‘প্রিয় জাকির ভাই, সিলেট এর সাধারণ ছাত্রলীগ কর্মীরা আপনার কাছে লজ্জিত’

0
2713

ইশতিয়াক চৌধুরী:  প্রিয় ভাই এস.এম জাকির হোসাইন আমরা সিলেট এর সাধারন ছাত্রলীগ কর্মীরা আপনার কাছে লজ্জিত। আমার মা আমাকে শিক্ষা দিয়েছেন কাউকে ভালোবাসলে সেই ভালোবাসা যেন হয় নি স্বার্থ।

থাকে পবিত্রতা যেন থাকে মনের গভীর থেকে শ্রদ্ধা ও যোগ্যতা, কাউকে মিথ্যা ভালবাসার শিক্ষা আমি পাইনি।

এক ভাই আমাকে প্রশ্ন করলেন সবাইত জাকির ভাই কে নিয়ে ফেসবুকে পোষ্ট দেয় তুমি দেওনা কেন? তাকে কি তুমার ভালো লাগেনা? আমি নিশ্চুপ,।

গত ছাত্রলীগ এর ৭০ তম প্রতিষ্টা বার্ষিকীর মিছিলে এ বঙ্গবন্ধু, জননেত্রী ও জয় ভাই এর ছবির পাশাপাশি সিলেট রত্ন জাকির ভাই এর ছবি নিয়ে অনেকে র‍্যালীতে অংশ গ্রহন করেন। একজন ভাই আমাকে বল্লেন জাকির ভাই এর ছবি নেওয়ার জন্য কিন্তু আমি ছবি টি নেইনি, তিনি অনেকটা অবাক হলেন এবং মনে মনে হয়তবা ভাবলেন জাকির ভাইকে হয়তবা সে ভালবাসে না বা সম্মান করে না। তিনি অনেকটা রাগও করলেন, কিন্তু আমি নিশ্চুপ দারিয়ে ভাবছিলাম এ ছবিটা নেওয়ার যোগ্যতা আমাদের সিলেট ছাত্রলীগ এর কার কি আছে???।

যখন মানুষ টা জননেত্রী শেখ হাসিনার হাত কে শক্তিশালী করার লক্ষ্য মানবতা সেবায় বিরামহীন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। তখন সিলেট ছাত্রলীগ অনেক অনৈতিক কর্মকাণ্ড এর কারনে তাকে একজন সিলেটি হিসাবে হতে হয়েছে অনেক লজ্জিত এবং পড়তে হয়েছে অনেক চাপের মধ্য।

এইত এটাই দিতে পেরেছি, আমরা দিতে পেরেছি মাছুম, মিয়াদ, সর্ব শেষ তানিম সহ ৪ টি ভাই এর রক্তে লাশের মিছিল, যেটার জন্য সাংবাদিক এর সামনা সামনি ভাই কে হতে হয়েছে তাকে সহ্য করতে হয়েছে সিনিয়রদের অনেক কথা। তাই সেই দিন মিয়াদ হত্যার পর আমার ৪ টি ভাই লাশের বুজা,অপমান ও অভিমান নিয়ে পদত্যাগ করেছিলাম সিলেট জেলা ছাত্রলীগ সহ সম্পাদক পদ থেকে।

জননেত্রী শেখ হাসিনা সিলেটিদের ভালোবেসে উপহার দিয়েছিলেন দক্ষিণ এশিয়ার সর্ববৃহৎ সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসাইন ভাই কে, কিন্তু জননেত্রীর এই উপহার এর সঠিক মূল্যায়ন কি আমরা দিতে পেরেছি?

কিন্তু আমাদের সিলেটে ছাত্রলীগ অনেক হেড মওলা ও তেলবাজ নেতারা আছেন যারা সারাদিন ভাই এর আশে পাশে ঘুরে ভাই এর ডান হাত, বাম হাত পরিচয় দেন, সারাদিন ফেসবুকে ভাই এর ছবি আপলোড করে ভাই কে মিথ্যা ও তেলযুক্ত ভালবাসা দেখান। কিন্তু দু:খের বিষয় সিলেট ছাত্রলীগ এর কোন ইউনিট গত ৩ বছরে সিলেট এর এই রত্ন কে একটি সংবর্ধনা দিতে পারেনি।

যা সিলেট এর একজন ছাত্রলীগ কর্মী হিসাবে আমি নিজেকে একজন অকৃতজ্ঞ ও লজ্জিত মনে করি। প্রিয় জাকির ভাই জানি ক্ষমা চাওয়ার যোগ্যতা আমাদের নেই,তবু বলি প্রিয় ভাই আমাদের ক্ষমা করবেন।

পরিশেষে আপনার দীর্ঘ আয়ু ও সুসাস্থ কামনা করি। আপনার প্রতি রইল মনের গভীর থেকে শ্রদ্ধা এবং ভালবাসা। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু। লেখক:- সাধারণ কর্মী, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সিলেট জেলা শাখা।

(Visited 28 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here