একনেকে ১৫ প্রকল্প অনুমোদন

0
150

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: ‘পূর্বাঞ্চলীয় গ্রীড নেটওয়ার্কের পরিবর্ধন এবং ক্ষমতাবর্ধন’ প্রকল্পসহ ১৭ হাজার ৯৮৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা ব্যয়ে মোট ১৫টি প্রকল্পের চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

এর মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ব্যয় হবে ১১ হাজার ৯৪০ কোটি ৩২ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ৫২৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য হিসেবে পাওয়া যাবে ৫ হাজার ৫২৩ কোটি ২২ লাখ টাকা।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এসব প্রকল্পের অনুমোদন দেওয়া হয়। বৈঠকশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তাফা কামাল প্রকল্পের বিষয়ে সাংবাদিকদের বিস্তারিত ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, একনেকে অনুমোদন হওয়া ‘পূর্বাঞ্চলীয় গ্রীড নেটওয়ার্কের পরিবর্ধন এবং ক্ষমতাবর্ধন’ প্রকল্পটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।পূর্বাঞ্চলে সঞ্চালন লাইন সময়োপযোগি করে নিশ্চিতভাবে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়ার জন্যই এ প্রকল্পটি নেওয়া হয়েছে,অনেক সময় বেশি লোড পড়লে বিদ্যুৎ বিভ্রাট ঘটে।এসব ঘটনা যাতে না ঘটে সেই লক্ষ্যেই অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা হবে।

তিনি জানান,প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে বৃহত্তর কুমিল্লা, নোয়াখালী ও চট্টগ্রাম অঞ্চলসহ ৩৫ জেলায় নির্ভরযোগ্য বিদ্যুৎ সরবরাহের পাশাপাশি ক্রমবর্ধমান চাহিদা পূরণ করা সম্ভব হবে। প্রকল্পের আওতায় ১২ কিলোমিটার ৪০০ কেভি সঞ্চালন লাইন এবং ১৭৫ কিলোমিটার ২৩০ কেভি সঞ্চালন লাইন নির্মাণ করা হবে।

এছাড়াও ৪০০ কেভি দু’টি সাব স্টেশন ও ২৩০ কেভি দু’টি সাব স্টেশন নির্মাণ করা হবে। প্রকল্পের আওতায় ৮৬ একর ভূমি অধিগ্রহণের পাশাপাশি ১ লাখ ১৫ হাজার ঘনমিটার ভূমি উন্নয়ন করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৫ হাজার ৮০৪ কোটি টাকা।

একনেকে অনুমোদন পাওয়া অন্য প্রকল্পসমূহ হলো-ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন নবসংযুক্ত নাসিরাবাদ, দক্ষিণগাঁও, ডেমরা ও মান্ডা এলাকার সড়ক অবকাঠামো ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নয়ন প্রকল্প, স্বাস্থ্য অধিদফতরের ‘শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল স্থাপন, গাজীপুর’, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের জামালপুর-চেচুয়া-মুক্তাগাছা মহাসড়ক প্রশস্তকরণ ও মজবুতিকরণ প্রকল্প এবং জেলা মহাসড়ক যথাযথ মান ও প্রশস্ততায় উন্নীতকরণ (বরশিাল জোন) প্রকল্প।

কৃষি মন্ত্রণালয়ের ‘উপজেলা পর্যায়ে প্রযুক্তি হস্তান্তরের জন্য কৃষক প্রশিক্ষণ (৩য় পর্যায়)’ প্রকল্প,বছরব্যাপী ফল উৎপাদনের মাধ্যমে পুষ্টি উন্নয়ন প্রকল্প এবং রংপুর অঞ্চলে ভূ-উপরিস্থ পানি সংরক্ষণের মাধ্যমে ক্ষুদ্রসেচ উন্নয়ন ও সেচ দক্ষতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্প। বিদ্যুৎ বিভাগের ‘পটুয়াখালী ১৩২০ মে. ও. সুপার থার্মাল পাওয়ার প্লান্ট-এর জন্য ভূমি অধিগ্রহণ, ভূমি উন্নয়ন ও সংরক্ষণ’ প্রকল্প।

স্থানীয় সরকার বিভাগের ‘বন্যা ও দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী সড়ক অবকাঠামো পুনর্বাসন’ এবং ৩২টি পৌরসভায় পানি সরবরাহ ও মানব বর্জ্য ব্যবস্থাপনাসহ এনভায়রনমেন্টাল স্যানিটেশন প্রকল্প। ‘রেলপথ মন্ত্রণালয়ের কালুখালী ভাটিয়াপাড়া সেকশন পুনর্বাসন এবং কাশিয়ানী-গোপালগঞ্জ-টুঙ্গিপাড়া নতুন রেলপথ নির্মাণ’ এবং ‘বাংলাদেশ রেলওয়ের পার্বতীপুর হতে কাউনিয়া পর্যন্ত মিটারগেজ রেলওয়ে লাইনকে ডুয়েলগেজে রূপান্তর প্রকল্প’।

জননিরাপত্তা বিভাগের ‘বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ এর জন্য বিভিন্ন বিওপির পরিসীমা বরাবর কাঁটা তারের বেড়া নির্মাণ (১ম পর্যায়)’ প্রকল্প। এছাড়া আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের ‘বাংলাদেশের বীমা খাত উন্নয়ন’ প্রকল্প।

(Visited 7 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here