মাধবকুন্ডে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা : ফিরে গেলো পাচঁ সহস্রাধিক পর্যটক

0
194

নজরুল ইসলাম, (বড়লেখা): দেশের সর্ববৃহৎ প্রাকৃতিক জলপ্রপাত ও দ্বিতীয় বৃহত্তম ইকোপার্ক মাধবকুণ্ডে পর্যটক প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা থাকায় ঈদ উদযাপন হয়নি ভ্রমণ পিপাসু পাচঁ সহস্রাধিক পর্যটকের।

প্রধান ফটক বন্ধ থাকায় গত তিন দিনে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ঘুরতে আসা প্রায় পাচঁ সহস্রাধিক পর্যটক নিরাশ হয়ে ফিরে যায়। এসময় উত্তেজিত পর্যটকরা টিকেট কাউন্টারে হামলা চালায় ও গেট খুলে দেয়ার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, মাধবকুণ্ড ইকোপার্কের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ। জলপ্রপাত দেখার জন্য ভেতরে প্রবেশ করতে কয়েক’শ পর্যটককে ভিড় করতে দেখা গেছে। এ নিয়ে পর্যটকের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পর্যটক পুলিশে হিমশিম খায়।

এসময়  ঈদ আনন্দ উপভোগ করতে আগত কলেজ পর্যটকরা অভিযোগ করেন সংস্কার কাজের দুহাই দিয়ে পর্যটন কেন্দ্র বন্ধ করে দেয়ার কোন যুক্তি ছিল না। বনবিভাগের এ মনগড়া সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে পর্যটকের জন্য মাধবকুণ্ডে তালা খুলে দেয়ার দাবী জানান। এ দাবীতে স্থানীয় ব্যসবায়ীদের নিয়ে আগতরা মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে।

স্থানীয় ব্যবসায়ীরা বলেন, বনবিভাগ ইকোপার্ক থেকে বছরে ৩০-৩৫ লাখ টাকা রাজস্ব আয় করছে। ঈদেও আগে পরে ১০-১৫ দিন হাজার হাজার পর্যটক আনন্দ উপভোগে এখানে প্রকৃতির সান্নিধ্যে ছুটে আসেন। ১৫ দিন আগের বর্ষণে রাস্তায় সামান্য ফাটল আর অল্প দেবে যাওয়া মেরামতে বনভিবাগ চরম উদাসীন।

দেশের দুরদুরান্তের পর্যটকের দুর্ভোগের কথা তারা মোটেও চিন্তা করেনি। কোন পূর্ব প্রস্ততি নেয়নি। বর্ষাকালে অতীতেও মাধবকুণ্ডের রাস্তা-ঘাট বিধস্ত হয়েছে। কিন্তু ইকোপার্ক বন্ধ করার ঘটনা ঘটেনি। নজিরবিহীন এ ঘটনা মাধবকুণ্ডধংসের ষড়যন্ত্র বলে পর্যটক ও স্থানীয় ব্যবসায়ীরা দাবী করেন। মাধবকুণ্ড পর্যটন পুলিশের ইনচার্জ এসআই জাহাঙ্গির আলম জানান, গেইট বন্ধ করে দেয়ায় গত ২১ জুন থেকে পর্যটকরা নানা বিশৃঙ্খলা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাচ্ছে।

ঈদের দিন ব্যাপক পর্যটক আসেন, কিন্ত কর্তৃপক্ষের অনুমতি না থাকায় পুলিশ তাদরেকে ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়নি। নিজেরও কষ্ট লাগছে অনেক দুর থেকে হাজার হাজার টাকা খরচ করে আসার পর গেইট থেকেই তাদেরকে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে। বনবিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ঈদ উপলক্ষে শ্রমিক না থাকায় সংস্কার কাজ বন্ধ রয়েছে। কাজ শেষে অভ্যন্তরীণ রাস্তা পর্যটকের চলাচলের উপযোগী করেই ইকোপার্কের গেইট খুলে দেয়া হবে।

প্রসঙ্গতঃ গত দুই সপ্তাহ আগের ভারি বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে জলপ্রপাতের রাস্তায় ফাটল, যাতায়াতের সিড়ির নিচের মাটি দেবে যাওয়ায় মারাত্মক ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়ে। অনাকাঙ্খিত দুর্ঘটনা এড়াতে স্থানীয় প্রশাসন ২১ জুন থেকে মাধবকুণ্ডে পর্যটক প্রবেশ বন্ধ করে দেয়। এরপর থেকে নিস্তব্ধ হয়ে পড়ে দেশের অন্যতম পর্যটন এলাকা মাধবকুন্ড। কিন্তু ঈদ উপলক্ষে হাজার হাজার পর্যটক ছুটে যাচ্ছেন মাধবকুণ্ডে। ভেতরে প্রবেশ করতে না পেরে নিরাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here