কানাইঘাটে মোবাইল কোট পরিচালনায় ৬টি ক্রাশার মেশিন ধ্বংশ

0
177

সিলেটের সংবাদ ডটকম: কানাইঘাট পৌরসভাস্থ সুরমা নদীর পুর্ব পাড়ে অবৈধ ভাবে চালিত ৬টি স্টোন ক্রাশার মিশিন ধ্বংশ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় কানাইঘাট উপজেলা সহকারী কমিশনার ভুমি সুমন আচার্যের নেতৃত্বে এক মোবাইল কোট পরিচালনা করা হয়।

এতে দীর্ঘ দিন থেকে পৌরসভাস্থ সুরমা নদীর পুর্ব পাড়ে হাইকোর্টের নির্দেশ অমান্য করে নিজেদের অর্থনৈতিক স্বার্থ হাসিলে একদল পাথর খেকো ব্যবসায়ী প্রায় ২শত অবৈধ স্টোন ক্রাশার মেশিন চালিয়ে পরিবেশ দুুর্বিসহ করে তুলছে।

এ অভিযানে উপজেলার লক্ষীপুর গ্রামের হাজী এখলাছুর রহমানের পুত্র নুরুল আমিন, ডালাইচর গ্রামের হাজী তৈয়ব আলীর (জরাই মিয়া) পুত্র আব্দুল মালিক (কালা মানিক), চাপনগর গ্রামের হাজী আব্দুল করিম, সাতপারী গ্রামের ময়নুল হোসেন, লক্ষীপুর গ্রামের আলমাছ উদ্দিন ও বদিকোণা গ্রামের ডালিম উদ্দিনের ৬টি স্টোন ক্রাশার মেশিন ভেঙ্গে বিনষ্ট করা হয়। এ সময় পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেটের পরিদর্শক আবুল মুনসুর উপস্থিত ছিলেন।

পৌরসভার প্রাণ কেন্দ্র এই স্থানে অবৈধ ভাবে পাথর ভাঙ্গার ফলে সৃষ্ট বায়ুদুষণ ও শব্দদুষণে হাজারো স্কুল মাদ্রাসা ও কলেজগামী শিক্ষার্থী সহ সাধারণ মানুষের বিরম্বনা পোহাতে হচ্ছে। এটি যেমন পরিবেশের জন্য মারাত্মক হুমকি তেমনি মানুষের জন্য চর্মরোগ, সর্দি, মাথায় ধরা, কানে কম শুনা সহ স্বাস্থ্যগত ক্ষতিকারক বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ (সংশোধিত২০১০)এবং পরিবেশ সংরক্ষণ বিধিমালা ১৯৯৭ এর আলোকে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা স্থানীয় প্রশাসন গ্রহণ না করায় যত্রসত্র ভাবে স্টোন ক্রাশার মেশিন দিয়ে পাথর ভাঙ্গতে ব্যবসায়ীরা বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

(Visited 15 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here