৩০ জানুয়ারি গাজী বোরহান উদ্দিন (র.) মাজার উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী

0
212

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: উদ্বোধনের অপেক্ষায় সিলেটের প্রথম মুসলমান হযরত গাজী বোরহান উদ্দিন (রহঃ) মাজার ও তৎসংলগ্ন এলাকার অবকাঠামোগত উন্নয়ন প্রকল্প। এ প্রকল্পে ব্যয় হয়েছে ১৮ কোটি ৭৭ লাখ ৪৫ হাজার ২শ’ টাকা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী ৩০ জানুয়ারি আনুষ্ঠানিকভাবে এ প্রকল্প উদ্বোধন করবেন বলে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের একটি সূত্র জানিয়েছে।

প্রকল্পের আওতায় হযরত গাজী বোরহান উদ্দিন (রহঃ) মাজার মসজিদ নির্মাণ, মহিলা ইবাদত খানা নির্মাণ, ২ কিলোমিটার রাস্তা এসফল্ট দ্বারা উন্নয়ন, ৩ কিলোমিটার রাস্তার কার্পেটিং, ১ দশমিক ২২ কিলোমিটার আরসিসি ড্রেন ও ১টি বক্স কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা যায়, প্রকল্পটির কাজ সমাপ্ত করতে সংশ্লিষ্টরা প্রাণান্তকর প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। প্রকল্পের ফিনিশিং ওয়ার্ক পুরোদমে চলছে। সেখানে কর্মরত শ্রমিকরা এখন পার করছেন ব্যস্ত সময়। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের (সিসিক)। প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব জানান, এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একটি প্রতিশ্রুত প্রকল্প। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ৩০ জানুয়ারি এ প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন।

উদ্বোধনের আগে প্রধানমন্ত্রী সেখানে ফাতেহা পাঠ করবেন এবং মোনাজাতে অংশ নেবেন বলে তারা জানতে পেরেছেন। তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর সফরের অংশ হিসাবে এরই মধ্যে সিলেটের জেলা প্রশাসকসহ পদস্থ কর্মকর্তারা প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করেছেন। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সোহেল আহমদ রিপন জানান, বর্তমান সরকারের সময় একনেক-এ পাস হওয়া এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করেছে সিসিক।

বুরহান উদ্দিন (র.) মাজারে প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে স্বাগত জানিয়ে এলাকায় অনেক বিলবোর্ড ও তোরণ নির্মাণ করা হয়েছে। কুশিঘাট এলাকার বাসিন্দা শংকর সিংহ জানান, প্রধানমন্ত্রীর আগমনের সংবাদে এলাকার লোকজন উৎফুল্ল। এলাকার মানুষ প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে প্রস্তুত।

প্রসঙ্গত, গাজী বুরহান উদ্দীনের মাজার সিলেট বিভাগের প্রথম মুসলমান বুরহান উদ্দীনের সমাধি। সিলেট নগরীর দক্ষিণ পূর্ব সীমান্তে সুরমা নদীর তীরে এ মাজার অবস্থিত। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন কুশিঘাট এলাকায় গাজী বুরহান উদ্দীনের ঐতিহাসিক বাড়িতেই তাঁর সমাধি বা মাজারের অবস্থান।

শ্রীহট্ট (অধুনা সিলেট) অঞ্চলে বসবাসকারী খ্রিস্টিয় দ্বাদশ শতাব্দীর প্রথম মুসলমান পরিবারের স্মৃতি বিজড়িত এ স্থানটি সিলেটের অন্যতম পূণ্য তীর্থ হিসেবে পরিচিত।

প্রাচীন শ্রীহট্টের গৌড় রাজ্যের রাজ্যের রাজা গৌড়-গোবিন্দের অত্যাচারে নিহত গাজী বুরহান উদ্দীনের ছোট শিশু গুলজারে আলমের মাজার বা সমাধিসহ এখানে আরো কয়েকটি মাজার রয়েছে।

এ মাজারকে গুলোকে কেন্দ্র করে এখানে প্রতিদিন বিপুল সংখ্যক পর্যটকের আগমণ ঘটে।সুত্র:- সিলেটের সকাল

(Visited 19 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here