নবীগঞ্জে অপ্রাপ্ত বয়সী প্রেমিকা নিয়ে ছাত্রদল নেতার পলায়ন : অতঃপর বিয়ে

0
13

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: নবীগঞ্জে ছাত্রদল নেতা শাহিন তালুকদার রাতের আধারে অপ্রাপ্ত বয়সী কিশোরী প্রেমিকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার পর জল্পনাকল্পনা শেষে বিয়ে সম্পন্ন হয়েছে। এঘটনায় উপজেলা জুড়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

প্রশ্ন উঠছে অপ্রাপ্ত ১৭বছর বয়সী মেয়ের কাবিননামা কীভাবে হলো? স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,নবীগঞ্জ উপজেলার করগাঁও ইউনিয়নের পাঞ্জারাই গ্রামের ইয়াওর মিয়া তালুকদার ওরফে ডান্ডা মিয়া ছেলে ও নবীগঞ্জ কলেজ ছাত্রদল নেতা মুমিন তালুকদারের বড় ভাই উপজেলা ছাত্রদল নেতা শাহিন তালুকদারের সাথে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল একই উপজেলার বাউসা ইউনিয়নের বাউসা গ্রামের সাহাব উদ্দিন এর মেয়ে এবং নবীগঞ্জ সরকারী কলেজের একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী মুনমুন আক্তার(১৭)।

প্রেমের সম্পর্কের জের ধরে গত শনিবার গভীর রাতে প্রেমিকা মুনমুনকে নিয়ে পালিয়ে যায় ছাত্রদল নেতা। এরপর থেকেই তারা নিখোঁজ ছিল। পরে গত মঙ্গলবার তার মুনমুন বাড়িতে ফিরে আসলে তার পরিবার তাকে বাড়ি থেকে বের করে দিলে সে শাহিনের কাছে চলে যায়। গত মঙ্গলবার রাতে নবীগঞ্জ বাজার ব্যবসায়ীর সভাপতি আব্দুল গফুর চৌধুরীর স্ত্রী শাহিনের খালা তাদের বিয়ের ব্যবস্থা করে তাৎক্ষণিক তাদের বিয়ে দিয়ে দেন।

ছাত্রদল নেতার এমন কর্মকান্ডে উপজেলা জুড়ে চলছে নানা আলোচনা সমালোচনার ঝড়। এদিকে অপ্রাপ্ত বয়সী মেয়ের বিয়ে কিভাবে হলো এবং কোন কাজী এই অবৈধ বিয়ে পড়ালো এনিয়ে জনমনে উঠছে নানা প্রশ্ন। এর আগে সুনামগঞ্জ,সিলেট,ভাগাওরা এলাকায় পূর্বেও প্রেমীকাদের সাথে দেখা করতে গিয়ে ধরা পড়ে এই ছাত্রদল নেতা শাহিন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নবীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের একজন যুগ্ম আহবায়ক বলেন, ছাত্রত্ব নাই আর সে ছাত্রদলের কর্মী দাবী করে এইসব অছাত্ররাই এইসব খারাপ কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকে এইসব লোক কখনো জিয়ার আর্দশের সৈনিক হতে পারেনা। সুত্র:- ডেইলি সিলেট ডট কম

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here