জাফলংয়ে মাতাই বাহিনীর হামলা : বসত ভিটা দখলের চেষ্টা

0
203

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার ৩নং পূর্বজাফলং ইউনিয়নের নয়াবস্থি গ্রামের কাটাই মিয়ার পুত্র মাতাই বাহিনী স্থানীয় অসহায় রহিমা বেগমের ১১শতক জমি দখল করতে তার বসত ঘরে হামলা চালিয়েছে।

এঘটনায় রহিমা বেগম বাদি হয়ে গোয়াইনঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, ৩নং পূর্বজাফলং ইউনিয়নের মাতাই (৩৬) জাফলং নয়াবস্থি পাথর রাজ্যের এক মুর্তিমান আতংক্ষের নাম।

বর্তমান ইউপি সদস্য আতাউর রহমান আতাইয়ের ভাই হওয়ার সুবাদে তার স্থানীয় পুলিশ প্রসাশনের সাথে রয়েছে সু-সম্পর্ক। যার কারনে পুলিশ প্রসাশনকে ম্যানেজ করে তার বাহিনী দিয়ে বাদীনি রহিমা বেগমের বসত ঘরে হামলা চালিয়ে ঘরের টিন সেডের বেড়াসহ আসবাবপত্র ভাংচুর করেছে।

তাদের উৎখাতের হুমকিসহ প্রাণে হত্যার ভয়ভিতি প্রদর্শন করে আসছে এ বাহিনী। দীর্ঘ দিন থেকে এলাকায় পাথর কোয়ারীর সাথে বাণিজ্যিক সু-সম্পর্ক থাকার সুবাদে স্থানীয় প্রসাশনের সঙ্গে আতাত গড়ে উঠার কারনে দিন দিন মাতাই বাহীনির নির্যাতন বেড়েই চলেছে।

সম্প্রতি জাফলং লাখের পাড় ২য় খন্ডের রহিমা বেগমের মালিকানাধীন ১১শতক জমির উপর লুলুপ দৃষ্টি পড়ে এ বাহিনীর। ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে মাতাই তার বাহিনী আজির উদ্দিন, দেলোয়ার, জাকির হোসেন, সুমন, রিমনকে নিয়ে গত সোমবার দিবাগত রাতের অন্ধকারে মাতাই তার নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী নিয়ে রহিমা বেগমের বসত ঘরে হামলা চালায়।

হামলার এক পর্যায়ে মাতাই বাহিনী রহিমা বেগমের ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে এবং প্রাণে হত্যার হুমকি প্রর্দশন করে। এমন অতর্কিত হামলার ঘটনায় রহিমা বেগমের আর্তচিৎকারে স্থানীয় এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে মাতাই বাহিনী পালিয়ে যায়। হামলায় রহিমা বেগমের বসতঘরের তৈজসপত্রসহ প্রায় লক্ষাধিক টাকার ক্ষতিসাধন করে।

যার প্রেক্ষিতে রহিমা বেগম বাদি হয়ে গত ১৬ জানুয়ারি গোয়াইনঘাট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই উসমান এর সাথে আলাপকালে তিনি জানান, জমি সংক্রান্ত বিরোধের কারনে উভয় পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে এবং রহিমা বেগমের অন্য একটি মামলায় বর্তমানে বিরোধীয় এ ভূমির উপর বিজ্ঞ আদালতে ফৌজদারী কার্যবিধি আইনে ১৪৪জারি থাকা স্বত্বে মাতাই বাহিনী হামলা চালিয়েছে। এ ব্যাপারে বিবাদী আজির উদ্দিন এর সাথে মুটো ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ঘটনার স্বীকার না করে বিষয়টি এড়িয়ে যান।

(Visited 5 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here