নবীগঞ্জে আ’লীগ নেতা ও সাংবাদিকের বাড়ীতে হামলা: আহত ১০, উত্তেজনা

0
230

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সিলেট-হবিগঞ্জ সংরক্ষিত আসনের এমপি আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরীর অনুষ্টান ভুন্ডলকে কেন্দ্র করে আওয়ালীগ নেতা ও সাংবাদিকের বাড়িতে বুধবার (০৩ জানুয়ারি) বিকালে হামলার ঘটনায় ১০জন আহত হয়েছে।

এ ঘটনা নিয়ে আওয়ামীলীগ ও বিএনপি নেতা কর্মীদের চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। জানা যায়, বিএনপির কিছু নেতাকর্মী আওয়ামীলীগের সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরীকে সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

বুধবার সকালে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এমপি কেয়া চৌধুরী বিএনপি নেতাদের অনুষ্ঠান জেনে অনুষ্ঠান বাতিল করেন। এ নিয়ে অনুষ্ঠান আয়োজকরা দায়ী করেন, স্থানীয় ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাংবাদিক রাকিল হোসেনকে। এর জের ধরেই বিকেলে বিএনপির নেতাকর্মীরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মিছিল সহকারে সাংবাদিক রাকিলের বাড়িতে হামলা চালায়।

এসময় ইনাতগঞ্জ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য, দৈনিক সিলেটের ডাক ও প্রতিদিনের বাণী পত্রিকার নবীগঞ্জ প্রতিনিধি রাকিল হোসেনের বাড়ীতে হামলা, ভাংচুর, লুটপাট ও মহিলাসহ ১০জন আহত হয়েছেন। পরে আহতদের নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের প্রজাতপুর গ্রামের বিএনপি নেতা লন্ডন প্রবাসী দিলবার হোসেন, ইনাতগঞ্জ ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি নুর আলী ও বিএনপি নেতা শাহীন আহমদের উদ্যোগে ইনাতগঞ্জ ইউনিয়নের প্রজাতপুর গ্রামের রাস্তা উন্নয়নের জন্য বিএনপি নেতা দিলবার হোসেনের বাড়ীতে আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

বুধবার বেলা ১১টার সময় এমপি কেয়া চৌধুুরী ইনাতগঞ্জের বান্দের বাজারে এসে খোঁজ নিয়ে দেখেন, উক্ত অনুষ্টানে ইনাতগঞ্জ আওয়ামীলীগের কোন নেতাকর্মী সম্পৃক্ত নেই। এ সময় এমপি কেয়া চৌধুরী প্রজাতপুর গ্রামের আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিল হোসেনকে অনুষ্টানের বিষয়টি জানেন কিনা জানতে চাইলে রাকিল হোসেন জানান, এ বিষয়ে তিনি কিছু জানেনা।

পরে এমপি কেয়া চৌধুরী অনুষ্ঠান বর্জন করে চলে যান। এ সময় বিএনপি নেতা দিলবার হোসেন আওয়ামীলীগ নেতা ও সাংবাদিক রাকিল হোসেনকে অনুষ্টান বাতিল করার পরিনাম বুঝিয়ে দিবে বলে হুমকি দেন। এর জের ধরে বেলা বিকালে বিএনপি নেতা দিলবারের নেতৃত্বে ৩০/৩৫জনের একটি দল দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সাংবাদিক রাকিল হোসেনের বাড়ীতে হামলা চালায়।

এক পর্যায়ে তারা ঘরে প্রবেশ করে জিনিষ পত্র ভাংচুর ও লুটপাট চালায়। এতে ৭/৮ লক্ষ টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে। তাদের দাঁড়ালো অস্ত্রের আঘাতে মহিলাসহ ১০জন আহত হন। যাবার সময় তারা নগদ টাকা, মোবাইল ফোনসহ দামী জিনিষ পত্র নিয়ে যায়। খবর পেয়ে ইনাতগঞ্জ ফাঁড়ির পরিদর্শক সামছুদ্দিন খাঁন ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম আতাউর রহমান জানান, হামলার খবর শুনার সাথে সাথে ইনাতগঞ্জ পুলিশকে ঘটনা স্থলে পাঠিয়েছি। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক আছে। এখনও অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(Visited 6 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here