জগন্নাথপুর-শিবগঞ্জ সড়কে ঘোষগাঁও সেতুর অ্যাপ্রোচ বিধ্বস্ত

0
216

সিলেটের সংবাদ ডটকম: জগন্নাথপুর- শিবগঞ্জ-পাইলগাঁও ভায়া বেগমপুর সড়কের নলজুর নদীর ঘোষগাঁও সেতুর অ্যাপ্রোচ বিধ্বস্ত হওয়ায় সেতুর উপর দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় ছোট যানবাহন দিয়ে লোকজন যাতায়াত করছেন।

দীর্ঘদিন ধরে সেতুটির পূর্ব পারের অ্যাপ্রোচে ধসের সৃষ্টি হয়। গত কদিনের অবিরাম বৃষ্টিপাতের কারণে এ্যাপ্রোচের দুপাশের বিশাল অংশ বিধ্বস্ত হয়ে নদীগর্ভে চলে যাওয়ায় সেতুটির অ্যাপ্রোচ এলাকায় ভয়ানক অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নানের প্রচেষ্টায় স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) জগন্নাথপুর অফিস ২০১৩ সালে ১৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ১শ ৩৯ দশমিক ১৫ মিটার দৈর্ঘ্যের গার্ডার সেতুটি নির্মাণ করে। গতকাল রবিবার গিয়ে দেখা গেছে, সেতুটির অ্যাপ্রোচের দু-পাশের প্রায় ৩০ফুট এলাকাজুড়ে মাটি ধসে গিয়ে নদীগর্ভে বিলীন হতে চলেছে।

ধসে যাওয়া দু-পাশের মধ্যবর্তী প্রায় ৬ফুট প্রস্থের অংশ দিয়ে অটোরিকশা, ইজিবাইক, মোটরসাইকেল, রিকশা দিয়ে লোকজন চলাচল করছেন। সেতুটি নির্মিত হওয়ায় জগন্নাথপুর উপজেলার দক্ষিণাঞ্চল আশারকান্দি, পাইলগাঁও ও রানীগঞ্জ ইউনিয়নের যোগাযোগ ব্যবস্থায় উন্নীত হওয়ার পাশাপাশি সুনামগঞ্জ জেলা শহর থেকে এ সড়ক পথের ঘোষগাঁও সেতু দিয়ে ওসমানীনগর উপজেলার বেগমপুর হয়ে রাজধানী ঢাকায় কম সময়ে যাতায়াত সহজ হয়।

ঘোষগাঁও সেতুটি নির্মিত হওয়ার পর জনসাধারণ উপকৃত হলেও সেতুটির পূর্বপারের অ্যাপ্রোচের মাটি ধসে নদীগর্ভে বিলীন হওয়া ছাড়াও সেতুটির পশ্চিম পারের সংযোগ সড়কের ভূমি অধিগ্রহণ না হওয়ায় যাত্রীবাহী বাস এবং মালামাল বহনকারী যানবাহন চলাচল শুরু হয়নি। সেতুটির পশ্চিম পারের অ্যাপ্রোচ থেকে বাদাউড়া নদীর পার ঘেঁষে বিকল্প সংযোগ সড়ক দিয়ে বিপজ্জনকভাবে ছোট যানবাহন এবং লোকজন পায়ে হেঁটে যাতায়াত করছেন।

এদিকে ঘোষগাঁও সেতুর অ্যাপ্রোচ ছাড়াও ঘোষগাঁও হতে বেগমপুর পর্যন্ত সড়কের প্রতিটি সেতু, কালভার্টগুলোর অ্যাপ্রোচ দেবে যাওয়ায় বিপজ্জনক অবস্থায় যানবাহনগুলো চলাচল করছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ঘোষগাঁও এলাকার বাসিন্দা রেজাউল করিম রিজু জানান, ঘোষগাঁও সেতুটি নির্মিত হওয়ায় এ অঞ্চলের জনসাধারনের স্বপ্ন বাস্তবায়িত হয়েছে।

নদী ভাঙনের ভয়াবহতার কারণে সেতুটির অ্যাপ্রোচ এলাকা বিপজ্জনক অবস্থায় রয়েছে। এলজিইডির জগন্নাথপুর উপজেলা প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম জানান, ঘোষগাঁও সেতুটি নির্মিত হওয়ার পর দ্বিতীয়বার অ্যাপ্রোচ ধসে যায়। নদী ভাঙনের কারণে এবং প্রবল স্্েরাতে সেতুটির অ্যাপ্রোচ ধসে যাচ্ছে। সংস্কারের জন্য ইতোমধ্যে টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here