ভালো-খারাপ সময় মেনে নিতে হবে : অপু

0
337

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ঢাকাই চলচ্চিত্রের জুটি শাকিব-অপুর বিয়ের খবর প্রকাশের আট মাসের মাথায় বিচ্ছেদ ঘটতে যাচ্ছে।

বিচ্ছেদের বিষয়টি দুজনের পক্ষে থেকেই বক্তব্য পাল্টা সংবাদমাধ্যমে উঠে আসছে। এর মধ্যে দিয়ে অস্থির সময়ের মধ্যে দিয়েই যাচ্ছে চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাসের সময়।

শাকিব খানের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে যে জটিলতায় তিনি পড়েছেন; তার একটা সমাধানই হয়তো খুঁজছেন নায়িকা। তবে এত কিছুর পরও ভেঙে পড়েননি অপু। যেন সবকিছুই স্বাভাবিকভাবে মোকাবেলার জন্য প্রস্তুত রয়েছেন তিনি।

শনিবার দুপুরে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে এক পোস্টে এমনটাই মনে হবে ভক্তদের। একটি হাস্যোজ্বল ছবি পোস্ট করে অপু বিশ্বাস লিখেছেন, ‘জীবনে ভালো সময় এবং খারাপ সময় আসবে, মেনে নিতেই হবে ….’। জনপ্রিয় এ ঢালিউড নায়িকার ভক্তরাও যেন তাকে সাহস জুগিয়ে চলেছেন। অপুর ফেসবুক পোস্টের নিচে এ নিয়ে ইতিবাচক মনোভাব ব্যক্ত করেছেন তারা।

নানা জটিলতার পর গত ২২ নভেম্বর অপুর নিকেতনের বাসার ঠিকানায় ডিভোর্সের চিঠি পাঠান শাকিব খান। এই চিঠির পরই শাকিব-অপু সম্পর্কে নতুন মোড় নেয়। শাকিব খানের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ নিয়ে বিস্তারিত জানাতে অবশ্য ভক্ত, সাংবাদিকদের কাছে সময় চেয়েছেন অপু বিশ্বাস।

এখনও বিস্তারিত কোনও কথা বলেননি তিনি। অপুকে শাকিবের পাঠানো তালাকের নোটিশের বিষয়টি সোমবার জানাজানি হয়। এর মধ্য দিয়ে নানা নাটকীয়তার পর বোঝা যায়; অবশেষে ভেঙেই যাচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় এই জুটির বিয়ের বন্ধন। আইনজীবীর মাধ্যমে শাকিবের পাঠানো নোটিশে তালাকের কারণ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে- অপু বিশ্বাস শাকিবের পছন্দের সীমার মধ্যে থাকেননি।

সম্প্রতি তাদের সন্তানকে গৃহপরিচারিকার কাছে রেখে দেশের বাইরে যান অপু। ২০০৮ সালের ১৮ এপ্রিল গোপনে বিয়ে করেন শাকিব খান ও অপু বিশ্বাস। এরই মধ্যে অপু বিশ্বাসের কোলজুড়ে আসে এক পুত্র সন্তান। বিয়ের দীর্ঘ আট বছর পর গত ১০ এপ্রিল বেসরকারি একটি টেলিভিশনে কথা বলতে এসে সেই পুত্রের পিতৃপরিচয় দেশবাসীর কাছে তুলে ধরেন অপু বিশ্বাস।

এ সময় শাকিব খানকে স্ত্রী ও তার পুত্রকে মেনে নেওয়ার আহ্বান জানান অপু। এ নিয়ে গোটা দেশে তোলপাড় শুরু হয়। তাৎক্ষণিকভাবে পরিস্থিতি সামাল দিলে শাকিব খান স্ত্রী অপু বিশ্বাস ও তার শিশু পুত্র আব্রামকে মেনে নেন। কিন্তু আট বছর আগে বিয়ের সম্পর্ক টেলিভিশনের মাধ্যমে জনসম্মুখে আসলে শাকিব-অপুর সম্পর্কে টানাপোড়েন শুরু হয়।

দু’জনের দেখাদেখি পর্যন্ত বন্ধ হয়ে যায়। অবশেষে সেই সম্পর্ক ইতি ঘটতে যাচ্ছে আনুষ্ঠানিক ডিভোর্সের (তালাক) মাধ্যমে। ২০০৫ সালে আমজাদ হোসেনের ‘কাল সকালে’ ছবির মাধ্যমে চলচ্চিত্রে পদার্পণ করেন অপু।

তিনি ২০০৬ সালে এফআই মানিক পরিচালিত ‘কোটি টাকার কাবিন’ ছবিতে প্রধান নায়িকা হয়ে অভিনয় করেন শাকিব খানের বিপরীতে। অপু বিশ্বাস ৭২টি ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন। যার মধ্যে বেশির ভাগ ছবি ব্যবসা সফল।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here