নগরীতে কাউন্সিলর মুনিম ও বাকের মুখোমুখি

0
510

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেট নগরীর চালিবন্দর এলাকা সিটি কর্পোরেশনের পানির লাইন থেকে সংযোগ নেওয়ার কাজ সকালে শুরু করেন ১৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম মুনিম।

কিন্তু, কাজ চলা অবস্থায় দুপুরের দিকে এসে কাট আটকে দেন সিটি কর্পোরেশনের ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকের। এ নিয়ে এলাকাবাসীর সাথে বাকেরের বাকবিতণ্ডার ঘটনাও ঘটে।

জানা যায়- এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবীর প্রেক্ষিতে কয়েকমাস আগে সিলেট নগরীর চালিবন্দর এলাকায় নতুন একটি ১০ইঞ্চি পানির লাইন স্থাপন করে সিলেট সিটি কর্পোরেশন। চালিবন্দর এলাকা দুটি ওয়ার্ডে অবস্থিত। পশ্চিম দিকে ১৪নং ওয়ার্ড এবং পূর্ব দিকে ১৫নং ওয়ার্ড। নতুন পানির লাইনটি এলাকার পূর্ব পাশে অবস্থিত।

এই লাইন থেকে এলাকার ভেতরে বিদ্যমান গলিগুলোতে বসবাসকারী লোকদের সুবিধার জন্য ৪ ইঞ্চি পাইপ লাইন ঢুকানোর ব্যবস্থা করে সিসিক। বাকিগলিগুলোতে লাইন ঢুকানোর কাজ শেষ হলেও বাকি ছিল চালিবন্দরের উমেশচন্দ্র নির্মলাবালা ছাত্রাবাসের গলি।

বুধবার এ গলিতে সিসিকের টেন্ডারে ৪ইঞ্চি পাইপের লাইন ঢুকানোর কাজ শুরু করে দিয়ে যান ১৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর নজরুল ইসলাম মুমিন। কিন্তু, কাজ শুরুর কিছুক্ষণ পরই সেখানে এসে কাজ আটকে দেন ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকের।

এ নিয়ে উপস্থিত এলাকাবাসীর সাথে বাকেরের বাকবিতণ্ডার ঘটনাও ঘটে। পরে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি শান্ত করেন। তবে কাজ এখনো বন্ধ রয়েছে। এ কাজে সিটি কর্পোরেশনের দায়িত্বপ্রাপ্ত ঠিকাদার আলম জানান- সিটি কর্পোরেশন থেকে কাজের অনুমতি পেয়ে আমরা কাজ শুরু করেছি।

তবে কাউন্সিলর বাকের কাজ বন্ধ করার কথা বলায় আমরা কাজ বন্ধ রেখেছি। পরবর্তিতে অনুমতি পেয়ে আমরা আবার কাজ শুরু করব। চালিবন্দর এলাকার ব্যবসায়ী সাঈদি আহমদ বলেন- পানির জন্য আমরা চালিবন্দর এলাকাবাসী দীর্ঘদিন ধরে কষ্ট করে আসছি।

আমাদের দাবীর প্রেক্ষিতে সিটি কর্পোরেশন পানির লাইনের ব্যবস্থা করে দিলেও এখন বাধা হয়ে দাড়িয়েছেন কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকের। পানির লাইন না পেলে আমরা প্রয়োজনে আন্দোলনে যাব। এ ব্যাপারে ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ছয়ফুল আমিন বাকেরের মোবাইল ফোনে কল দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here