Daily Archives: Apr 20, 2017

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সুনামগঞ্জের হাওর রক্ষা বাঁধে পাউবোর (পানি উন্নয়ন বোর্ড) দুর্নীতি ও অনিয়মের প্রমাণ পেলেই আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক মোহাম্মদ বেলাল হোসেন।

বৃহস্পতিবার বিকেলে সুনামগঞ্জ জেলা সার্কিট হাউজে গণমাধ্যমকর্মীদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি। দুদক নিরপেক্ষ তদন্ত করবে জানিয়ে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে এ কর্মকর্তা বলেন, আপনাদের কাছে প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত যদি থাকে আমাদের দেন, তাহলে সেটিও আমরা কাজে লাগাতে পারব।

তিনি আরও বলেন, আমাদের তদন্তের পাশাপাশি দুদকের ইঞ্জিনিয়াররাও অধিকতর তদন্ত করবেন। তাদের রিপোর্ট পাওয়ার পর যদি দেখা যায় যে বাঁধ নির্মাণে দুর্নীতি হয়েছে, তাহলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সম্পূর্ণভাবে কাজ না করে আইনগতভাবে বিল উত্তোলনের কোনো সুযোগ নেই।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দুদকের সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক শিরিন পারভিন, উপ-পরিচালক রেবা হালদার ও উপ-সহকারী পরিচালক রণজিত কর্মকার। এর আগে গতকাল বুধবার সকালে সিলেট পৌঁছে সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. নাজমানার খানুমের সঙ্গে তার কার্যালয়ে বৈঠক করেন দুদক গঠিত অনুসন্ধান কমিটির কর্মকর্তারা।

বেঠকে তারা হাওরের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করেন। এরপর দুপুরে দুদকের অনুসন্ধান টিমের সদস্যরা যান পাউবোর নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হাইয়ের কার্যালয়ে। সেখানে তারা প্রায় ঘণ্টাখানেক আলোচনা করেন। উল্লেখ্য, হাওর রক্ষা বাঁধের অনিয়ম-দুর্নীতির অনুসন্ধানে গত ১৩ এপ্রিল বৃহস্পতিবার তিন সদস্যের কমিটি গঠন করে দুদক।

দুদকের প্রধান কার্যালয়ের পরিচালক বেলাল হোসেনকে প্রধান করা হয়। কমিটির অন্য দুজন হলেন দুদকের উপ-পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুর রহিম ও সহকারী পরিচালক সেলিনা আক্তার মনি। এছাড়া দুদকের মহাপরিচালক (বিশেষ তদন্ত) মো. আসাদুজ্জামানকে অনুসন্ধান তদন্তকারি কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ মার্চ থেকে অসময়ে টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সুনামগঞ্জের প্রায় সবকটি হাওরের বোরো ফসলি জমি পানিতে ডুবে যায়। সরকারি হিসাব মতে, ক্ষতির পরিমাণ এক লাখ এক হাজার হেক্টর ধানী জমি তলিয়ে যায়। যার ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকা। তবে সরকারের এ হিসাব মানতে নারাজ কৃষক ও হাওর বিশেষজ্ঞরা।

তাদের দাবি, তলিয়ে গেছে প্রায় ২ লাখ হেক্টরের ফসলি জমি, যার ক্ষতির পরিমাণ ২ হাজার কোটি টাকা। হাওরডুবির পর থেকেই বাঁধ নিয়ে কাজ করা সংশ্লিষ্টদের গ্রেফতার ও জেলাকে দুর্গত ঘোষণার দাবিতে জেলার সর্বত্র প্রতিনিয়ত মানববন্ধন-সভা-সমাবেশ ঝাড়ু মিছিল করে আসছেন ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক-জনতাসহ বিভিন্ন সংগঠন।

0 15

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: উপমহাদেশের প্রখ্যাত অভিনেতা নাসিরউদ্দিন শাহ এখন ঢাকায়। আজ বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় তিনি ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন। নাসিরউদ্দিন শাহর সঙ্গে এসেছেন তার স্ত্রী রত্না পাঠক শাহ ও মেয়ে হিবা শাহ।

নাসিরউদ্দিন শাহের ঢাকা সফরের উদ্দেশ্য, আগামীকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় রাজধানীর বসুন্ধরা আন্তর্জাতিক কনভেনশন সেন্টারের নবরাত্রি মিলনায়তনে মঞ্চস্থ হবে ‘ইসমাত আপা কে নাম’ নাটক।

এই নাটকে অভিনয় করবেন ‘কৃষ’ ছবির এ অভিনেতা। এ প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে ব্লুজ কমিউনিকেশন্স। ‘ইসমাত আপা কে নাম’ শিরোনামের নাটকটি লিখেছেন খ্যাতিমান উর্দু লেখক ইসমাত চুঘতাই। নির্দেশনা দিয়েছেন নাসিরউদ্দিন শাহ।

ব্লুজ কমিউনিকেশন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরহাদুল ইসলাম জানান, দুদিন আগেই ‘ইসমাত আপা কে নাম’ নাটকের কারিগরি টিমের তিনজন সদস্য ঢাকা এসেছেন। আজ এলেন নাসিরউদ্দিন শাহ, তার স্ত্রী রত্না পাঠক শাহ আর মেয়ে হিবা শাহ। বর্তমানে তারা বিশ্রামে আছেন। শুক্রবার শো’র আগে ভেন্যুতে যাবেন।

উল্লেখ্য, মূলধারা ও ধ্রুপদী দুই ধরনের ছবিতে অসাধারণ অভিনয়ের জন্য নাসিরউদ্দিন শাহ পেয়েছেন ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার, ফিল্ম ফেয়ারসহ আন্তর্জাতিক নানা পুরস্কার। ভূষিত হয়েছেন ভারতের সম্মানজনক রাষ্ট্রীয় পদক পদ্মশ্রী ও পদ্মভূষণে।

0 15

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: নেইমার যখন ব্রাজিলিয়ান ক্লাব সান্তোসের ফুটবলার, ইউরোপে পাড়ি জমাবেন, জমাবেন ভাব। কথা-বার্তা চলছে ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলোর সঙ্গে। ইংল্যান্ড, ইতালি এবং স্প্যানিশ ক্লাবগুলোর রশি টানাটানিতে এগিয়ে স্পেন, তখন দারুণ এক ভূমিকা রাখেন দানি আলভেজ।

যেকোনো মূল্যে যখন রিয়াল মাদ্রিদ নেইমারকে দলে ভিড়িয়ে নেবে, তখন আলভেজ সরাসরি নেইমারকে প্রস্তাব দেন বার্সায় খেলার জন্য। নেইমারের এজেন্ট ছিলেন তার বাবা নিজেই। আলভেজ নেইমারের বাবার সঙ্গেও বার্সার হয়ে দুতিয়ালির কাজ করেন।

শেষ পর্যন্ত আলভেজের চেষ্টায়ই হোক বা অন্য যেকোনো কারণে, নেইমার যোগ দিলেন বার্সেলোনায়। ২০১৩ থেকে শুরু করে গত মৌসুম পর্যন্ত কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে খেলে গেছেন জাতীয় দল এবং ক্লাবের এই দুই সতীর্থ। মুসকিল হলো, ২০১৬ সালেই বার্সার সঙ্গে চুক্তি শেষ আলভেজের। বার্সাও চুক্তি নবায়নের জন্য খুব একটা আগ্রহ দেখায়নি। আলভেজও থাকলেন না।

চলে গেলেন ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্তাসে। সেই আলভেজই জুভদের হয়ে বুধবার রাতে এলেন ন্যু ক্যাম্পে প্রতিপক্ষ হয়ে। যে মাঠ এতদিন ছিল তার প্রিয়, যে মাঠে প্রতিপক্ষের সব আক্রমণ ঠেকানোর দায়িত্ব ছিল তার, সেই মাঠে তিনি হয়ে গেলেন প্রতিপক্ষ। মেসি-নেইমারদের আক্রমণ প্রতিহত করাই তার মূল দায়িত্ব হয়ে দাঁড়িয়েছিল এদিন।

মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রির পরিকল্পনা যথাযথ পালন করলেন আলভেজ। মেসি-নেইমার-সুয়ারেজদের ঠেকিয়ে হয়ে গেলেন নায়ক। বার্সাকে কোনো গোলই করতে দিলেন না জুভেন্তাসের ব্রাজিলিয়ান রাইট ব্যাক। ম্যাচ শেষ হলো গোলশূন্য ড্র দিয়ে। আগের ম্যাচে ৩-০ গোলে হেরে যাওয়া জুভেন্তাসের সঙ্গে দুই ম্যাচ মিলিয়ে ব্যবধান দাঁড়াল ৩-০ গোলের।

সুতরাং সেমিতে উঠে গেল জুভেন্তাস। বিদায় নিল বার্সা। বার্সা-জুভেন্তাসের ম্যাচ শেষ হওয়ার পরই দেখা গেল মাঠেই অঝোর ধারায় কাঁদছেন নেইমার। তাকে সান্ত্বনা দিতে এগিয়ে এলেন আলভেজ। জাতীয় দলের সতীর্থকে কাছে পেয়ে তার কাঁধে মাথা গুঁজে ফুঁফিয়ে কেঁদে উঠলেন নেইমার। এ সময় আলভেজকে দেখা গেল নেইমারকে সান্ত্বনা দিতে।

পরে এক সাক্ষাৎকারে আলভেজ নেইমারকে কী বলেছিলেন সেটা জানান। তিনি বলেন, ‘আমি নেইমারকে বলেছিলাম, এটাই তো জীবন। আমরা একে অপরের মুখোমুখি হলাম। আমি তো একই অবস্থায় নিজেকে কখনও পরিমাপ করতে পারব না। আমরা সবাই এ পরিস্থিতির মুখোমুখি হওয়ার ক্ষেত্রে অভিজ্ঞ। আমাদের উচিত নিজ নিজ কাজে মন দেয়া।

0 2

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: আগের রাতে প্রচুর বৃষ্টি হয়েছে। সংশয় ছিল আজ আদৌ খেলা হবে কি না, হলেও নিশ্চয়ই আকার ছোট হয়ে কর্তিত ওভারের ম্যাচ হবে। পিচ ও আউটফিল্ড ঢাকা থাকায় সব সংশয় কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত খেলা হলো।

কর্তিত ওভারের ম্যাচে নাসির হোসেনের গাজী ট্যাঙ্কের কাছে পাত্তাই পেলো না মুশফিক-মাশরাফির লিজন্ডস অব রূপগঞ্জ। টস জিতে ব্যাট করতে নেমে রূপগঞ্জের সংগ্রহ দাঁড়ায় মাত্র ১৫৬ রান। ২ উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে যায় গাজী ট্যাঙ্ক।

১১ ওভার হাতে রয়েছে ৮ উইকেটে জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় নাসির হোসেনের দল। ৪৭ ওভারের ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং বেছে নিলেন মুশফিকুর রহীম। যতই ঢাকা থাকুক, আগের রাতে ভারি বর্ষণে উইকেটের চরিত্র পাল্টেছে খানিকটা। বেশি সময় ঢাকা থাকায় হয়ত আদ্রতাও তৈরি হবে। এমন কন্ডিশনে টস জিতে আগে ব্যাট বেছে নেয়ায় ছিল ঝুঁকি।

শেষ পর্যন্ত ওই ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্তই হলো কাল। সম শক্তির লড়াই এক সিদ্ধান্তের কারণে হয়ে গেল এক তরফা। ৮ উইকেটের সহজ জয় নিয়ে মাঠ ছাড়লো নাসির হোসেনের গাজী ট্যাংক। আগের রাতে বৃষ্টি ভেজা উইকেটে বৃহষ্পতিবার সকালটা হয়ে গেল গাজী ট্যাংকের বোলারদের। প্রচন্ড গরম আর কড়া রোদে যেটা ছিল শতভাগ ব্যাটিং উইকেট, সেটাই আগের রাতের বৃষ্টিতে হয়ে গেল বোলিং বান্ধব উইকেট।

পেসার আবু হায়দার রনি আর ভারতীয় অফস্পিনার আখতার রসুলের সাঁড়াশি বোলিং আক্রমণে বিদ্ধস্ত মুশফিক-মাশরাফির রূপগঞ্জ। ঠিক দুদিন আগে বিকেএসপির পাশের উইকেটে ৩০০ প্লাস রান করা দল বদলে যাওয়া উইকেটে মাত্র ১৫৬ রানেই অলআউট। মাত্র ১২ রানেই সাজঘরে ফিরলেন তিন টপ অর্ডার এজাজ (১), হাসানুজ্জামান (৮) ও সায়েম (০)।

একজন ব্যাটসম্যানও রান পাননি। আগের ম্যাচে মুশফিকুর ও নাঈম ইসলামের বড় জুটির কারণে শেষ পর্যন্ত ব্যাটিংয়ে নামার সুযোগ পাননি। প্যাড পরেই বসেছিলেন। সেই প্রতিষ্ঠিত ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান লিমনের ব্যাট থেকে আসলো সর্বাধিক ৩০ রান। ব্যাটসম্যান তকমাধারীদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৬ রান করেন অধিনায়ক মুশফিক; কিন্তু লিজেন্ডস অফ রূপগঞ্জের সর্বাধিক স্কোরার ছিলেন বাঁ-হাতি স্পিনার মোশাররফ রুবেল (বলে ৩৭) আর মোহাম্মদ শরীফ (৩০ বলে ২৯)।

এ দুজন হাল না ধরলে রুপগঞ্জের রান আরও কম হতো। ৯২ রানে ৮ উইকেট পতনের পর মোশাররফ রুবেল ও শরীফ হাল ধরেন। তারা দুজন ৫৭ রান জুড়ে দেয়ায় রূপগঞ্জের স্কোর দেড়শোর ঘরে পৌঁছায়। পরের সেশনেই উইকেটের চরিত্র গেলো পাল্টে। তার প্রমাণ, যে পিচে সকালে মুশফিকুর রহীম আর মাহমুদুল হাসান লিমন স্বচ্ছন্দে খেলতে পারেননি, দুপুর গড়াতে সে পিচেই মাথা তুলে দাঁড়ালেন মোশাররফ রুবেল-মোহাম্মদ শরীফ।

দুপুর গড়িয়ে সে পিচ একদম সহজ হয়ে যায়। তার প্রমান গাজী ট্যাংক ওপেনার জহুরুল ইসলাম অমি, এনামুল হক বিজয় আর মমিনুল হক- মধ্যাহ্ন বিরতির পর স্বচ্ছন্দে ও অনায়াসে ব্যাট করেন। রুপগঞ্জ বোলাররা পাত্তাই পাননি। জহুরুল ইসলাম অমি একপ্রান্ত আগলে রাখেন।

প্রথম উইকেটে জহুরুল আর এনামুল হক বিজয় ৫৯ রানের জুটি গড়ার পর বিজয় (৪৫ বলে ৩২) আউট হলে জহুরুল আর মমিনুল দ্বিতীয় উইকেটে আরও ৭৯ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তুললে জয়ের খুব কাছে চলে যায় গাজী ট্যাংক। জহুরুল অমি ১০৬ বলে ৬২ রানে আউট হওয়ার পর মমিনুল (৫৩ বলে ৪৪) আর নাসির (১২ বলে ১৫) অবিচ্ছিন্ন থাকলে মাত্র দুই উইকেট খুইয়ে ১১ ওভার আগেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় গাজী ট্যাংক।

0 5

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যকার দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক আরও সুসংহত করার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে পারস্পরিক স্বার্থে বিদ্যুৎ ও পানিসম্পদ খাতে সহযোগিতা জোরদারে দ্বি-পাক্ষিক ও উপ-আঞ্চলিকভাবে কাজের বিষয়ে সম্মত হয়েছে দুই দেশ।

বৃহস্পতিবার ভুটানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তিনদিনের রাষ্ট্রীয় সফরের যৌথ বিবৃতি প্রকাশ করেছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এতে বলা হয়, এ অঞ্চল ও বিশ্বের বৃহত্তর শান্তি, সমৃদ্ধি ও উন্নয়নের জন্য দুই দেশ একত্রে কাজ করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছে।

২৬ দফা সংবলিত ওই বিবৃতিতে বলা হয়, দ্বি-পাক্ষিক বৈঠকে পারস্পরিক স্বার্থে বিদ্যুৎ, পানিসম্পদ ও যোগাযোগের ক্ষেত্রে উপ-আঞ্চলিক সহযোগিতার সুযোগ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ভুটানের প্রধানমন্ত্রী দাসো তেরেসিং তোবগে। আঞ্চলিক কাঠামোয় নীতিগত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে জলবিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতার জন্য বাংলাদেশ, ভুটান ও ভারতের মধ্যে প্রস্তাবিত ত্রি-পাক্ষিক সমঝোতা স্মারকের (এমওইউ) বিষয়টি স্বাগত জানান উভয় নেতা।

পরবর্তীতে তিনটি দেশের নেতারা একত্রিত হলে এ বিষয়ে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের আশা প্রকাশ করেন তারা। আঞ্চলিক যোগাযোগের জন্য বিবিআইএন মোটর ভেহিকল এগ্রিমেন্টের গুরুত্ব অনুধাবন করে দ্রুত এ চুক্তি বাস্তবায়নে আগ্রহের কথা জানান দুই প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যে বিদ্যমান ঐতিহাসিক সম্পর্ক জোরদার এবং বোঝাপড়ার কথা স্মরণ করেন দুই প্রধানমন্ত্রী।

এ সম্পর্কের সূচনা করেছিলেন ভুটানের রাজা জিগমে দরজি ওয়াংচুক এবং জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দুই নেতা চমৎকার দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্কে সন্তোষ ব্যক্ত করে ভ্রাতৃপ্রতীম দুটি দেশের পারস্পরিক স্বার্থে দ্বি-পাক্ষিক সম্পর্ক আরো সংহত করার ব্যাপারে নিজেদের অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেন। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, দুই প্রধানমন্ত্রী জলবিদ্যুৎ, পানিসম্পদ, ব্যবসা-বাণিজ্য, যোগাযোগ ট্যুরিজম, সংস্কৃতি, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আইসিটি ও কৃষিসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে সহযোগিতার বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

উভয়পক্ষ বিমসটেক, সার্ক ও জাতিসংঘ এবং অন্যান্য সব প্রধান ইস্যুতে তাদের মতামত ও অবস্থানসহ অন্যান্য আঞ্চলিক এবং আন্তর্জাতিক ফোরামে সহযোগিতার বিষয় মতবিনিময় করেন বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ রয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সফরে বাংলাদেশ ভুটানে আরও তৈরি পোশাক, সিরামিক, ওষুধ, পাট, পাটজাত ও চামড়াজাত পণ্য, প্রসাধন সামগ্রী ও কৃষিপণ্য রফতানির প্রস্তাব দেয়।

এসব পণ্য বাজারজাতকরণ ও দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ অধিকতর সম্প্রসারণে সম্মত হয়েছে ভুটান। বাংলাদেশে গুঁড়া চুন (লাইম স্টোন পাউডার), জিপসাম ও ক্যালসিয়াম কার্বোনেট রফতানিতে শুল্ক ছাড় সমস্যা নিষ্পন্নে তামাবিল-ডাউকি ও নাকুয়াগং-দালু, গোবরাকুরা ও কড়াইতলি-গাসুয়াপারান্দ স্থলবন্দর চালুসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান ভুটানের প্রধানমন্ত্রী।

প্রাচীন সংস্কৃতি ও উভয় দেশের জনগণের মধ্যকার সম্পর্কের কথা স্মরণ করে পর্যটনের সম্ভাবনাকে সর্বোচ্চ কাজে লাগাতে এখাতে সহযোগিতার জন্য দুই দেশ অভিন্ন মত পোষণ করে। যৌথ বিবৃতিতে দ্বি-পাক্ষিক বাণিজ্য চুক্তি সম্প্রসারণ ও উভয় দেশের মধ্যকার বন্ধুত্ব আরও সুসংহত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী।

বাংলাদেশের আইসিটি খাতের অগ্রগতির প্রশংসা করেন ভুটানের প্রধানমন্ত্রী। উভয় নেতা আইসিটি খাতে সহযোগিতায় একমত হন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৭১ সালের ৬ ডিসেম্বর বাংলাদেশকে প্রথম স্বীকৃতি প্রদানে ভুটানের অমূল্য সমর্থনের কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি ১৯৭১ সালে পাকিস্তানি বাহিনীর গণহত্যা ও ধ্বংসযজ্ঞের উল্লেখ করে বলেন, ভুটান ওই সময় বাংলাদেশের মানুষের দুর্ভোগ ও দুর্দশায় সহানুভূতি ও সহমর্মিতা প্রকাশ করেছিল।

ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে ‘সোনার বাংলা’ ভিশনের রূপকার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অনুপ্রেরণাদায়ী নেতৃত্বের কথা স্মরণ করে বলেন, ‘বর্তমানে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সোনার বাংলার এ ভিশন বাস্তবায়িত হচ্ছে।’ ভুটানের রাজা ও রানী এবং প্রধানমন্ত্রীকে তাদের সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিবৃতিতে বলা হয়, তেসেরিং তোবগে চলতি বছরের ১ থেকে ৫ এপ্রিল ঢাকায় ১৩৬তম আইপিইউ অ্যাসেম্বলির সফল আয়োজনের জন্য শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানান। দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী সংসদ সদস্যদের মধ্যে নিয়মিত সফর বিনিময়ের কথা সন্তোষের সঙ্গে উল্লেখ করে তাদের মধ্যকার পারস্পরিক যোগাযোগ আরও বৃদ্ধিতে উৎসাহ প্রদান করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভুটানে অনুষ্ঠিত ‘অটিজম অ্যান্ড নিউরো ডেভেলপমেন্টাল ডিসঅর্ডার’ শীর্ষক তিনদিনের এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যোগদান শেষে বৃহস্পতিবার সকালে দেশে ফেরেন। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ভুটান ও বাংলাদেশের মধ্যে উচ্চপর্যায়ে সফর বিনিময়ের ঐতিহ্য এবং উভয় দেশের বন্ধুত্ব সমুন্নত ও জোরদার করতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ সফর ছিল খুবই তাৎপর্যপূর্ণ।

0 5

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, সীমান্তে চোরাচালান বন্ধে অত্যাধুনিক সার্ভিলেন্স ডিভাইস চালু করা হবে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে জাতীয় চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির সভা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সীমান্ত দিয়ে চোরাচালন ও মাদক ব্যবসায় অনেক প্রভাবশালীরা জড়িত। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে প্রভাবশালীদের বিরুদ্ধে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হবে। এছাড়া রেল লাইনে চোরাচালানের মাল পাওয়া যায়।

সেখানেও রেল পুলিশের তৎপরতা বাড়ানোসহ সারাদেশে চোরাচালান বিরোধী টহল আরও জোরদারের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, অক্টোবর ২০১৬ থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে ১ লাখ ৮৫ হাজার চোরাচালান বিরোধী অভিযান চালানো হয়েছে। এর মধ্যে মামলা হয়েছে ৯ হাজার ৮৩৪টি, আটক হয়েছে ৮ হাজার ৬৫০ জন।

আর সাজা হয়েছে ২ হাজার ৬৩৩ জনের। তিনি আরও বলেন, চোরাচালান বন্ধে টেকনাফ এবং মিয়ানমারের মংডু সীমান্তে লঞ্চ সার্ভিস চালুর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। টেকনাফ এবং মংডু সীমান্ত দিয়ে প্রতিদিনই মানুষ যাতায়াত করছে। অনেক পর্যটক যাচ্ছেন। এটাকে একটা সিস্টেমে আনতে লঞ্চ সার্ভিস চালু করা হচ্ছে, যাতে সবকিছু একটি কাঠামোর মধ্য দিয়ে চলে।

0 1

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: অগ্নিকাণ্ড, ভূমিকম্প ও প্রাকৃতিক দুর্যোগ মোকাবেলায় নিজ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রশিক্ষণ দেবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

আগামী ২৬ এপ্রিল (বুধবার) ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর আগারগাঁওয়ে ইসি সচিবালয়ের অডিটোরিয়ামে এ প্রশিক্ষণ পরিচালনা করবে। ইসির সহকারী সচিব (প্রশিক্ষণ) মো. শরিফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রশিক্ষণে অংশ নেয়ার জন্য নির্বাচন কমিশন সচিবালয়, নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, আঞ্চলিক নির্বাচন, অফিস, জেলা নির্বাচন অফিস ও ঢাকার সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর কাছে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে ইসির জনসংযোগ পরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান বলেন, ইসির নতুন বিল্ডিংটি অত্যাধুনিক। এ বিল্ডিংয়ে অগ্নিনির্বাপকের অত্যাধুনিক মেশিন লাগানো আছে।

তাই এখানে কখনও আগুন লাগলে বা বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় আতঙ্কিত না হয়ে কীভাবে বিল্ডিং থেকে বের হওয়া যায় বা প্রাথমিক পর্যায়ে তার মোকাবেলা করা যায়, তা কমিশনের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের হাতেকলমে শেখানো হবে।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: হুতি বিদ্রোহী এবং ইয়েমেনের ক্ষমতাচ্যুত রাষ্ট্রপতি আলী আবদুল্লাহ সালেহের যোদ্ধারা ইয়েমেনের প্রায় পাঁচ লাখ স্থানে মাইন বোমা পুঁতে রেখেছে।

ইয়েমেনি সরকার ও সামরিক কর্মকর্তাদের মতে, এ ধরনের বিস্ফোরক পুঁতে রাখা মানবতাবিরোধী অপরাধ হওয়ার পরও তারা এর ব্যবহার করেছে। হুতিদের পুঁতে রাখা এসব মাইনের আঘাতে ইতোমধ্যেই ৭শ মানুষ প্রাণ হারিয়েছে।

খবর আরব নিউজের। সরকারি বাহিনীর অগ্রগতি রুখতেই বিশেষ বিশেষ এলাকায় মাইন পুঁতে রেখেছিল হুতিরা। এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, শত শত বেসামরিক মানুষ মাইন বিস্ফোরণে নিহত হয়েছে। শহুরে এলাকায় যুদ্ধের বিস্তারের কারণে নিহতের এই সংখ্যা দিন দিন অারও বাড়ছে।

এডেনের ন্যাশনাল মাইন অ্যাকশন সেন্টারের পরিচালক ও সামরিক অঞ্চলে সেনাবাহিনীর প্রকৌশল বিভাগের প্রধান কর্নেল হায়থাম হালুব জানান, বিদ্রোহীরা অযথাই হোমোমাডম বোমা এবং অ্যান্টি-ট্যাঙ্কার মাইনগুলো পুঁতে রেখেছে। গত বছরের মে মাস পর্যন্ত দেশটির প্রকৌশলীরা ৩১ হাজারের অধিক মাইন নিষ্ক্রিয় করেছে।

আরব ফেডারেশন ফর হিউম্যান রাইটসের সর্বশেষ রিপোর্টে বলা হয়েছে, হুতিরা ইয়েমেনে পাঁচ লাখের বেশি মাইন পুঁতে রেখেছে। মাইন বিস্ফোরণে এ পর্যন্ত সাতশর বেশি মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে। আরর প্রকৌশলীরা এখন পর্যন্ত ৪০ হাজার মাইন নিষ্ক্রিয় করেছেন বলেও তথ্যও উঠে এসেছে ওই প্রতিবেদনে।

জনবসতিপূর্ণ এলাকায় পুঁতে রাখা মাইন নিষ্ক্রিয় করতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনের সহযোগিতা চেয়েছে ইয়েমেন সরকার। সরকারিভাবে বলা হচ্ছে, আন্তর্জাতিকভাবেই মাইন নিষিদ্ধ। এটা জীবনের জন্য হুমকি, বেসামরিক নাগরিকদের স্বাভাবিক জীবন যাপনে বাধা তৈরি করে। আর মাইনগুলো খুঁজে পাওয়াও বেশ জটিল; কারণ সেগুলো পুঁতে রাখার কোনো নকশা নেই।

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: পানামা পেপারস কেলেঙ্কারির অভিযোগে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফকে ক্ষমতা থেকে অপসারণের জন্য পর্যাপ্ত তথ্য নেই বলে জানিয়েছে পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট।

একই সঙ্গে পাকিস্তানের এই প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের সদস্যদের দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে যৌথ তদন্ত দল গঠনের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের এ নির্দেশের ফলে ক্ষমতায় থাকতে নওয়াজের জন্য কোনো বাধা থাকল না।

পাকিস্তান সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ বৃহস্পতিবার বিভক্ত রায় দিয়েছে বলে দেশটির জাতীয় দৈনিক ডন এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী খাজা আসিফ সুপ্রিম কোর্টের বাইরে সাংবাদিকদের বলেন, শীর্ষ আদালতের রায় ৩-২ এ বিভক্ত। প্রধানমন্ত্রী ইতোমধ্যে চিঠিতে বলেছিলেন যে, এ বিষয়ে তদন্তের জন্য একটি কমিশন গঠন করা উচিত।

আদালতও তাই বলেছেন- বলেন তিনি। আসিফ বলেন, ‌‘আমরা সব ধরনের তদন্তের জন্য প্রস্তুত রয়েছি। আজ এটা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে যে, আমাদের বিরোধীরা আদালতের কাছে যে তথ্য-উপাত্ত দিয়েছেন তা পর্যাপ্ত নয়। আমরা জয়ী হয়েছি। পাক প্রধানমন্ত্রীর কন্যা মরিয়ম নেওয়াজ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে নওয়াজ শরিফ ও পরিবারের সদস্যদের ছবি টুইট করেছেন।

সেখানে রায়ের বিজয় উদযাপন করতে দেখা যায়। কোনো ধরনের দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগ বরাবরই নাকচ করে দিয়েছেন নওয়াজ শরিফ ও তার পরিবার। রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে এ অভিযোগ আনা হয়েছে বলে দাবি করেছে পাক প্রধানমন্ত্রীর পরিবার। গত বছর পানামা পেপারসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ক্ষমতাসীন নেতা ও তাদের আত্মীয়-স্বজনরা অর্থপাচারে জড়িত বলে কয়েক লাখ নথি প্রকাশ করা হয়।

ওই সময় পানামার আইনি প্রতিষ্ঠান ‘মোসাক ফনসেকা’ থেকে এসব গোপন দলিল ফাঁস হয়ে যায়। নথি বিশ্লেষণ করে ওয়াশিংটনভিত্তিক ইন্টারন্যাশনাল কনসোর্টিয়াম অব ইনভেস্টিগেটিভ জার্নালিস্টস (আইসিআইজে) জানায়, অর্থপাচারে বিশ্বের শতাধিক রাষ্ট্রপ্রধান, ২০০ দেশের রাজনীতিক, খেলোয়াড়, চলচ্চিত্র তারকাসহ ২ লাখের বেশি মানুষ জড়িত।

কর ফাঁকি দিয়ে অর্থপাচার কেলেঙ্কারিতে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীর কন্যা মরিয়াম, ছেলে হাসান ও হুসেইন নেওয়াজের নাম উঠে আসে। এতে বলা হয়, আটটি অফশোর কোম্পানি রয়েছে পাক প্রধানমন্ত্রী ও তার পরিবারের সদস্যদের। এছাড়া চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং ও তার আত্মীয়-স্বজন, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘনিষ্ঠজন, আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী সিগমুনডার ডাভিড গুনলাগসন এবং বার্সেলোনার ফুটবল তারকা লিওনেল মেসি।

অর্থপাচারে জড়িত বিশ্বের প্রভাবশালী বিভিন্ন নেতার নাম প্রকাশের জেড়ে হইচই শুরু হয় বিশ্বজুড়ে। পানামা পেপারস নামে পরিচিতি পাওয়া এ গোপন দলিলপত্র এযাবৎ কালের সবচেয়ে ব্যাপক গোপন তথ্য ফাঁসের খেতাব পায়। এতে ক্ষমতাধর রাজনীতিক থেকে শুরু করে নামকরা সেলিব্রেটি অনেকের কর ফাঁকির গোপন তথ্য বেরিয়ে আসে।

ওই সময় পানামা পেপারসে প্রধানমন্ত্রী নওয়াজের পরিবারের আর্থিক কেলেঙ্কারির বিষয়ে তথ্য ফাঁস হওয়ার পর দেশটির রাজনৈতিক দল পিটিআই’র প্রধান ইমরান খান বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেন। পানামা পেপারসে তথ্য প্রকাশিত হওয়ার পর নওয়াজের দেশ শাসনের নৈতিক অধিকার নেই বলেও দাবি করেন ইমরান। বলেন, আইসল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর মতো নওয়াজেরও পদত্যাগ করা উচিত।

কর ফাঁকি দেয়ার জন্য কিংবা কালো টাকা রক্ষার জন্য শরিফের পরিবার এবং স্বজনরা বিদেশে অর্থ পাচার করছে। বৃহস্পতিবার পাক প্রধানমন্ত্রীর এ কেলেঙ্কারির অভিযোগের রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে ইসলামাবাদ হাইকোর্টের বাইরে অন্তত দেড় হাজার পুলিশ মোতায়েন করা হয়। অফশোর কোম্পানিতে থাকা নওয়াজের সম্পদের তদন্তে একমত হয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।

সিলেটের সংবাদ ডটকম: মৌলভীবাজারে বিভিন্ন হাওরের বোরো ধান পানিতে তলিয়ে যাওয়ার ফলে জেলায় বোরো ধানের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে দাড়িয়েছে ১শত ১৩ কোটি ৬৫ লক্ষ টাকা।

যার ফলে দূর্ভোগ বাড়ছে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে। কৃষকদের মধ্যে বিরাজ করছে হাহাকার। ৬ মাসের ঘামঝরা পরিশ্রমের ফলানো বোরো ধানের একমুটু ঘরে আনতে পারেননি এ জেলার অনেক কৃষক।

বোরো চাষীদের স্বপ্ন এখন দুঃস্বপ্নে পরিণত হয়েছে। অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে জেলার হাকালুকি হাওর, হাইল হাওর, সোনাদিঘি, কাওয়াদিঘির হাওর ও কইরকোনা বিলসহ বিভিন্ন এলাকায় ১০ হাজার ২শ ৭৬ হেক্টর জমির ফসল সম্পূর্ণ বিনষ্ট হয়ে গেছে।

মৌলভীবাজার কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা যায়, সদর উপজেলার কাঞ্জার হাওর, মানিক হাওর, হাইল হাওর ও কাউয়াদিঘি হাওর পানির নিচে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ১০৪২৫ হেক্টের জমির মধ্যে সম্পূর্ণ বিনষ্ট হয়ে গেছে ৩৪৮ হেক্টর, শ্রীমঙ্গল উপজেলার হাইল হাওর পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ৯৫৬৬ হেক্টের জমির মধ্যে ২৫০ হেক্টর।

রাজনগর উপজেলার সোনাদিঘি, কাইয়াদিঘি ও সিঙ্গাহুরা হাওর পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ১৩২০০ হেক্টের জমির মধ্যে ৯৮৭ হেক্টর, কমলগঞ্জ উপজেলার কেওলার হাওর পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ৩৮৭৫ হেক্টের জমির মধ্যে ১০৯ হেক্টর, কুলাউড়া উপজেলার হাকালুকি হাওর, ডলডল হাওর, রফিনগর হাওর, খাদিমপাড়া হাওর, আলিয়ার হাওর, বহিষমারা বলি, মেঘাবিল, হাওর বিল, কালাপানির বিল, পালের বিল, হাগুয়া বিল ও লাউয়র বিলসহ অন্যান্য বিল পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ৬৫৫০ হেক্টের জমির মধ্যে ৩৩৯৬ হেক্টর।

বড়লেখা উপজেলার হাকালুকি হাওর, মালাম বিল ও হুয়ালা বলি পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ৪৩৪০ হেক্টের জমির মধ্যে ১৯৭০ হেক্টর, জুড়ী উপজেলা হাকালুকি হাওর ও কইরকোনা বিল পানির নিছে তলিয়ে গিয়ে আবাদকৃত ৫৪৭০ হেক্টের জমির মধ্যে ৩২১৬ হেক্টর।

মৌলভীবাজার কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপ-পরিচালক মো. শাহজাহান বলেন, অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে বোরো চাষীদের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। সরকারিভাবে তাদের সহযোগিতার চেষ্টা চলছে। এ ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার জন্য আগামী আমন মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি জমি চাষাবাদ করার পরিকল্পনা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য কৃষি সম্প্রসারণ কর্তাদের কর্তৃক বোরো ফসলের ক্ষতির অসম্পূর্ণ হিসাব দেখালেও ভুমি খেকোদের দখলকৃত পাহাড়ি সরু করে ফেলা ছড়ার পানিতে অকাল বন্যায় ডুবে যাওয়া গ্রামাঞ্চলের রাস্তা ঘাট ভেঙ্গে সহস্রাধিক পুকুর ও ফিসারির মাছ বেড়িয়ে যে পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে তার কোন হিসেব এখানে নেই,তাছাড়া অনেক স্কুল মাদ্রাসার গাইডওয়াল ও ক্ষতি গ্রস্থ হয়েছে হিসেব নিকেশ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া জরুরী বলে দাবী করেছেন সচেতন মহল।

0 167
গত ১০ এপ্রিল ২০১৭ইং তারিখে সিলেটের সংবাদ ডটকমে ‘সিলেট নগরীতে সেনা কর্মকর্তা লাঞ্ছিত : গ্রেফতার চার ছাত্রলীগ নেতাকে রিমান্ডের আবেদন’ শিরোনামে একটি সংবাদ প্রকাশিত...

0 526
সিলেটের সংবাদ ডটকম এক্সক্লুসিভ: সিলেট জেলার সদর উপজেলার ৫ নং টুলটিকর ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের পুর্ব শাপলাবগ এলাকায় জাল দলিল বানিয়ে একজনের জায়গা অন্যজনের...