Daily Archives: Apr 15, 2017

সিলেটের সংবাদ ডটকম: এসএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার (দক্ষিন) বাসু দেব বণিক বলেছেন,  আমরা দেশের জন্য কাজ করি। দেশের মানুষের নিরাপত্তার জন্য কাজ করি। দেশের সবরকম ক্রান্তিকালে এসএমপি কাজ করেছে, ভবিষ্যতেও আমরা কাজ করে যাব। তিনি ১৫ এপ্রিল শনিবার সিলেট শাহপরান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শাহজালাল মুন্সির বিদায় ও নতুন ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আখতার হোসেনের যোগদান উপলক্ষে বিদায় ও বরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শাহপরান থানা এলাকায় শাহজালাল মুন্সি যোগদান করার পর শান্তি শৃংখলা বজায় এবং অপরাধ দমনে সবসময় কাজ করে গেছেন। তিনি অত্র এলাকার চুরি, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধ দমনে ছিলেন কঠোর। আশা করি নতুন কর্মকর্তা আখতার হোসেনও তার দায়িত্ব পালনে আরো দায়িত্ববান হবেন।দায়িত্ব পালনকালে সংশ্লিষ্ট সবার সাথে সৌহার্দ্য বজায় রাখার প্রতি গুরুত্ব আরোপ করে কমিশনার বলেন, দেশের সব বাহিনী আমাদের সাথে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা একে অপরকে সহযোগিতার মাধ্যমে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। কোন বাহিনীর সাথে আমাদের কোন সদস্যের অনাকাঙ্খিত কোন ঘটনা বা ভুল বোঝাবুঝি না হয় সেদিকে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। আমরা দেশের জন্য কাজ করি।

সবার সাথে আমাদের সুসম্পর্ক রাখতে হবে। দায়িত্ব পালনকালে জনগণের প্রতি ভাল ব্যবহার ও যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার নির্দেশ প্রদান করে কমিশনার বলেন, থানায় সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে।

খেয়াল রাখতে হবে থানায় সেবা নিতে এসে যাতে কেউ হয়রানির শিকার না হয়। শাহপরান থানার সহকারি পুলিশ কমিশনার মো: ইসমাইল পিপিএম বারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (দক্ষিন) জেদান আল মুসা, বিদায়ী অতিথি হিসেবে উপস্হিত ছিলেন, শাহজালাল মুন্সি।উক্ত অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্হিত ছিলেন, ৪ নং খাদিমপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আফছর আহমদ, সিলেট চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক আমিরুজ্জামান দুলু, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মুশফিক জায়গিরদার, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রকিব তুহিন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক দেবাংশু দাস মিঠু, যুবলীগ নেতা জাহাঙ্গীর আলম, ছাত্রলীগের সিলেট জেলার সহ-সাধারন সম্পাদক কামরুল ইসলাম, মোগলাবাজার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খায়রুল আলম, সাবেক ইউপি সদস্য মঞ্জুর আহমদ, ফজলুর রহমানসহ শাহপরান থানা এলাকাধীনের গন্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ।

0 355

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কোষাধ্যক্ষ আনোয়ার হোসেন রানাকে দেখতে গতকাল শনিবার তাঁর নয়াসড়কস্থ বাসভবনে যান সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

এ সময় তিনি আওয়ামী লীগের অসুস্থ এই নেতার চিকিৎসার খোঁজখবর নেন এবং তাঁর আশু রোগমুক্তি কামনা করেন।

আনোয়ার হোসেন রানা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ রয়েছেন। ইতোপূর্বে তিনি সিলেট, ঢাকা এবং ভারতে চিকিৎসা গ্রহণ করে বর্তমানে নিজ বাসায় চিবিৎসাধীন অবস্থায় শয্যাশায়ী রয়েছেন।

শনিবার দুপুরে মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী এই নেতাকে দেখতে তাঁর বাসভবনে যান এবং দীর্ঘ সময় তাঁর পাশে কাটান। এ সময় তিনি তাঁর শারিরীক অবস্থা সম্পর্কে অবহিত হন এবং দ্রত সুস্থতা কামনা করেন।

সিলেটের অতীত রাজনৈতিক সম্প্রীতির উদাহরণ তুলে ধরে মেয়র বলেন, দিনে দিনে এই সম্প্রীতিও যেন হারিয়ে যাচ্ছে।আনোয়ার হোসেন রানাকে একজন নিবেদিতপ্রাণ, ত্যাগী ও সজ্জন রাজনীতিবিদ হিসেবে উল্লেখ করে মেয়র বলেন, শিগগিরই যেন তিনি সুস্থ হয়ে আবার রাজনীতির মাঠে সক্রিয় হতে পারেন আমি এই দোয়া করি।

1 231

সিলেটের সংবাদ ডটকম: ভিলেজ পলিট্রিক্স ও পৈতিৃক সম্পত্তি হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে একঘরে করে রাখা হয়েছে দক্ষিন সুরমা থানার চান্দাই চৌধুরী বাড়ির মো: জামিল আল হাসান রাজু নামের এক প্রতিবন্ধীকে। অস্বাস্হ্যকর পরিবেশে এভাবে বন্ধী করে রেখে তার মৃত্যুর অপেক্ষায় রয়েছে ভুমিখেকো চক্র।

ভাত না খেয়ে চিড়া-মুড়ি, বিস্কুট খেয়ে দিন কাটাচ্ছেন তিনি। চলাফেরায় অক্ষম রাজু বেশির ভাগ সময় না খেয়েই থাকছেন। তারপরও রাজুর একটি দাবী তার বাবার লাশটি তাদের পারিবারিক গোরস্হানে দাফন করার।

আর সেজন্য তিনি গত ৬ এপ্রিল সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার বরাবরে একটি লিখিত আবেদন করেছেন। রাজু জানান, ২০০৪ সালে ভুমি জরিপের সময় তাকে প্রানে মেরে ফেলার উদ্দেশ্যে তার উপর হামলা করা হয়।

ঐ সময় তিনি প্রানে বেচে গেলেও দীর্ঘ ২বছর তিনি পঙ্গুঁ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এরপর ২০০৯ সালে একই চক্র ফের তার উপর হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে রাজুকে পুরোপুরি পঙ্গুঁ করে ফেলে। এরপর থেকে স্ক্যাচ ছাড়া চলাফেরা করতে পারেন না রাজু।

স্হানীয় সুত্রে জানা যায়, রাজুর চাচাতো ভাই মঞ্জুর, দক্ষিন সুরমা থনার বরইকান্দি ইউনিয়নের দুকুর পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুল আজিজের ছেলে রাজুর দুলাভাই মো: মানিক ও তার বোন রাজুর পৈত্রিক সম্মত্তি হাতিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে তাকে প্রানে মেরে ফেলার জন্য বার বার চেষ্টা করে আসছে। তাকে প্রানে মারতে না পেরে পঙ্গু রাজুকে ২০১৭ সালের ২৯ মার্চ থেকে এঘরে করে রাখা হয়েছে।

উদ্দেশ্য তার মৃত্যুর অপেক্ষা করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে পঙ্গু রাজু জানান, বাড়ির সম্পত্তি এবং বাবার পেনশনের টাকা হাতিয়ে নেয়ার আশায় বাবাকে তার চাচাতো ভাই মঞ্জুর পরামর্শে দুলাভাই ও বোন মিলে বাবাকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যান। এবং বাবার কাছ থেকে সম্পত্তির আমমোক্তারনামা নেয়ার চেষ্টা করা হয়।

এদিকে ২০১৭ সালের পহেলা এপ্রিল রাজুর দুলাভাই ও বোন রাজুকে জানান তার বাবা তাদের বাড়িতে মারা গেছেন। এসময় রাজু জানতে চান কিভাবে মারা গেছেন, তার কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেননি মানিক ও রাজুর বোন। পরে রাজুকে না জানিয়ে তড়িঘড়ি করে রাজুর বাবার লাশ রাজুর দুলাভাই ও বোন মিলে তাদেরই বাড়িতে দাফন করেন।

রাজু তার বাবার মৃত্যুর খবর পেয়ে তিনি তার বাবার লাশ আনতে দুলাভাই এর বাড়িতে গেলে তাকে লাশ নাদিয়ে ফিরিয়ে দেন। এ ব্যাপারে রাজু দক্ষিন সুরমা থানার সহযোগীতা কামনা করলে থানা থেকেও তাকে কোন সহযোগীতা করা হয় নাই বলেও রাজু জানান। তাই তিনি তার বাবার লাশ দুলাভাইয়ের বাড়ি থেকে এনে তাদের পারিবারিক কবরস্হানে দাফন করার জন্য  পুরিশ কমিশনার বরাবরে গত ৬ এপ্রিল একটি আবেদস করেন যার স্বারক নং:- ৩৬২৮/১৭।

0 13

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আদালতের স্থগিতাদেশ উঠে যাওয়ার পর আগামী ১৫ কর্মদিবসের মধ্যে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আকম মোজাম্মেল হক।

১৫ এপ্রিল শনিবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী এ কথা জানান। মুজিবনগর দিবস পালন উপলক্ষে এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

তিনি বলেন, ‘ভুল তথ্যের ভিত্তিতে আদালত আদেশ স্থগিতাদেশ দিয়েছিলেন, আমাদের জবাব পাওয়ার পর আদালত সন্তুষ্ট হয়েছেন, যে এটা বন্ধ থাকা সঠিক নয়।

এজন্য তারা তাদের স্থগিতাদেশ তুলে নিয়েছেন। গত ১৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কার্যক্রম শুরু করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ১৫ কার্যদিবস সময় দিয়েছি, বলেছি এ সময়ের মধ্যে শেষ করতে হবে।

তিনি বলেন, ‘যাচাই-বাছাইয়ের পর যেগুলো টিকবে নতুনদের সংযোজিত করে তা আবার অনলাইনে প্রকাশ করা হবে। মোজাম্মেল হক বলেন, ‘যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে পক্ষপাতিত্ব বা অভিযোগ থাকলে এক মাসের মধ্যে মন্ত্রণালয়ে জানানো যাবে। শুনানির মাধ্যমে এ বিষয়টি চূড়ান্ত হবে।

এই তালিকা যাতে আর কখনও বিতর্কিত না হয় সেজন্য সরকার সতর্ক রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমরা স্থায়ীভাবে বিতর্কের অবসান ঘটাতে চাই। প্রসঙ্গত, গত ১২ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধাদের যাচাই-বাছাইয়ের জন্য মহানগর, জেলা ও উপজেলায় কমিটি করতে নির্দেশনা দেয় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

পরবর্তীতে এক রিট আবেদনের প্রেক্ষিতে ২৩ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই কমিটির কার্যক্রম স্থগিত করেন হাইকোর্ট। এ ছাড়াও বিচ্ছিন্নভাবে হাইকোর্টের আদেশে দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলায় এই বাছাই কার্যক্রম স্থগিত হয়।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: পাহাড়বেষ্টিত হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডের ৯ নম্বর কূপের খনন কাজ শেষ হয়েছে। এ কূপ থেকে প্রতিদিন ৮ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন করা সম্ভব হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে উৎপাদন বাড়াতে ২ ও ৬ নম্বর কূপে ওয়ার্ক ওভার করার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। ৯ নম্বর কূপে মোট গ্যাসের মজুদ নিয়ে দুইটি প্রতিবেদন পাওয়া গেছে।

এতে বাপেক্সে বলছে, ১৫ দশমিক ৫৪ বিলিয়ন ঘনফুট ও পেট্রোবাংলা বলছে উত্তোলনযোগ্য মজুদ রয়েছে ২৮ দশমিক ৩৬ বিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস।

পাইপ লাইন নির্মাণে টেন্ডার হচ্ছে। উত্তোলন শুরু হতে আরো প্রায় ১০ মাস সময় লেগে যেতে পারে। এ ছাড়া পুরনো ২ ও ৬ কূপে আবারো ওয়ার্ক ওভার করবে বাপেক্সে। এই দুটি কূপেও গ্যাস পাওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। সূত্র জানায়, বর্তমানে এখানে আটটি কূপের মধ্যে পাঁচটি সচল রয়েছে। এসব কূপ থেকে প্রতিদিন প্রায় ৫৭ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উত্তোলন হচ্ছে।

নতুন কূপ চালু হলে এখানে গ্যাসের উৎপাদন আরো বাড়বে। এখানে গ্যাসের সঙ্গে প্রতিদিন ৫০ ব্যারেল তেল উত্তোলন হচ্ছে। নতুন কূপ চালু হলে তেলের উৎপাদনও বেড়ে যাবে। এদিকে বিবিয়ানা গ্যাস ফিল্ড থেকে এখানে প্রতি সপ্তাহে ৬ হাজার ব্যারেল তেল আসছে। এসব তেল দেশের নানাপ্রান্তে তেলবাহী গাড়ি করে সরবরাহ করা হচ্ছে।

সূত্র জানায়, জেলার পাহাড়বেষ্টিত রশিদপুর গ্যাস ফিল্ড ১৯৬০ সালে প্রস্তুত করা হয়। পরে সাতটি কূপ খননের মাধ্যমে ১৯৯৩ সাল থেকে গ্যাস উত্তোলন করা হচ্ছে। এ গ্যাস যুক্ত হয় জাতীয় গ্রিডে। পর্যায়ক্রমে ওই গ্যাস ফিল্ডের আওতাধীন এলাকায় থ্রিডি সিসমিক জরিপ চালায় বাপেক্স। ৩২৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় ত্রিমাত্রিক ভূকম্পন জরিপ শেষে নতুন গ্যাস মজুদের সন্ধান মিলে। খনন করা হয় ৮ নম্বর কূপ।

একই ভাবে চলছিল ১২ ও ৯ নম্বর দুইটি গ্যাস কূপ খনন কাজ। এরমধ্যে ১২ নম্বর কূপে গ্যাস পাওয়া যায়নি। গ্যাস পাওয়া গেছে ৯ নম্বর কূপে। ২০১৪ সালের ১ আগস্ট শুক্রবার রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান গ্যাজপ্রম ছোট পাইপের সাহায্যে পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাস উত্তোলন শুরু করে। রিগ থেকে ৫০০ মিটার দূরে পাইপ দিয়ে গ্যাস এনে পাহাড়ের মধ্যে গর্ত করে উন্মুক্ত স্থানে আগুন লাগিয়ে চাপ পরীক্ষা করা হয়।

প্রথমে সাড়ে ৮ লাখ ঘনফুট করে গ্যাস উত্তোলন হলেও পর্যায়ক্রমে চাপ বাড়তে থাকে। সর্বশেষ চাপ ছিল ১২ দশমিক ৫ লাখ ঘনফুট। সে সময়ে রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডের ৮ নম্বর কূপ উন্নয়ন কাজের প্রকল্প পরিচালক আমীর হোসেন বলেন, ‘কোনো কূপ খনন করার পর যখন পরীক্ষামূলকভাবে গ্যাস উত্তোলন শুরু হয়, তখন গ্যাস না পাওয়ারও সম্ভাবনা থাকে।

আল্লাহর অশেষ মেহেরবানীতে ৮ নম্বর কূপে গ্যাস পাওয়া যায়। এরকিছু দিনের মধ্যে কাঠা মো তৈরি করে পাইপ লাইন স্থাপন করে রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডের প্রসেসিং প্ল্যান্ট দিয়ে ওই গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হয়।রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় গ্যাস কোম্পানি গ্যাজপ্রম ২০১৪ সালের ৪ জুন সেখানে খনন কাজ শুরু করে ২ মাস হওয়ার আগেই তারা প্রায় ২ হাজার ৯০০ মিটার গভীরে রিগ দিয়ে গ্যাস উত্তোলনে সক্ষম হয়।

এই খনন কাজে ব্যয় হয়েছিল প্রায় ১৬০ কোটি টাকা। সে সময়ে পেট্রোবাংলা সূত্র জানিয়েছিল, রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডে আরো কূপ খনন করা হবে। সেই থেকে এই গ্যাস ফিল্ডের আশপাশের এলাকায় কার্যক্রম চালিয়ে নতুন দুই (১২ ও ৯ নম্বর) কূপের সন্ধান পাওয়া যায়। হবিগঞ্জের তিনটি গ্যাস ফিল্ডের মধ্যে বিবিয়ানায় এরই মধ্যে ২৬টি কূপ খনন করা হয়েছে।

প্রথমে ছিল ১২টি পরে আরো ১৪টি কূপ খনন করা হয়। সেখানে আরো কূপ খননের সম্ভাবনা কম। শাহজিবাজার গ্যাস ফিল্ডেও এখন কোনো কূপ খনন হচ্ছে না। ৯ নম্বর কূপে গ্যাস পাওয়ার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন রশিদপুর গ্যাস ফিল্ডের উৎপাদন বিভাগের ব্যবপস্থাপক প্রকৌশলী মো. মুশতাক আহমেদ। তিনি বলেন, ১২ নম্বর কূপে খনন করে গ্যাস পাওয়া যায়নি।

0 50

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বিয়ে ও সন্তানের বিষয়টি ইতিমধ্যে সবার সামনে পরিস্কার করে দিয়েছেন বাংলা চলচ্চিত্রের সুপার স্টার শাকিব খান। তবে এসব বিষয় পরিষ্কার হলেও অপুকে নিয়ে শুরু হয় বিভিন্ন রকমের টালবাহানার পরিস্থিতি।

এরপর থেকেই ভক্তরা তাঁদের প্রিয় তারকাকে নিয়ে কোনো স্বস্তির খবর পাচ্ছিল না। এ নিয়ে ভক্তরাও ছিলেন বেশ চিন্তিত। অবশেষে হয়েছে শাকিব আর অপু-ভক্তদের দুশ্চিন্তার অবসান। আর তা ঘটেছে বাংলা নতুন বছরের প্রথম দিনের সন্ধ্যায়।

বৈশাখের প্রথম দিনে অপূর্ব এক সন্ধ্যা একসঙ্গে কাটালেন শাকিব খান ও অপু ইসলাম খান। ঢাকার একটি পাঁচতারকা হোটেলে বাস্তব জীবনের এই জুটি ঘণ্টাখানেকেরও বেশি সময় একান্তে কাটান। তাঁদের সঙ্গে ছিল ছয় মাস বয়সী একমাত্র সন্তান আব্রাম খান জয়। পাঁচতারা হোটেলে শাকিব যখন কথা বলেন, তখন তাঁর পরনে ছিল পাঞ্জাবি, পায়জামা।

আর অপু পরেছিলেন সালোয়ার কামিজ। বৈশাখী পাঞ্জাবি আর উত্তরীয়তে ঝলমলে ছিল শিশুপুত্র আব্রাম। নববর্ষের প্রথম দিনটা কেমন কেটেছে, শাকিবের কাছে জানতে চাইতে বললেন, ‘সব মিলিয়ে এবারের বৈশাখটা অন্য রকম কাটছে।

এত দিন আমি কারও ছেলে ছিলাম, এবার আমি নিজে বাবা, সন্তানের সঙ্গে বাংলা নববর্ষ পালন করছি, যে এরই মধ্যে মহাতারকা হয়ে গেছে। অপু বিশ্বাস বলেন, সত্যিই অন্য রকম। গত বছরের অনুভূতি ছিল এক রকম, কারণ তখন আমি মা হব। কাজকর্মও কমিয়ে দিয়েছি। সন্তানের কী হবে, কোন হাসপাতাল হলে ভালো হয়, এসব নিয়ে একটা চিন্তা ছিল। এখন তো আমি মা। অনেক বেশি হালকা লাগছে।

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার চেচান গ্রামে স্থানীয় একটি বিদ্যালয়ের ম্যানিজিং কমিটিতে দু পক্ষের মানুষ ঢুকানোর জেরে সংঘর্ষ হয়ে আহত হয়েছেন শতাধিক। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এ সংঘর্ষ হয়।

ছাতক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান জানান, চেচান গ্রামের তালুকদার গোষ্ঠী ও কৈয়া গোষ্ঠীর মধ্যে স্থানীয় সিপিবি উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নিয়ে বিরোধ চলছে। এর জের ধরে সকালে দু’পক্ষের লোকজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

একপর্যায়ে উভয়ক্ষ দেশি অস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষ চেচান গ্রাম সংলগ্ন সুনামগঞ্জ-সিলেট সড়কে ছড়িয়ে পড়ায় প্রায় দুই ঘণ্টা যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: গোলাপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা গ্রাম আদালত ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন বলেছেন খেলাধুলা হচ্ছে একটি সুস্থ বিনোদনের মাধ্যম।

অসামাজিক কার্যকলাপ সহ মাদকের হাত থেকে যুবসমাজকে রক্ষাও করে খেলাধুলা। তিনি বলেন আমাদের গ্রামাঞ্চলে অনেক মেসি-রোনালদো লুকিয়ে রয়েছে।

সঠিকভাবে খেলাধুলা চর্চা করলে একদিন তাদের মত বিশ্বসেরা খেলোয়াড় আমাদের দেশেও হওয়া সম্ভব।

খেলোয়াড়দের আগামী দিনে আরো মনোযোগ সহকারে খেলাধুলা করার জন্য আহবানও জানান তিনি। শুক্রবার বিকেলে উপজেলার পৌর এলাকার সামাজিক সংগঠন ইয়াগুল নতুন প্রজন্ম একতা সংস্থা কর্তৃক আয়োজিত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংগঠনের উপদৃষ্টা সমছ উদ্দিনের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সাংবাদিক জাহিদ উদ্দিনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন দৈনিক যুগান্তর পত্রিকার গোলাপগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি ও উপজেলা গ্রাম আদালত ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য হারিছ আলী, ইয়াগুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মইন উদ্দিন, বিশিষ্ট মুরব্বি মাস্টার আলাউদ্দিন, মখলাছ আলী, সুনা মিয়া বিশিষ্ট ব্যবসায়ী জুবায়ের আহমদ জেবুল, আব্দুল আহাদ, মুজাম্মিল আহমদ, সমছু মিয়া।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সভাপতি জয়নুল আহমদ, সহ-সভাপতি বদরুল ইসলাম, সহ -সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান মান্না, ক্রিড়া সম্পাদক হাছান আহমদ, সাংস্কৃতিক সম্পাদক সুমেল আহমদ, সদস্য শাহ জাহান আহমদ , সামিউল ইসলাম, নজরুল ইসলাম, ছাইদুল আহমদ, সাকিব আহমদ, রাবেল আহমদ, ফাহিম আহমদ, মুকিত আহমদ, সুহেল আহমদ, আব্দুল মুকিত প্রমুখ।

উক্ত ফাইনাল খেলায় ১-০ গোলে বিজয় লাভ করে সামি ফুটবল দল ও রানার্সআপ হয় মামু ভাগনা ফুটবল দল।অনুষ্ঠানের শেষে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ আলতাফ হোসেন।

0 20

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: পহেলা বৈশাখে সকল দুঃখ ও গ্লানি পেছনে ফেলে বাংলা নববর্ষ উদযাপনের মধ্য দিয়ে ১১তম বছরে পদার্পন করলো ঐতিহ্যবাহী মুরারিচাঁদ কলেজের সংস্কৃতির অন্যতম ধারক ও বাহক মোহনা সাংস্কৃতিক সংগঠন।

বাংলা নববর্ষ উদযাপনের পাশাপাশি নতুন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়েছে। ‘আনন্দলোক মঙ্গলালোকে বিরাজ সত্যসুন্দর’ স্লোগানকে সামনে রেখে ১লা বৈশাখ শুক্রবার সকাল ৯টায় শুরু হয় মুরারিচাঁদ কলেজের মঙ্গল শোভাযাত্রা।

কলেজের কলাভবনের সামনে নির্মিত মঞ্চে অধ্যক্ষ প্রফেসর নিতাই চন্দ্র চন্দ মূল অনুষ্ঠানের সূচনা করেন। পাশাপাশি মোহনার বার্ষিক সাময়িকী ‘‘বৈশাখী’’ প্রকাশনা মোড়ক উন্মোচন করেন। এ সময় তিনি বক্তব্যে বলেন যে, বর্তমান সমাজ ও বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে অরাজকতা ও জঙ্গিবাদ থেকে সমাজকে মুক্ত রাখতে সংস্কৃতি চর্চার কাজের মাধ্যমে কাজ করে চলেছে মোহনা।

তারা তাদের কাজের মাধ্যমে আরো এগিয়ে যাবে, নতুন বছরে এটাই প্রত্যাশা। উদ্ভিদবিজ্ঞান বিভাগের সহকারি অধ্যাপক ও মোহনার উপদেষ্টা শাহনাজ বেগম’র সঞ্চালনায় মঞ্চে আরো উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক পরিষদ এর সম্পাদক মো. তোতিউর রহমান, অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর আব্দুল কুদ্দুছ, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ও ১লা বৈশাখ উদযাপন পরিষদের আহ্বায়ক শামীমা আখতার চৌধুরী, মোহনার উপদেষ্টা আবুল আনাম মো. রিয়াজ, সুনীল ইন্দু অধিকারী, মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, শোয়েব আহমদ খান সহ মুরারিচাঁদ কলেজের সকল শিক্ষক ও শিক্ষার্থীবৃন্দ এবং মোহনার প্রতিষ্ঠাতা সদস্য রিয়াদ আহমদ চৌধুরী, আসাদুজ্জামান পাটোয়ারী সুজন।

উপস্থিত ছিলেন মোহনার সাবেক সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন, মো. খালেদ মাসুদ, দোলন আহমেদ, ওলিউর রহমান সামি, আজীবন সদস্য মো. নাসির উদ্দিন ও বিদায়ী কমিটির সভাপতি সামসুদ্দিন সাম্স।

নবগঠিত কমিটিতে যারা স্থান পেয়েছেন- সভাপতি মো. এনাম উদ্দিন, সহ সভাপতি শুভাশীষ চক্রবর্তী, আমির হামজা, সাধারণ সম্পাদক আজাদ মিয়া, সহ সাধারণ সম্পাদক আমিন উদ্দিন, এমদাদ আহমেদ তুষার, সাংগঠনিক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক জান্নাতুল ফেরদৌস মৌসুমী, টিপু শিকদার, সাংস্কৃতিক সম্পাদক মেহেদি হাসান সুজন, সহ সাংস্কৃতিক সম্পাদক অয়ন পাল অপু, ডেইজি দাস জুই, অর্থ সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন, সহ অর্থ সম্পাদক জয়শ্রী, দপ্তর সম্পাদক আলমগীর হোসেন, সহ দপ্তর সম্পাদক সৌরভ পাল, প্রচার সম্পাদক মিলাদ হোসেন, সহ প্রচার সম্পাদক শাহীন আলম, সাহিত্য সম্পাদক শহীদল্লাহ কাওসার চৌধুরী, সহ সাহিত্য সম্পাদক ইশতিয়াক রাশেদ, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মাহবুবা আক্তার, সহ মহিলা বিষয়ক সম্পাদক দেবশ্রী শর্ম্মী।

সিনিয়র সদস্য আব্দুল আলীম জুয়েল, উজ্জল আলম, মনিকা রানী দাস, লিংকন দাস, মুন্না রানী দেব, আসমা আক্তার পারভীন, আহনাফ আহমদ আবির, তামান্না আক্তার, চৌধুরী মো. ইমরান, শরিফুল চৌধুরী, হুসাইন আহমদ রাজু।

সাধারণ সদস্য অমিত চন্দ্র নাথ, আব্দুল ওয়াহিদ, ,মল্লিকা দেবী মিলি, হাবিবুর রহমান রাব্বি, পরমা রাণী মিতু, শাহিন আলী, আশরাফুল ইসলাম, শ্রাবনী তালুকদার মুন, শাহরিয়ার রাফি, সীমা বেগম, সুষমা সিংহ, পল্লবী দাশ মৌ, মিছবাহ খান, ইমরান হোসেন, পারভেজ আহমেদ সানি, এনামূল হক বিজয় মনসুর মুন্না, আকরাম।

0 16

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সুবিধা বঞ্চিত মানুষদের নিয়ে ভিন্নধর্মী বৈশাখী উৎসব উদযাপন করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য ও সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও তার পরিবার।

শুক্রবার সকালে তার বাসভবনের সমানে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসব শিশুদের মাঝে দেশীয় চিড়া, খই, মোয়া, নিমকি, গেজা, চিড়ার মোয়া, তিলু ইত্যাদি খাবর বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানের আয়োজক সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও পরিসংখ্যান বিষয়ক সম্পাদক, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাহকারি পরিচালক কামরান পুত্র ডাঃ আরমান আহমদ শিপলু বলেন, পহেলা বৈশাখ আমাদের জাতীয় উৎসব।

শ্রেণিবর্ণ নির্বিশেষে এই উৎসব সার্বজনীন। সবার সাথে নববর্ষের আনন্দ ভাগাভাগি করাই ছিল আমাদের পরিবারের প্রচেষ্টা। ‘আমরা চাই সবার মাঝে ছুঁয়ে যাক নববষের্র আনন্দ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, সিলেট মহানগর মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদিকা আসমা কামরান, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য ও পরিসংখ্যান বিষয়ক সম্পাদক, জালালাবাদ রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাহকারি পরিচালক ডাঃ আরমান আহমদ শিপলু, ফারহানা আরমান শাহানা, ফাতেহা ইয়াসমিন, আরিবা ইয়াসমিন, দ্বিপিকা, মোঃ ইব্রাহীম, সিরাজুল ইসলাম শামীম, পাপ্পু খান, এম.এ মতিন, এড. তারেক আহমদ, আব্দুর রহিম, ইমরান উদ্দিন প্রমুখ। বিজ্ঞপ্তি

0 448
গত ১০ এপ্রিল ২০১৭ইং তারিখে সিলেটের সংবাদ ডটকমে ‘সিলেট নগরীতে সেনা কর্মকর্তা লাঞ্ছিত : গ্রেফতার চার ছাত্রলীগ নেতাকে রিমান্ডের আবেদন’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত...

0 1469
সিলেটের সংবাদ ডটকম এক্সক্লুসিভ: বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সহযোগী সংগঠন সিলেট মহানগর যুবলীগের আহবায়ক আলম খান মুক্তির। তাকে নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না...