সুনামগঞ্জে ইজি বাইকের ধাক্কায় ক্ষুদে শিক্ষার্থী নিহত : শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

0
134

সিলেটের সংবাদ ডটকম: সুনামগঞ্জ পৌর শহরের ইজি বাইকের ধাক্কায় চার বছরের শিশু শিক্ষার্থী নিহতের ঘটনায় শহরে বেপরোয়াভাবে ইজি বাইক চলাচলবন্ধের দাবিতে শহরের ভিতরের রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে শিশু শিক্ষার্থীরা।

এর আগে শিশুশিক্ষার্থী, বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষিকা ও অভিভাবকরা মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেন।

শনিবার সকালে পৌরশহরের সৃজন বিদ্যাপীঠ স্কুলের সামনে ঘন্টাব্যাপী রাস্তা অবরোধ করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসুচি পালন করে সৃজন বিদ্যাপীঠ স্কুলের শিশু শিক্ষার্থী, শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং অভিভাবকেরা।

এসময় রাস্তার দু’পাশে বন্ধ করে সকল প্রকার যানবাহন আটকে এ বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হয়। পরে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা শহিদুল্লাহ এবং জেলা প্রশাসকরে আশ^াসে কর্মসূচি শেষ করা হয়। বিক্ষোভ চলাকালে বক্তব্য রাখেন- সৃজন বিদ্যাপীঠরে অধ্যক্ষ জাকিয়া নাসরিন ডলি, আইনজীবী ও শিক্ষক এনাম আহমেদ, বিদ্যালয়ের অভিভাবক ও শিক্ষার্থীরা।

অবরোধ চলাকালে বক্তব্য দেন সৃজন বিদ্যাপীঠের অধ্যক্ষ জাকিয়া নাসরিন, সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) খায়রুল কবির রুমেন, জেলা খেলাঘর আসরের সাধারণ সম্পাদক এনাম আহমেদ, শিক্ষক দেওয়ান গিয়াস চৌধুরী, অভিভাবক সুবল চন্দ্র দাস, শিক্ষাথী ফারিহা আক্তার। এনাম আহমেদ বলেন, ইজিবাইক শহরে একটি প্রাণঘাতী বাহনে পরিনত হয়েছে। কারো কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই।

এর সংখ্যা কত কেউ বলতে পারেন না। ইজিবাইকে কারণে আর যাতে দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি না ঘটে এ জন্য এসব চলাচল বন্ধ করতে হবে। ষোলঘর এলাকার বাসিন্দা বিন্দু তালুকদার, শহরে দুই হাজারের ওপরে ইজিবাইক আছে। এসবের বেশিরভাগই ভাঙাচোরা। ইজিবাইকের কারণে শহরের বিভিন্নস্থানে যানজট লেগে থাকে।

সড়ক অবরোধ চলাকালে খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ইজিবাইক চালক ওই দোষী ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে জানালে এক ঘন্টা পর অবরোধ তুলে নেন। সুনামগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ জানান, স্বচ্ছ দাসকে ধাক্কা দেওয়া ইজিবাইকের চালক রতিশ দাসকে (২৮) গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সে বর্তমানে কারাগারে আছে। সুনামগঞ্জ পৌরসভা সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭ সালের হিসাব অনুযায়ী শহরে এক হাজার ৫৬৫টি ইজিবাইক আছে। তখন নিবন্ধিত ইজিবাইক চালকের সংখ্যা ছিল ৭৫০জন। এবার চালকদের লাইসেন্স নবায়নের ক্ষেত্রে গাড়ির বৈধ কাগজপত্র, চালকের ১৮ বছর বয়স, পুর্ব অভিজ্ঞতা এবং ডাক্তারি সনদ চাইলে মাত্র ৩৫৩জন চালক সেটি নবায়ন করেছেন।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার রাতে ইজি বাইকের ধাক্কায় মূহুর্ত দাস স্বচ্চ গুরুত্ব আহত হয়ে হাসপাতালে নেয়ার পথে মারা যায়। সেই সাথে গত একমাসে শহরে ইজি বাইক দূঘটনায় শিশুসহ ২জন নিহত হয়েছে আর আহত অর্ধশতাধিক। এদিকে, একই দাবীতে পৌর শহরের ষোলঘরে মানববন্ধন ও সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী।

(Visited 13 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here