ব্যাংক কর্মকর্তার টাকা আত্বসাৎকারি প্রতারক সোহেলের খুটির জোর কোথায়?

0
551

সিলেটের সংবাদ ডটকম: যৌথ ব্যবসা করতে গিয়ে ৫০ লাখ টাকার প্রতারণার শিকার হয়েছেন আইভী কমপ্লেক্স, উদ্দীপন, মিরাবাজারের বাসিন্দা আমিনুর রশিদ চৌধুরী।

তাঁর ভাষ্যমতে, শাহপরান থানাধীন চকগ্রাম (দাসপাড়া) এলাকার অধিবাসী মরহুম হাজি তোতা মিয়ার পুত্র আবু সুফিয়ান সোহেল মিয়া ও মরহুম ইন্তাজ মিয়ার পুত্র আব্দুর রশিদ গংদের সাথে পার্টনারশিপ ব্যবসার জন্য ব্যাংক কর্মকর্তা আমিনুর রশিদ শর্তানুযায়ী ২৫ লক্ষ টাকা প্রদান করেন।

চুক্তি অনুসারে লাভজনক ব্যবসায় তাঁর হিসাব দাঁড়ায় ৫০ লক্ষ টাকায়। কিন্তু যৌথ ব্যবসায়ী দু’জন ব্যাংক কর্মকর্তাকে টাকা দেই-দিচ্চি বলে কালক্ষেপণ করছেন। বিবাদীগণ তার মূলধন ও লাভের অংশ না দিয়ে উল্টো তাকে বিভিন্নভাবে হয়রানি করছে।

কিছুতেই তারা তার টাকা ফেরত দিচ্ছে না। তাই বাধ্য হয়েই তিনি আইনের আশ্রয় নিয়েছেন। কিন্তু থেমে নেই প্রতারকদের হুমকি। প্রতিনিয়ত তারা আমিনুর রশিদ চৌধুরীকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। তাই বর্তমানে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন পূবালী ব্যাংক জলালপুর শাখার ব্যবস্থাপক আমিনুর রশীদ চৌধুরী।

এ ব্যাপারে তিনি সিলেট শাহপরান থানা অভিযোগ করেছেন। বর্তমানে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিরা বিষয়টির মিমাংসার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন বলে একটি সুত্র থেকে জানা যায়। উল্লেখ্য, তোতা মিয়ার পুত্র আবু সুফিয়ান সোহেল মিয়া এলাকায় নিরীহ লোকদের উপর নির্যাতন করে আসছেন। তার বিরুদ্ধে রয়েছে এলাকাবাসীর অভিযোগ।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা যায়, সুহেল একজন ছিনতাইকারি, চাদাবাজ। সে এলাকার লোকদের কাছ থেকে জোর পুর্বক চাদা আদায় করে থাকে। এমনকি সে এলাকার লোকজনকে বিভিন্নভাবে অত্যাচার করে আসছে। আর এমনি এক ঘটনা ঘটে সিলেট সদর উপজেলার ৪ নং খাদিমপাড়া ইউনিয়নের দাসপাড়া চকগ্রামে মো: মকবুল হোসেনের ছেলে সেলিম মিয়ার বাড়িতে।

গত ২২ এপ্রিল শনিবার বিকেল ৩ ঘটিকার সময় তোতা মিয়ার পুত্র আবু সুফিয়ান সোহেল মিয়া ও তার সহযোগীরা মিলে সেলিম মিয়া ও তার ভাই সাইস্তা মিয়াকে মারধর করে আহত করে।

পরে সাইস্হা মিয়াকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় সেলিম মিয়ার স্ত্রী পারভীন আক্তার বেবি বাদি হয়ে তোতা মিয়ার ছেলে আবু সুফিয়ান সোহেল মিয়া ও তার সহযোগীদের বিরাদ্ধে গত ২৫ এপ্রিল আদালতে একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং:- সিআর ১০৬।

(Visited 8 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here