সিলেটে নতুন বছরে নতুন বই : উৎসব আমেজে পাঠ্যপুস্তক দিবস

0
139

সিলেটের সংবাদ ডটকম: বছরের প্রথম দিনে শিক্ষার্থীদের হাতে নতুন বই পৌছে দিতে সারা দেশের মত সিলেটেও আজ সোমবার সকাল থেকে বই উৎসব হচ্ছে।

সিলেট বিভাগের চার জেলাসহ সকল উপজেলায় এ উৎসব উদযাপন করা হচ্ছে। দক্ষিণ সুরমার কায়স্তরাইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক পর্যায়ের বই উৎসবের উদ্বোধন করেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম।

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক তাহমিনা খাতুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন-সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, জেলা শিক্ষা অফিসার নুরুল ইসলাম, অতিরিক্ত জেলা শিক্ষা অফিসার আমিরুল ইসলাম, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহেদ মোস্তফা প্রমুখ।

সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোছলেমা বেগমের উপস্থাপনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন-বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রুহুল জান্নাত রিপা। বক্তব্য রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন-ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নিজাম উদ্দিন, সদস্য সাংবাদিক কবির আহমদ প্রমুখ।

সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে বই উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. নাজমানারা খানুম। এদিকে, মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের বই উৎসবের উদ্বোধন হয় সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে।

এতে সিলেটের সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুম, জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার, সিলেট প্রেসক্লাব সভাপতি ইকরামুল কবির মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর কবির আহমদ, যুবলীগ নেতা আব্বাস উদ্দিন। সভাপতিত্ব করেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষিকা বাবলী পুরকায়স্থ। শিক্ষা কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, ইতোমধ্যে সিলেটের সকল জেলা ও উপজেলায় নতুন বই পৌছে গেছে।

এ বছর সিলেটে প্রাথমিকে ৭৯ লাখ ৯৪ হাজার ৪২৮টি বই ১৬ লাখ ৬৮ হাজার ৭০৭ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে দেয়া হবে। সিলেট বিভাগের ৫ হাজার ৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৭ হাজার ৯২৪টি বেসরকারি বিদ্যালয়ে একযোগে বই উৎসব উদযাপন হবে। বিভাগে ৫ হাজার ৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মধ্যে সিলেটে ১ হাজার ৪৫৩টি, সুনামগঞ্জে ১ হাজার ৪৬৫টি, হবিগঞ্জে ১ হাজার ৪১টি ও মৌলভীবাজারে ১ হাজার ৪৮টি এবং ১ হাজার ৪২৪টি কেজি স্কুল, ২ হাজার ২৪৯টি আনন্দ স্কুল, ৩ হাজার ৯৪৮টি এনজিও পরিচালিত স্কুল ও ৩০২টি মাদরাসায় একযোগে এ বই বিতরণ করা হবে।

সিলেটের বিভাগীয় প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তাহিমনা আক্তার বলেন, সিলেটে পর্যাপ্ত বই এসেছে। বইয়ের ঘাটতি থাকবে না। পাঠ্যবইসহ ৮২ লাখ ৪৬ হাজার ৭১৬ টি বইয়ের চাহিদার বিপরীতে ৭৯ লাখ ৯৪ হাজার ৪২৮টি বই মিলেছে। এরমধ্যে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শতভাগ বই পৌঁছে গেছে।

(Visited 8 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here