অবশেষে উপবৃত্তির টাকা পাচ্ছে জাউয়া কলেজের ৬০ শিক্ষার্থী

0
133

সদরুল আমিন (ছাতক): অসাবধানতা বশতঃ  উপবৃত্তির আওতায় আনা শিক্ষার্থীর মোবাইল নাম্বার ভুল করায় প্রায় অনিশ্চিত হয়ে পড়েছিল ছাতকের জাউয়া বাজার ডিগ্রি কলেজের  ৬০ জন শিক্ষার্থীর উপবৃত্তির টাকা পাওয়া।

বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সংবাদ প্রকাশের পর অবশেষে মোবাইল নাম্বার সংশোধন করে পুনরায় শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করা হয়েছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধিনস্থ প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাষ্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব নূরুল আমিন স্বাক্ষরিত এক চিঠির প্রেক্ষিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের মোবাইল নাম্বার ঠিক করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেন।

ফলে বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা পাওয়ার নিশ্চয়তা সৃষ্টি হয়। উল্লেখ্য, জাউয়া ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীদের মাঝে ৬৪ জনকে উপবৃত্তির তালিকায় এনে তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীদের মোবাইল নাম্বারসহ যাবতীয় তথ্য লিপিবদ্ধ করে কলেজ   কর্তৃপক্ষ সংশিষ্ট মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করেন।

তালিকা প্রেরণের সময় অসাবধানতা বশত: ৬০জন শিক্ষার্থীর মোবাইল নাম্বার ভুলভাবে লিপিবদ্ধ করা হয়। ফলে উপবৃত্তি তালিকাভুক্ত শিক্ষার্থীদের মোবাইলে পিন কোডসহ ম্যাসেজ আসেনি। গত ৭ জুন উপবৃত্তি প্রাপ্তদের ব্যাংক একাউন্ট খোলার শেষ দিনেও ম্যাসেজ না আসায় তারা কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করলে ভুল মোবাইল নাম্বার প্রেরণের বিষয়টি অবগত হয়। এ নিয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষের সাথে শিক্ষার্থীদের বাক-বিতন্ডার ঘটনা ঘটে। এ বিষয়ে গত ১১ জুন কলেজ কর্তৃপক্ষ এক চিঠির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়কে বিষয়টি অবগত করে তথ্য সংশোধনের প্রার্থনা করা হয়।

এর প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাষ্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও অতিরিক্ত সচিব নূরুল আমিন স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে উপবৃত্তি প্রাপ্য শিক্ষার্থীদের মোবাইল নাম্বার ভুলভাবে প্রেরণ করার বিষয়টি উদ্দেশ্যমুলক ও আত্মসাতের উদ্দেশ্যে করা হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। জরুরী নীতিমালা অনুযায়ী তালিকাভুক্ত ৪জন ছাত্র ও ৬০ ছাত্রীর মধ্যে যারা উপবৃত্তি প্রাপ্য তাদের তালিকা পিএমইটি-২ ফরম যথাযথ পূরণ করে মন্ত্রণালয় বরাবরে প্রেরণের নির্দেশ দেয়া হয়।

এ প্রেক্ষিতে কলেজ কর্তৃপক্ষ গত ১৫ জুন পুনরায় শিক্ষার্থীদের তালিকা ও সংশোধিত মোবাইল নাম্বার মন্ত্রণালয় বরাবরে প্রেরণ করেন। ফলে বঞ্চিত শিক্ষার্থীরা উপবৃত্তির টাকা পাওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে বলে তারা মনে করেন। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশ অনুযায়ী সংশোধিত তালিকা প্রেরণ করা হয়েছে বলে  জানান‚ জাউয়া ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল গাফফার।

(Visited 9 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here