চিরকূট লিখে ফাঁসির রশিতে ঝুললেন ঔষধ কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধি : ঋনের চাপে আরেক ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

0
206

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: বালাগঞ্জে সোসাইট নোট লিখে এসকেএফ ঔষধ কোম্পানীর এক বিক্রয় প্রতিনিধি আত্মহত্যা করেছেন।

আত্মহত্যার কারণ হিসেবে সোসাইট নোটে তিনি কোম্পানী এবং স্ত্রীকে দায়ি করেছেন। রবিবার সন্ধ্যায় ঔষুধ কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধি আনিসুর রহমান আনিস (৩৭) বালাগঞ্জ সদরের নবী নগর এলাকার ভাড়া বাসায় সিলিং ফ্যানের সাথে রশি গলায় বেঁধে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্যে মর্গে পাঠায়। নিহত আনিস সিরাজগঞ্জ জেলার তাড়াশ উপজেলায় রগুমিলি গ্রামের ইসমাইল হোসেনের পুত্র। বালাগঞ্জ থানার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ ৭ বছর ধরে আনিস ঔষধ কোম্পানী এসকেএফের বিক্রয় প্রতিনিধি হিসাবে বালাগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত ছিলেন।

পাশাপাশি তিনি ঔষধ কোম্পানীর বিক্রয় প্রতিনিধিদের সংগঠন ‘ফারিয়া’ নামক সংগঠনের বালাগঞ্জ উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। মৃত্যুর আগে তিনি এসকেএফ ঔষধ কোম্পানীর লগোযুক্ত ডায়রীতে একটি চিরকূট (সোসাইট নোট) লিখে গেছেন।

নিজ হাতে লেখা চিরকূটে তার মৃত্যুর কারণ হিসেবে এসকেএফ ঔষধ কোম্পানী কতৃপক্ষ ও নিজ স্ত্রীকে দায়ী করেছেন। তবে চিরকূটের লিখায় কিছুটা অসঙ্গতিও রয়েছে। ধারনা করা হচ্ছে চিরকূটটি তার নিজ হাতেই লিখা। চিরকূটটি উদ্ধার করে তদন্ত করছে বলে জানিয়েছেন বালাগঞ্জ থানার এস আই অপু দাস গুপ্ত।

বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এসএম জালাল উদ্দিন বলেন, ময়না তদন্ত শেষে সোমবার নিহত আনিসের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা না দেয়ায় এবিষয়ে একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা করা হয়েছে। হাতে লিখা চিরকূটটি উদ্ধার করে তদন্ত করা হচ্ছে।

এদিকে বালাগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ী রিপন দাস (৩৫) রবিবার সকালের দিকে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্টানের ভিতরে সিলিং ফ্যানের সাথে ঝুলিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে। সদা হাস্যোজ্জল রিপন দাসের মৃত্যুতে ব্যবসায়ীদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

ফিজা দাস নামে ১৫ মাস বয়সি এক কন্যা সন্তানের জনক নিহত রিপন দাস ওসমানীনগর উপজেলার উছমানপুর ইউনিয়নের রঘুপুর গ্রামের মৃত প্রফুল্ল দাসের পুত্র। তবে প্রাথমিক অবস্থায় আত্মহত্যার কারণ জানা যায়নি।

বালাগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এমএম জালাল উদ্দিন বলেন, রবিবার সকাল ১১ টার দিকে পুলিশ লাশটি উদ্বার করে ময়না তদন্তের জন্য সিলেট এমএ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেছে। আত্মহত্যার কারণ জানার চেষ্টা চলছে। সুত্র:- ডেইলি সিলেট ডট কম

(Visited 18 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here