সবুজ সংকেত পেলেন কামরান

0
1103

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কড়া হুঁশিয়ারি, জনসমর্থন আরও না বাড়ালে ভাগ্য বিপর্যয় ঘটবে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সদস্য ও সিলেট সিটি কপোরেশনের মেয়র বদরুদ্দিন আহমদ কামরান’র।

তাঁকে এ জন্য নির্দিষ্ট সময়সীমাও বেঁধে দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ হুঁশিয়ারির পাশাপাশি তাঁকে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচনের জন্য দলীয় প্রার্থী হিসেবে সবুজ সংকেতও দেওয়া হয়েছে।

আওয়ামী লীগের কয়েকজন নীতি-নির্ধারক নেতা জানিয়েছেন, এরই মধ্যে বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে সবুজ সংকেত দেওয়া হয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  গত শনিবার দলের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে আলোচিত এই নেতাকে মনোনয়নের বিষয়টি আবারও নিশ্চিত করেছেন। এই ক্ষেত্রে শর্তও জুড়ে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি কামরানের উদ্দেশে বলেছেন, সিটি করপোরেশনের নির্বাচন যখনই হোক না কেন- নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি অব্যাহত রাখতে হবে।

ভোটার তালিকা ধরে নির্বাচনী প্রচার চালাতে হবে। প্রতিটি ভোটারের কাছে গিয়ে ভোট চাইতে হবে। সেই সঙ্গে তাদের বর্তমান সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের বিবরণও স্মরণ করিয়ে দিতে হবে।

আগামী দুই মাসের মধ্যে এই নির্দেশনা কার্যকর না হলে প্রার্থী বদলের কথাও বলেছেন প্রধানমন্ত্রী। বদর উদ্দিন আহমদ কামরানকে তাঁর নির্বাচনী প্রস্তুতিও জানতে চান আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীকে কামরান জানান, তিনি (কামরান) এরই মধ্যে পুরোদমে আগাম নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রম শুরু করেছেন। এলাকায় বিভিন্ন গ্রুপে বিভক্ত হয়ে ভোটারদের কাছে গিয়ে ভোট চাইছেন। এখন থেকে নির্বাচনী প্রচার কার্যক্রমে আরও গতি আনবেন বলে প্রধানমন্ত্রীকে জানান তিনি।

এদিকে- সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, গত শনিবার আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী হিসেবে তাকে আবারও সবুজ সংকেত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে কয়েকজন নেতা বলেন, বিভিন্ন সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে রয়েছেন বিএনপি নেতারা। সেগুলোতে উন্নয়ন কার্যক্রমে বরাদ্দ দেওয়ার বেলায় এ বিষয়টির দিকে দৃষ্টি দেওয়া উচিত। এর জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্পষ্ট বলেন, বিভিন্ন সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে বিএনপি নেতারা থাকতেই পারেন।

তাই বলে উন্নয়ন কার্যক্রমে কিছুতেই বৈষম্য আনা যাবে না। বর্তমান সরকার সমানভাবে সব সিটি করপোরেশনের উন্নয়ন কার্যক্রমে বরাদ্দ দিয়েছে। এ কারণে সব সিটি করপোরেশনে ব্যাপক উন্নয়ন হচ্ছে। তথ্য সূত্র: দৈনিক সমকাল

(Visited 29 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here