সিলেটের সংবাদ ডটকম: প্রথম স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে দ্বিতীয় বিয়ে করতে গিয়ে পুলিশের বাধায় পন্ড হল আমেরিকা প্রবাসী বরের বিয়ে। ঘটনাটি ঘটেছে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার কলকলিয়া ইউনিয়নের কালিটেকী গ্রামে।

জানা যায়, ওই গ্রামের তাপস বৈদ্যের মেয়ে (২২) এর সঙ্গে ময়মনসিংহ জেলার সদর থানার শেওরা ধোপাকোলা গ্রামের মৃত জিতেন্দ্র চন্দ্র দাসের পুত্র আমেরিকা প্রবাসী খোকন চন্দ্র দাসের সঙ্গে পারিবারিক সম্মতিক্রমে বৃহস্পতিবার বিয়ের দিন ধার্য করা হয়।

বুধবার মঙ্গলাচরণ সম্পন্ন হয়ে গেছে। বিয়েকে ঘিরে আনন্দ উৎসবও চলছে পুরো দমে। কিন্তু হঠাৎ করে পুলিশ উপস্থিতি হয়ে বিয়ে পন্ড করে দেয়। পুলিশ জানায়, বর খোকন চন্দ্র আরেকটি বিয়ে করেছেন। তার স্ত্রী, সন্তান বর্তমানে আমেরিকাতে অবস্থান করছেন।

প্রথম পক্ষের স্ত্রীর অনুমতি না নিয়ে বিয়ে করায় তার বড় ভাই সুনিল চন্দ্র সরকার জগন্নাথপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে বিয়ে পন্ড করে দেয়। প্রথম স্ত্রী সবিতা রানী দাসের ভাই সুশীল চন্দ্র সরকারের সঙ্গে মুঠোফোনে আলাপকালে তিনি জানান, ২০ বছর আগে ময়মনসিংহ জেলার ত্রিশাল উপজেলার আফনায়িা দানিকুলা গ্রামে ধর্মীয় বিধিবিধান মতে আনুষ্ঠানিকভাবে খোকন দাসের সাথে আমার বোনের বিয়ে হয়।

দাম্পত্য জীবনে ১ ছেলে ১ মেয়ে রয়েছে। এখন আমাদেরকে না জানিয়ে তিনি আরেকটি বিয়ে করছেন শুনে থানায় অভিযোগ দিয়েছি। কনের কাকা কালিকেটী গ্রামের দীনেশ বৈদ্য জানান, পারিবারিকভাবে উভয় পক্ষের মতামতের ভিত্তিতে বিয়ে দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়।

বরের প্রথম পক্ষের স্ত্রীর সঙ্গে অনেক আগেই ডিভোর্স হয়ে গেছে বলে আমরা জানি। জগন্নাথপুর থানার ওসি হারুনুর অর রশিদ চৌধুরী জানান, বরের প্রথম পক্ষের স্ত্রীর ভাইয়ের অভিযোগের প্রেক্ষিতে তদন্ত করে বরকে ডিভোর্সের কাগজপত্র দেখানোর জন্য বলা হলে রব ডিভোর্সের প্রয়োজনীয় সঠিক কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। তাই এ বিয়ে আর হচ্ছে না।

NO COMMENTS

Leave a Reply