বড়লেখায় ঠিকাদারকে কুপিয়েছে শ্রমিক : আটক-১

0
352

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের রিপন মিয়া নামের এক ঠিকাদারকে কুপিয়েছে তারই দায়িত্বে থাকা শ্রমিকরা।

রিপন জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের মোরাদাবাদ গ্রামের আখলুছ মিয়ার পুত্র। এ ঘটনায় জাকির হোসেন নামের এক শ্রমিককে আটক করেছে ওই ঠিকাদার রিপনের লোকজন।

আটককৃত জাকির মৌলভীবাজার জেলার জুড়ি এলাকার মৃত আকবর আলীর ছেলে। খবর পেয়ে সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান তৈয়ব মিয়া কামালী, সাংবাদিক মো. মুন্না মিয়া, স্থানীয় ইউপি সদস্য জিয়াউল হক দুদু মিয়াসহ এলকাবাসী জাকিরকে জগন্নাথপুর থানা পুলিশের হেফাজতে দেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়- মৌলভীবাজারের বড়লেখায় ‘টিউবওয়েল’-এর ঠিকাদারীর কাজ করতেন জগন্নাথপুর উপজেলার সৈয়দপুর-শাহারপাড়া ইউনিয়নের মুরাদাবাদ এলাকার আখলুছ মিয়ার দুই পুত্র আব্দুল কাইয়ূম ও রিপন মিয়া। তাঁরা ওই এলাকার বিভিন্ন গ্রামে গ্রামে এ ধরনের কাজ করে থাকেন।

সম্প্রতি বড়লেখা পৌর শহরের তেলিগুন এলাকায় টিউবওয়েল বসানোর কাজ করতে যান রিপন ও তার ভাই। সেখানে কাজ চলাকালে শ্রমিকদের মধ্যে টাকার লেনদেন নিয়ে ঠিকাদারদের বাকবিতন্ডা হয়। বাকবিতন্ডার জেড়ে শ্রমিকরা জোট বেঁধে ঠিকাদার রিপন-কে হত্যার পরিকল্পনা করে।

হত্যা পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে গত ১ অক্টোবর ভোর রাতে বাসায় প্রবেশ করে রিপনের উপর হামলা চালায় জাকির হোসেনসহ অন্য শ্রমিকরা। হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ী কুপিয়ে রিপনের মৃত্যু নিশ্চিত ভেবে হামলাকারীরা চলে যায়। সকালে পুলিশ ও স্থানীয়দের সহায়তায় রিপনকে উদ্ধার করে সিলেটের ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনি বর্তমানে সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এঘটনায় গত ৬ অক্টোবর রোজ শুক্রবার বিকেলে চিকিৎসাধীন থাকা ছেলে রিপনকে দেখতে যান তাঁর মা। সেখান থেকে বাড়ী ফেরার পথে হঠাৎ দেখতে পান শ্রমিক জাকিরকে। তাঁরা জাকিরকে আটক করে গৃহবন্দি করে রাখেন প্রায় ৩দিন।

এমন সংবাদ স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তৈয়ব মিয়া কামালী, ইউপি সদস্য জিয়াউল হক দুদু মিয়া ও সাংবাদিক মো. মুন্না মিয়ার কাছে পৌঁছালে তারা সেখানে যান। সংবাদের সত্যতা পেয়ে জগন্নাথপুর থানা পুলিশকে বিষয়টি অবহিত করেন ইউপি চেয়ারম্যান তৈয়ব মিয়া কামালী।

সেখান থেকে রোববার (৮ অক্টোবর) বিকেলে জাকির হোসেনকে উদ্ধার করে পুলিশী হেফাজতে নিয়ে যান জগন্নাথপুর থানার সাব-ইন্সপেক্টর অঞ্জন চন্দ্র সরকার।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here