এবার সত্যি সত্যি মশা মারতে কামান!

0
203

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ‘মশা মারতে কামানের ব্যবহার’ এমন একটি প্রবাদ আছে বাংলায়। কিন্তু বাংলার সেই প্রবাদ যে এভাবে সত্যি হবে তা বোধকরি কেউই ভাবেনি।

আফগানিস্তান-ইয়েমেনে মানুষ হত্যায় যে ড্রোন বিমান ব্যবহার করা হয়, সেই ড্রোনই এবার ভারতে ব্যবহার করা হলো মশা মারার জন্য। টাইমস অব ইন্ডিয়া।

সম্প্রতি ভারতের আহমেদাবাদ মিউনিসিপ্যাল করপোরেশন রাজ্যকে ২০২২ সালের মধ্যে ম্যালেরিয়া মুক্ত করার জন্য এক ক্যাম্পেইন ঘোষণা করে। সেই ক্যাম্পেইনের অংশ হিসেবে মশাদের প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংস করতে রাজ্য সরকার ড্রোন ব্যবহার করে।

 রাজ্যের স্বাস্থ্য মন্ত্রী জানায়, “মশার প্রজনন ক্ষেত্রগুলো সাধারণত বাড়ির আশেপাশের জলাবদ্ধ স্থানে হয়। এছাড়াও ঘর বাড়ির ব্যবহৃত আসবাবপত্র এবং অন্যান্য জিনিসপত্রের মধ্যে মশাদের প্রজনন বাড়ে। রাজ্যের বাসিন্দাদের এব্যাপারে সতর্ক হতে হবে। পাশাপাশি সরকারি কর্তৃপক্ষের উচিত এবিষয়ে সচেতন হওয়া এবং পদক্ষেপ নেয়া।

মশার উৎপাত কমাতে এবং ম্যালেরিয়া নিধন করতে অন্তত দেড় হাজার স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগ দেয়া হয়েছে। পুরো ক্যাম্পেইনটি মোট তিন দফায় করা হবে। এক ধাপে মশার প্রজনন ক্ষেত্র চিহ্নিত এবং ধ্বংস করা হবে। পরবর্তীতে ম্যালেরিয়া হয়েছে এমন রোগিদের সন্ধান এবং মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সন্ধান চালানো হবে। পরিসংখ্যানে বলছে, চলতি বছরে এখন পর্যন্ত রাজ্যটিতে ৪০ হাজার ম্যালেরিয়ার রোগি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

যতদিন যাচ্ছে ততই ম্যালেরিয়ার প্রকোপ বাড়ছে এবং বিশ্বে এনিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি পাচ্ছে। মোট ৫৬টি দেশে ম্যালেরিয়া বিরোধী প্রচারণা বেশ জোরেসোরে চলছে, পাশাপাশি ম্যালেরিয়া বিরোধী শিক্ষা কার্যক্রম চালানো হচ্ছে। স্বাস্থ্য কমিশনার জে পি গুপ্ত বলেন, “রাজ্যের স্কুল এবং কলেজ পর্যায়ে মশা বিরোধী প্রচারনা চালানো হচ্ছে এবং আশেপাশের বাড়িগুলোতে মশার প্রজনন ক্ষেত্র ধ্বংসে শিক্ষার্থীদের ভূমিকা পালন করতে হবে।

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here