার প্রত্যক্ষ নির্দেশদাতা শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তি, সাংবাদিকদের উপর হামলায় জড়িত সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের কর্মীদের স্থায়ী বহিষ্কার, ক্যাম্পাসে কর্মরত সাংবাদিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ ও ছাত্রীকে নিপীড়নের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে বিশ^বিদ্যালয়ের আইনে শাস্তি।

অপরাধী যেই হোক না কেন তাকে কঠোর শাস্তি পেতে হবে বলে সাংবাদিকদের আশ্বস্ত করেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইলিয়াস উদ্দিন বিশ্বাস। এদিকে সাংবাদিক পেটানো ও যৌন হয়রানির সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত বহিষ্কার দাবি করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সাংবাদিকদের সংগঠন ‘শাহজালাল বিশ^বিদ্যালয় সাংবাদিক ফোরাম’।

গত শনিবার বিকালে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন পাঠানটুলা দ্বি-পাক্ষিক উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি ফলপ্রার্থী এক ছাত্রী তার এক ভাইকে নিয়ে ক্যাম্পাসে বেড়াতে আসেন। এ সময় কিছু বখাটে ঐ ছাত্রী ও তার ভাইকে মারধর করে এবং ছাত্রীর মুখে সিগারেটের ধোঁয়া দেয়। পরে ঘটনাটি জানতে সাংবাদিকরা গেলে তারা সকলে বিশ^বিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থের অনুসারী বলে পরিচয় দেয়।

ছাত্রীটি অভিযোগ করেন, তাকে মারধরকারী ও হুমকি প্রদানকারী দু’জন হলেন সমাজকর্ম বিভাগের ২য় বর্ষ ১ম সেমিস্টারের মাহমুদুল হাসান রুদ্্র এবং পরিসংখ্যান বিভাগের সাজ্জাদ রিয়াদ। ঘটনাটি মিমাংসা করতে এসে বিষয়টি নিয়ে ‘তার কিছুই করার নেই’ বলে সাংবাদিকদের জানান শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থ।

এমনকি সে জোরপূর্বক সাংবাদিকদের কাছ থেকে নিপীড়কদের ছবি ডিলিট করতে বাধ্য করে। এসময় সেখানে উপস্থিত তার গ্রুপের কর্মীদের উদ্দেশ্যে সাংবাদিকদের শোনায়ে সভাপতি পার্থ বলেন, যে পত্রিকায় এসব ছবি আসবে তিনি সে সাংবাদিককে দেখে নেবেন। তারপরই সাংবাদিকরা সেখান থেকে ক্ষুব্ধ হয়ে চলে আসে।

এদিনই সন্ধ্যার পর বিশ^বিদ্যালয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ডেইলী অবজারভারের সিলেট প্রতিনিধি সরদার আব্বাস আলী এবং সহ-সভাপতি দৈনিক সকালের খবরের শাবি প্রতিনিধি সৈয়দ নবীউল আলম দিপু ফুডকোর্টে চা খেতে যায়। এসময় শাবি ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জীবন চক্রবর্তী পার্থর নির্দেশে ১০-১৫জন কর্মী দেশীয় অস্ত্রসাজে সজ্জিত হয়ে তাদের উপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করে।

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here