২৫ ২৬ ও ২৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলন নিয়ে ক্ষোভ ও হতাশা

0
201

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন সিলেট মহানগর যুবলীগের ২৫,২৬,ও ২৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন ২ অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যা ৬ টায় কদমতলী পয়েন্টে অনুষ্টিত হবে।

সম্মেলনকে সামনে রেখে চাঙা হয়ে উঠেছে আওয়ামী যুবলীগ। যুবলীগের শীর্ষ নেতারা আসন্ন সম্মেলনে আশানুরূপ পদ পেতে তোড়জোর শুরু করেছেন।

বরাবরের মতো এবারও যুবলীগের নেতারাই সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদক পদে আসবেন বলে আশা করছেন সংগঠনের নেতারা। তবে ছাত্রলীগের কয়েকজন সাবেক নেতাও আসন্ন কমিটিতে পদ পেতে পারেন বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। এদিকে এই সম্মেলনকে ঘিরে নেতা-কর্মীদের মাঝে যেমন রয়েছে আনন্দ উচ্ছ্বাস, তেমনি রয়েছে ক্ষোভ ও হতাশা।

তাদের দাবী যুবলীগের এই ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে নতুন নেতৃত্ব আসা উচিত। নাম প্রকাশ না করার শর্তে যুবলীগের একাধিক কর্মী অভিযোগ করে বলেন, যাঁরাই আহ্বায়ক কমিটির পদে এসেছেন তাঁরাই বছরের পর বছর পদ আঁকড়ে রেখেছেন। সম্মেলন না হওয়ায় ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়নি।

ফলে সাংগঠনিক কার্যক্রমে তেমন গতি নেই। যুবলীগের কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সিলেট মহানগর যুবলীগের ৩ টি ওয়ার্ডে সভাপতি পদে তিন জন প্রার্থীর নাম আলোচনায় এসেছে। তারা দীর্ঘ দিন থেকে সভাপতির পদ আঁকড়ে রেখেছেন। তারা হলেন ২৫ নং ওয়ার্ডে যুবলীগের আখমল আলী মালাই, ২৬ নং ওয়ার্ড যুবলীগের আব্দুস সালাম সাহেদ,ও ২৭ নং ওয়ার্ডের যুবলীগের গুজার আহমদ জগলু।

তিনজনই মহানগর যুবলীগের বর্তমান কমিটির সভাপতি পদে রয়েছেন। দলের ত্যাগী নেতা-কর্মীদের দাবী যুবলীগের এই ত্রিবার্ষিক সম্মেলন নতুন নেতৃত্ব যেন দেয়া হয়। বছরের পর বছর যেন কেউ পদ আঁকড়ে ধরে রাখতে না পারে। সেই সাথে ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের যেন মূল্যায়ন করা হয়।

২৫, ২৬, ২৭ নং ওয়ার্ডে সভাপতি পদে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ২৫ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা জাকির আহমদ, সামাদ আহমদ, সেলিম আহমদসহ ২/৩ জন, ২৬ নং ওয়ার্ডের সভাপতি পদে নাসির উদ্দিন , মুহিবুর রহমান ও ২৭ নং ওয়ার্ডের এম রায়হান, হামিদ আহমদ, জয়নাল আহমদসহ বেশ কয়েক জন প্রার্থী। ২৫নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন ইয়াছিন আব্বাছ, রোমান আহমদ, তায়েফ আহমদ।

২৬নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক পদে কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় একক ভাবে আলমগীর হোসেনের নাম শোনা যাচ্ছে। তিনি সিলেট পৌরসভা থাকা কালীন সময়ে ১৩ নং ওয়ার্ডের ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ৪/৫ বছর দায়িত্ব পালন করেন। ২৭নং ওয়ার্ড যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আব্দুল আহাদ, মুমিনুল হক বকুলসহ ২/৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনকে ঘিরে গুরুত্বপূর্ণ পদগুলো পেতে নেতাদের দৌড়ঝাঁপ শেষ হবে আগামী ২ অক্টোবর সোমবার সন্ধ্যা ৬ টায়। গুরুত্বপূর্ণ পদগুলোতে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার আভাস পাওয়া যাচ্ছে। কমিটি প্রসঙ্গে ক্ষোভ ও হতাশা ব্যক্ত করে মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সিদ্দিক সুবেল বলেন, নেতাকর্মীদেরকে না জানিয়ে গোপনে গোপনে আয়োজন করা হয়েছে ২৫, ২৬ ও ২৭ নং ওয়ার্ড যুবলীগের সম্মেলনের।

আর মাধ্যমে দলের ত্যাগী ও পরীক্ষিতদেরকে গুরুত্বপূর্ণ পদ থেকে বঞ্চিত করার ষড়যন্ত্র চলছে। পকেট কমিটি গঠনের ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত চলছে। তাই যদি ঐ তিন ওয়ার্ড কমিটি নিয়ে ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত করা হয়, তাইলে প্রতিরোধের পাশাপাশি পাল্টা কমিটি ঘোষণা করা হবে তিনি হুশিয়ারী উচ্চারন করেন।

(Visited 9 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here