গোলাপগঞ্জে জনতার হাতে ৬ ডাকাত আটক

0
766

সিলেটের সংবাদ ডটকম: ডাকাতির প্রস্তুতি কালে গোলাপগঞ্জে ৬ ডাকাতকে আটকের পর উত্তমমধ্যম দিয়েছে স্থানীয় জনতা।এসময় ডাকাতরা ফাকা গুলিবর্ষণ করে আতংক সৃষ্টি করে পালিয়ে যেতে চাইলে মসজিদে মাইকিং করে স্থানীয় জনতা  তাদের আটক করে।

খবর পেয়ে পুলিশ তাদের জনতার হাত থেকে উদ্ধার হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে পুলিশ প্রহরায় তাদের চিকিৎসা চলছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী। সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার লক্ষীপাশা ইউনিয়নের কটোয়ালপুর পশ্চিমপাড়া এলাকায় সন্দেহজনক ভাবে কয়েকজন লোককে ঘোরাফেরা করতে দেখেন স্থানীয় এলাকাবাসী।

এসময় তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এসময় স্থানীয় মসজিদে মাইকিং করলে চতুর্দিক থেকে জনতা তাদের ঘিরে ফেললে।

এসময় ডাকতরা গুলিবর্ষণ করে পালানোর চেষ্টা করলে ধাওয়া করে এলাকাবাসী হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জের সফি মিয়ার পুত্র আল আমিন (২০), মৌলভীবাজার জেলার শ্রীমঙ্গল থানার রশীদপুর গ্রামের মৃত সজ্জাদ আলীর পুত্র রাসেল আহমদ (২২), একই জেলার কুলাউড়ার ইসমাইল আলীর পুত্র ইব্রাহিম মিয়া (৩০), আলালপুর গ্রামের শহীদ মিয়ার পুত্র আনোয়ারুল ইসলাম ওরফে সজীব (২২), রাজনগর থানার সৈয়দ নগর গ্রামের ইলিয়াছ আলীর পুত্র সিপন আহমদ (৩০), গোয়ালাবাজার থানার আমালিয়া গ্রামের কাজল মিয়ার পুত্র আনিস ওরফে আনাছ (২০) কে আটক করে জনতা।

এলাকাবাসী জানান, ডাকাতরা কয়েক রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে।খবর পেয়ে পুলিশ আহত অবস্থায় এই ৬ ডাকাতকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করে।বর্তমানে পুলিশ প্রহরায় তাদের চিকিৎসা চলছে।লক্ষিপাশা ইউপির চেয়ারম্যান কবির আহমদ মুশন সাংবাদিকদের জানান, ডাকাতদের উপস্থিতি গ্রামবাসী টের পেলে তাদেরকে ঘেরাও করা হয়।

এসময় গ্রামবাসী ধাওয়া করলে ডাকতরা গুলিবর্ষণ করে গ্রামবাসী দড়া এলাকা থেকে ২ জন, শাহানাজপুর থেকে ২ জন ও বসন্তপুর এলাকা থেকে ২ জন সহ মোট ৬ জনকে আটক করা হয়। জানতে চাইলে গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মীর মোহাম্মদ আবু নাছের সাংবাদিকদের জানান, আমরা খবর পেয়ে ৬ ডাকাতকে আটক করে থানায় নিয়ে এসেছি। ২ জন ডাকাতকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে থানায় হেফাজতে রাখা হয়েছে। অন্য ৪ ডাকাত হাসপাতালে চিকিৎসাধিন অবস্থায় পুলিশ প্রহরায় রয়েছে।

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here