বিশ্বনাথে চুরি হওয়া অটোরিক্সা ১মাস পর উদ্ধার

0
385

সিলেটের সংবাদ ডটকম ডেস্ক: সিলেটের বিশ্বনাথে চুরি হওয়া সিএনজি অটোরিক্সা গাড়িটি ১মাস পর পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করেছে পুলিশ।

গত সোমবার (০৫ মার্চ) দিবাগত রাত ২টায় উপজেলা কোনাউরা নোয়াগাঁও এলাকা থেকে বিশ্বনাথ থানা পুলিশ উদ্ধার করে।

এদিকে, গাড়ি চুরির অভিযোগে দায়েরকৃত মামলার বিবাদী পক্ষের অভিযোগ পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাদেরকে ফাঁসাতে অটোরিক্সা চুরির নাটক সাঁজিয়ে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানী করা হচ্ছে।

জানা গেছে, সরকারী জায়গা থেকে মাটি কেটে নেওয়াকে কেন্দ্র করে বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজী ইউনিয়নের উদয়পুর গ্রামের আবুল কালামের পুত্র আবু সালেহ মোঃ ত্বোহা গংদের সাথে একই গ্রামের আব্দুল খালিকের পুত্র আব্দুল ওয়াদুদ গংদের বিরোধ চলে আসছে।

গত ২৯ জানুয়ারী সকালে দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এঘটনায় গত ২ফেব্রুয়ারি আবু সালেহ মোঃ ত্বোহা বাদি হয়ে হামলা, মারধর ও তার সিএনজি অটোরিক্সা (সিলেট থ-১১-৯৪৫০) গাড়িটি চুরির অভিযোগে প্রতিপক্ষের ৭জনকে আসামী করে বিশ্বনাথ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন (মামলা নং-৬)।

দায়েরকৃত মামলায় তিনি উল্লেখ করেন, তিনি পেশায় একজন সিএনজি চালক। বিবাদীরা উদয়পুর দারুল আরকাম ইবতেদায়ী মাদ্রাসার জমি জোরপূর্বক দখল করার চেষ্টা করলে বাদি (আবু সালেহ মোঃ ত্বোহা) ও গ্রামের অন্যান্য লোকজন তাতে বাধা প্রদান করায় উক্ত বিষয়কে কেন্দ্র করে তাদের সাথে (বিবাদী) তার (বাদি) বিরোধ চলে আসছে।

গত ২৮ জানুয়ারী রাতে তার নিজের গাড়িটি গ্যারেজে বন্ধ করে বাড়িতে চলে আসেন। পরদিন সকাল ৮টায় গাড়ি বের করতে গ্যারেজের সামনে গেলে তিনি দেখতে পান তার গাড়িটি বিবাদী আব্দুল ওয়াদুদ স্টার্ট দিয়ে গ্যারেজ থেকে বের করে নিয়ে যাচ্ছেন। এসময় পূর্ব বিরোধের জের ধরে তাদের উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে বিবাদীগণ তাদের উপর আক্রমন করে মারধর করে বাদি ও তার ভাই’সহ ৩জনকে আহত করে সিএনজি গাড়িটি নিয়ে যায় বিবাদীগণ।

এঘটনায় থানায় মামলা দায়েরের পর গত ৩ মার্চ মামলার ৩নং আসামী উদয়পুর গ্রামের মৃত আহমদ আলীর পুত্র ফিরোজ আল মামুন (৩৩) কে গ্রেফতার করে থানা পুলিশ। পরদিন আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পান ফিরোজ আল মামুন। ঐ দিন সোমবার (৫মার্চ) দিবাগত গভীর রাতে উপজেলার কোনাউড়া নোয়াগাঁও এলাকা থেকে চুরি হওয়ার সিএনজি অটোরিক্সাটি রাস্তার পাশ্বে পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে, পূর্ব বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষতে ফাঁসাতে অটোরিক্সা চুরির নাটক সাঁজিনো হয়েছে দাবি করে বিবাদী ফিরোজ আল মামুন বলেন, আমি আনসার বিডিবি’র একজন সদস্য। আবু সালেহ মোঃ ত্বোহা গংরা সরকারি জায়গা থেকে মাটি কেটে নিতে চাইলে আমরা প্রতিবাদ করি আর এরই জের ধরে হয়রানী করতে নিজের গাড়িটি লুকিয়ে রেখে আমাদের উপর মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন আবু সালেহ মোঃ ত্বোহা।

প্রায় ১মাস পর গভীর রাতে রাস্তার পাশ থেকে গাড়িটি পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধারই তা প্রমাণ করে। এব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার এসআই সাজিন তালুকদার বলেন, গভীর রাতে এলাকার স্থানীয় লোকজন রাস্তার পাশে সিএনজিটি পরিত্যক্ত অবস্থায় দেখতে পেয়ে থানায় ফোন করে জানায়। এরপর গাড়িটি উদ্ধার করে নিয়ে আসি। মামলাটি তদন্তাধিন রয়েছে বলে তিনি জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা থানার এসআই সবুজ কুমার নাইডু।

(Visited 22 times, 1 visits today)

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here