নগরীর সোনারপাড়ায় কিশোর শ্রমিক খুন : গ্রেফতার ১

0
371

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট নগরীর সোনারপাড়া প্রাথমিক স্কুলের সামনে ছুরিকাঘাতে খুন হওয়া কিশোর নির্মাণ শ্রমিক নূর মোহাম্মদ (১৮) হত্যার ঘটনায় নিহতের মা রহিমা বেগম বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

মামলায় দুজনকে আসামি করা হয়। এ ঘটনায় পুলিশ হত্যার সাথে জড়িত থাকার দায়ে এমদাদকে গ্রেফতার করলেও মামলার প্রধান আসামি নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

সোমবার দুপুরে এ মামলাটি দায়ের করা হয়। নিহত নূর মোহাম্মদ ময়মনসিংহের হিম্মতপুর গ্রামের মৃত নজরুল ইসলামের ছেলে। বর্তমানে সপরিবারে তারা সোনারপাড়ার বুলু মিয়ার ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে। এদিকে, এঘটনার পর পুলিশ রবিবার (২৯ অক্টোবর) রাতে নগরীর সোবহানীঘাট থেকে এমদাদকে গ্রেফতার করে।

মামলার এজহার নামীয় আসামিরা হচ্ছে- হবিগঞ্জ জেলার মুড়িকরা গ্রামের মৃত মিয়া হোসেনের ছেলে নজরুল হোসেন (১৮)। সে বর্তমানে সোনারপাড়া এলাকার লুতুর মিয়ার ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছে। এছাড়াও মামলার অপর আসামি এমদাদ মিয়া (১৮) মৌলভীবাজারের বড়লেখা জুড়ির বাছির পুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

এমদাদ সোনারপাড়া এলাকার ১৯২/২ নং বাসায় বসবাস করে আসছে। সিলেট মহানগর পুলিশের শাহপরাণ থানার ওসি আক্তার হোসেন জানান- নিহত নূরের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে সোমবার (৩০ অক্টোবর) পুলিশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। জুনিয়র-সিনিয়র দ্বন্দ্বে এ হত্যাকাণ্ড ঘটে। মামলার প্রধান আসামি নজরুল তাকে বড়ভাই হিসেবে ডাকার জন্য নূরকে নির্দেশ দেয়। কিন্তু নূর তা মানে নি।

এরপর ঘটনার দিন গ্রেফতারকৃত এমদাদ নূরকে স্কুলের সামনে নিয়ে আসলে তার উপর তারা হামলা চালায়। হামলার এক পর্যায়ের নজরুল ছুরি দিয়ে নূরের পেটে আঘাত করে। তিনি আরও জানান- পুলিশ মামলার প্রধান আসামি নজরুল ইসলামকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

গ্রেফতারকৃত এমদাদকে সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ। পুলিশ হত্যা মামলার প্রধান আসামি নজরুলকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

প্রসঙ্গত, সিলেট নগরীর সোনারপাড়া প্রাথমিক স্কুলের সামনে রবিবার (২৯ অক্টোবর) রাত ১০টার দিকে জুনিয়র-সিনিয়র দ্বন্দ্ব নিয়ে পরিকল্পিতভাবে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয় কিশোর নির্মাণ শ্রমিক নূর মোহাম্মদকে।

(Visited 11 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here