প্রেমের টানে সাউথ আফ্রিকা থেকে সিলেটে!!!

0
3888

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সিলেটে ঐতিহ্য আর ধর্মীয় মূল্যবোধের ভিত্তিতে বিয়ে করেছেন আফ্রিকান সুন্দরী লরা এরিক্সন। বাঙালি যুবকের প্রেমের টানে এদেশে এসে বিয়ে করেন ওই নারী। পেশায় স্কুলশিক্ষিকা।

বিয়ের আনন্দ শেষে আজ নিজ দেশে ফিরে যাচ্ছেন লরা এরিক্সন। ধর্ম, সমাজ, রাষ্ট্র ও সংস্কৃতিসহ সকল বাধা অতিক্রম করে সুদূর আফ্রিকা থেকে প্রেমের ডাকে সাড়া দিয়ে আলোড়ন সৃষ্টি করেন তিনি। সকল প্রতিবন্ধকতা ডিঙ্গিয়ে ঘর বেঁধেছেন ইমনের সঙ্গে।

প্রায় এক মাস স্বামীর সঙ্গে বসবাসের পর ১৩ মে (আজ) নিজ দেশে চলে যাচ্ছেন। প্রেমিক স্বামী ও পরিবারের অতিথেয়তা তাকে মুগ্ধ করেছে। ঘুরে বেড়িয়েছেন গ্রামীণ জনপদ। ভালো লেগেছে বাঙালি সংস্কৃতি। বাংলা শেখার চেষ্টা করেছেন। ভিনদেশি এ ললনার আচরণে মুগ্ধ প্রেমিক ইমনের পরিবার। গ্রামের লোকজনও মহাখুশি।

শিগগিরই ইমনকে আফ্রিকায় নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন আফ্রিকার বধূ লরা এরিক্সন। প্রেমিক ইমনের পারিবারিক সূত্র জানায়, ফেসবুকে প্রেমের সূত্র ধরে মৌলভীবাজার পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের দ্বারক গ্রামে আসেন ২৩ বছর বয়সী আফ্রিকান নাগরিক ইমা লরা এরিক্সন। ইমন আহমেদ মৌলভীবাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক।

এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। খবর পেয়ে আশপাশের বিভিন্ন গ্রাম থেকে অসংখ্য মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন ইমনের বাড়িতে। ইতিমধ্যেই ইমন আহমেদ ও লরা এরিক্সন বিয়ে করেছেন। প্রেমের টানে সুদূর আফ্রিকা থেকে বাংলাদেশের ছোট্ট একটি গ্রামে এক মেয়ের এভাবে ছুটে আসা সত্যিই বিরল ঘটনা। কথা হয় ইমন ও তার প্রেমিকা লরার সঙ্গে।

খুবই আন্তরিকতার সঙ্গে লরা তাদের সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেন। প্রেমিক সাঈদ বলেন,১ বছর পূর্বে তিনি ফেসবুকে লরার আইডিতে লাইক দেন। লরাও তাকে লাইক দেন। এভাবেই শুরু হয় বন্ধুত্বের পর্ব। বাকিটা ইতিহাস…. তারা নবদম্পতি সকলের কাছে দোয়া চেয়েছেন। সময় কম থাকায় সবাইকে বলার সময় হয়নি,,,এ কারনে সবার কাছে তিনি ক্ষমা চেয়েছেন,,,

(Visited 25 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here