এবার মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের নামে কাটা হচ্ছে টিলা

0
197

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ফের কাটা হচ্ছে শাহী ঈদগাহ খেলার মাঠের সেই টিলা। এর আগে বিভিন্ন সময় বাণিজ্য মেলা আয়োজনের নামে টিলাটি কাটা হলেও এবার কাটা হচ্ছে মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণের নামে। আর কাটছে খোদ সরকারী প্রতিষ্ঠান।

এবার পুরো টিলা কেটে একেবারে সমতল করে ফেলা হচ্ছে। নগরীর শাহী ঈদগাহ এলাকার সিলেট সদর উপজেলা খেলার মাঠ। মাঠের প্রবেশ পথের পাশেই ছোট্ট টিলা। গত কয়েকবছর ধরেই প্রতিবছর এই মাঠে আয়োজন করা হয় আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলা।

মেলার জন্য মাঠ প্রস্তুতের নামে গত প্রায় সাত বছর ধরে মাঠের সামনের অংশের টিলাটি কাটা হচ্ছে। মেলার জন্য ২০১০ সালে প্রথম টিলার কিছু অংশ কাটা হয়। এনিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হলে সমালোচনার মুখে টিলা কাটা বন্ধ করা হয়।

এরপর থেকে প্রতিবছরই এমন হয়ে আসছে। তবে এবার মিনি স্টেডায়াম নির্মানের নামে পুরো টিলা কেটে সমতল করে ফেলা হচ্ছে। জানা যায়, সিলেট সদর উপজেলা খেলার মাঠকে ‘শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম’ নির্মাণ করছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। ৪২ লাখ টাকা ব্যয়ে মাঠটিকে মিনি স্টেডিয়ামে উন্নীত করণের কাজ চলছে। এই কাজের অংশ হিসেবে প্রথমেই কেটে ফেলা হচ্ছে মাঠের সামনের ছোট টিলা।

টিলা কেটে ওই স্থানে স্টেডিয়ামের ড্রেসিং রুম নির্মাণ করা হবে বলে সদর উপজেলা পরিষদ সূত্রে জানা গেছে। রোববার ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, ৫/৬ জন শ্রমিক মিলে টিলাটি কাটছেন। টিলার কাটা মাটি ফেলা হচ্ছে মাঠের বিভিন্ন গর্তে। মাঠ সমতল করার ক্ষেত্রে মাটি ব্যবহার করা হচ্ছে। মাটি কাটায় নিয়োজিত শ্রমিকরা জানিয়েছেন, একজন ঠিকাদারের তত্ত্বাবধানে এই টিলা কাটার কাজ করছেন তারা।

এ ব্যাপারে সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ বলেন, সরকার প্রতি উপজেলায় একটি করে মিনি স্টেডিয়াম নির্মানের উদ্যোগ নিয়েছে। সে লক্ষ্যে শাহী ঈদগাহর মাঠে মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। টিলা কাটা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ওটা এখন আর টিলা নেই। টিলা তো আগেই কেটে ফেলা হয়েছে।

এখন ক্রীড়া পরিষদ মাটি কেটে উঁচু নিচু জায়গা সমান করছে। তিনি বলেন, স্টেডিয়াম নির্মানের জন্য এই মাঠের জায়গা পর্যাপ্ত নয়। তাই স্টেডিয়াম নির্মাণের স্বার্থে পুরো মাঠটি সমতল করা হচ্ছে। ওই  জায়গা সমতল না করলে স্টেডিয়াম নির্মান সম্ভব নয় জানিয়ে তিনি বলেন, ওই স্থানে স্টেডিয়ামের ড্রেসিং রুম নির্মাণ করা হবে। এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন, সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম বলেন, গত কয়েকবছর ধরেই মেলার নামে এই টিলা একটু একটু করে কাটা হচ্ছে।

জনমতের চাপে এতোদিন পুরো টিলাটি কেটে ফেলতে পারেনি। এখন সরকারি প্রতিষ্ঠানই পুরো টিলা কেটে সমতল করে ফেলছে। সরকার টিলা কাটলে তো জনগন টিলা কাটায় আরো উৎসাহিত হবে বলে মনে করেন তিনি। তবে শাহী ঈদগাহ মাঠের টিলা কাটার ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন পরিকেশ অধিদপ্তর সিলেটের উপ পরিচালক সালাউদ্দিন আহমদ। সদর উপজেলা পরিষদ সূত্রে জানা যায়, নির্মানাধীন শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়ামে একতলা বিশিষ্ট প্যাভিলিয়ন ভবন, পাবলিক টয়লেট, গ্যালারি এবং আধুনিক ফুটবল গোলপোস্ট নির্মাণ করা হচ্ছে।

(Visited 3 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here